Alexa
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

ছেলেকে ‘পাগল’ বলায় শিশু মিষ্টিকে হত্যা

আপডেট : ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১২:৫৭

সানজিদা জান্নাত মিষ্টি যশোরে শিশু সানজিদা জান্নাত মিষ্টি (৪) হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন প্রতিবেশী আঞ্জুয়ারা বেগম (৪০)। গত রোববার আদালতে দেওয়া এ জবানবন্দির সূত্র ধরে পুলিশ লাশ গুমে সহযোগিতার অভিযোগে প্রতিবেশী আরেক দম্পতিকে আটক করেছে।

আটক দুজন হলেন যশোর সদরের আরবপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বি-পতেঙ্গালী গ্রামের আব্দুল মালেক গাজী (৬৫) ও তাঁর স্ত্রী খাদিজা বেগম (৫০)। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিবির ওসি রূপন কুমার সরকার। এর আগে সানজিদা জান্নাত মিষ্টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তাঁর বাবা সোহেল রানা কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

ডিবির ওসি রূপন কুমার সরকার জানান, মিষ্টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আটক আঞ্জুয়ারা খাতুনকে রোববার আদালতে সোপর্দ করা হয়। এ সময় তিনি পূর্ব আক্রোশে সানজিদা জান্নাত মিষ্টিকে খুন করেন বলে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম জবানবন্দি শেষে তাঁকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, আঞ্জুয়ারার অপূর্ব হাসান নামে সাত বছর বয়সী শারীরিক প্রতিবন্ধী একটি ছেলে আছে। মাঝেমধ্যে খেলাধুলা করার সময় মিষ্টির সঙ্গে অপূর্ব হাসানের মারামারি হয়। মাঝেমধ্যে মিষ্টি তাকে পাগল বলত। এ কারণে আঞ্জুয়ারা ও তাঁর স্বামী রেজা মিষ্টির ওপর ক্ষুব্ধ ছিলেন।

এরই সূত্র ধরে শনিবার দুপুরে আপেল খাওয়ানোর কথা বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে মিষ্টিকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন তিনি। এ ঘটনায় শনিবার রাত ১১টার দিকে সন্দেহভাজন হিসেবে জিজ্ঞাসাবাদ করলে আঞ্জুয়ারা পুলিশের কাছে মিষ্টিকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। পরে মিষ্টির লাশ আঞ্জুয়ারার চালের ড্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় রোববার নিহত মিষ্টির বাবার করা মামলায় আঞ্জুয়ারাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম বলেন, সানজিদা জান্নাত মিষ্টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গ্রেপ্তার আঞ্জুয়ারা দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। তাঁর জবানবন্দি অনুযায়ী আরও দুজনকে আটক করা হয়েছে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    টাকা নিয়ে লাপাত্তা এনজিও

    বিদ্যালয়ের তালাবদ্ধ কক্ষে রাতে চলছিল বৈদ্যুতিক পাখা

    ইজারা ছাড়াই ঘাটে টোল পকেট ভারী হচ্ছে কার

    ভালো কিছু করার চেষ্টা থাকবে: নতুন ডিসি

    অভয়নগরে চাল সংগ্রহে ব্যর্থ খাদ্যগুদাম

    ‘মাদকাসক্তির চেয়ে ভয়াবহ স্ক্রিন আসক্তি’

    টাকা নিয়ে লাপাত্তা এনজিও

    চামড়াজাত পণ্য থেকে ১০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানির লক্ষ্য সরকারের: বাণিজ্য মন্ত্রী

    বিদ্যালয়ের তালাবদ্ধ কক্ষে রাতে চলছিল বৈদ্যুতিক পাখা

    ইজারা ছাড়াই ঘাটে টোল পকেট ভারী হচ্ছে কার

    চোটে পড়ে হাসপাতালে রোহিত শর্মা

    প্রচলিত নিয়ম মেনেই বিএনপিকে সভা-সমাবেশ করতে হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী