Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

পুঠিয়ায় অফিসরুমে দরজা লাগিয়ে অধ্যক্ষকে মারধর, গ্রেপ্তার ১

আপডেট : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:২৯

পুঠিয়ায় অফিসরুমে দরজা লাগিয়ে অধ্যক্ষকে মারধর, গ্রেপ্তার ১ রাজশাহীর পুঠিয়ায় সাধনপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভাঙচুর ও ছাত্রীদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগ ওঠে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে। অভিযোগের বিষয়টি প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ফয়েজ উদ্দীন ছাত্রের অভিভাবককে অবহিত করেন। আর এ কারণেই ওই শিক্ষার্থীর পিতাসহ তিনজন মিলে অফিসরুমে এসে দরজা বন্ধ করে ওই অধ্যক্ষকে মারধর করেছেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই অধ্যক্ষ তিনজনের নামে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ রনি নামের এক অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে।

গত বুধবার দুপুর ২টার দিকে প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষের কক্ষে এই মারধরের ঘটনা ঘটে। আর গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত তিনজনের নামে থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

অভিযুক্তরা হলেন—ছাত্র প্রথিক মাহমুদ ওরফে প্রার্থের বাবা মাসুদ রানা, মামা জাফর আলী ও তাঁদের অপর একজন সহযোগী গ্রেপ্তারকৃত রনি। 

সাধনপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ফয়েজ উদ্দীন বলেন, ‘দশম শ্রেণির ছাত্র প্রথিক মাহমুদ একটু বখাটে প্রকৃতির। সে প্রতিনিয়ত নানা কারণে প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর করে। সেই সঙ্গে ছাত্রীদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক ব্যবহার করে। আর এসব ঘটনা গত সোমবার তাঁর বাবাকে জানানো হয়। গত বুধবার দুপুরে অভিযুক্ত তিনজন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আসেন। সে সময় তাঁরা কক্ষে থাকা শিক্ষকদের বাইরে যাওয়ার নির্দেশ দেন। শিক্ষকেরা বাইরে বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অভিযুক্তরা কক্ষের দরজা বন্ধ করে দেন। এরপর তাঁরা আমাকে মারধর শুরু করেন। পরে আমার চিৎকার শুনে পাশের কক্ষে থাকা শিক্ষক ও কর্মচারীরা এসে আমাকে উদ্ধার করেন। এ বিষয়ে স্কুলের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও আমাদের সংশ্লিষষ্ট দপ্তরে পরামর্শ করে বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত তিনজনের নামে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও শিলমাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন মুকুল বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানের পাশে একটি সংঘবদ্ধ চক্র রয়েছে। তারা বিভিন্ন সময়ে নানা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাচ্ছে। এটা তারই একটা অংশ। ছাত্রের অন্যায়ের অভিযোগ করায় অভিভাবকেরা শিক্ষককে মারধর করবেন—এটা মেনে নেওয়া যায় না। আমি বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছি। তবে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।’

উপজেলা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা লায়লা আকতার জাহান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘একজন শিক্ষককে প্রকাশ্যে তাঁর কক্ষে মারধরের ঘটনা খুবই দুঃখজনক। আমরা বিষয়টি অবহিত হওয়ার পর অধ্যক্ষকে মামলা দায়ের করতে নির্দেশ দিয়েছি।’

এ ব্যাপারে থানার ওসি সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, শিক্ষককে মারধরের বিষয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই শিক্ষক তিনজনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দিয়েছেন, যা তাৎক্ষণিক মামলভুক্ত করা হয়েছে। ইতিমধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আর বাকি অভিযুক্তদের আটক করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    নয়াপল্টনে ‘পুলিশি হামলার’ প্রতিবাদে ডিইউজের একাংশের বিক্ষোভ 

    অনলাইন জুয়ায় একমাসে ৩ হাজার কোটি টাকা পাচার, গ্রেপ্তার ৯

    সাংবাদিক ইলিয়াস ও এসপি বাবুলের বিরুদ্ধে পিবিআইয়ের মামলা, প্রতিবেদন ১২ জানুয়ারি

    সড়ক দুর্ঘটনায় রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের শ্রমিক নিহত

    নোয়াখালীর চাটখিলে স্কুলছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

    শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন, যুবকের মৃত্যু

    যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগের পেছনে আমাদের এক সাংবাদিক: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    রাজনৈতিক সহিংসতায় মার্কিন রাষ্ট্রদূতের উদ্বেগ

    লাবুশেন-হেডের জোড়া সেঞ্চুরিতে প্রথম দিন অস্ট্রেলিয়ার

    ভাইয়ের শোকে কান্না করতেও ভয় পাচ্ছি: মকবুলের বড় ভাই

    অনেকের ইচ্ছা একটা লাশ পড়ুক: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    নয়াপল্টনের সড়ক ছাড়ল পুলিশ, মিছিল করল আওয়ামী লীগ