Alexa
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

মরা গরুর মাংস ফেলে পালালেন কসাই

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৩:১২

প্রতীকী ছবি ভোলার চরফ্যাশনে মৃত গরুর মাংস ফেলে পালিয়েছেন এক কসাই। আজ মঙ্গলবার সকালে মাংস বাজার সংলগ্ন পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের হাবিবুর রহমান দফাদার বাড়ির দরজা থেকে এসব মাংস জব্দ করে চরফ্যাশন থানা পুলিশ।

এলাকাবাসী ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো সকালে মাংস বাজারে গরু জবাই শুরু হয়। সেখানে নোমান কসাইয়ের গরুটি ডাক্তারি পরীক্ষা-নিরীক্ষায় রোগাক্রান্ত ধরা পড়ে। গরুটি শোয়া থেকে উঠতেও পারছিল না। এ অবস্থায় সকালে গোপনে বাজার থেকে গরুটিকে সরিয়ে নেওয়া হয়। মুরগি ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম টিপু মিয়ার বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছালে গরুটি মারা যায়।

চরফ্যাশন শহরের ৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আকতারুল আলম সামু বলেন, ‘সকালে ফোনকলে আমি মৃত গরু জবাইয়ের কথা জানতে পারি। পরে আমিসহ কয়েকজন সংবাদকর্মী ঘটনাস্থলে পৌঁছালে কসাই নোমান (৩৪), রায়হান (২৮), রাছেল (৩২) ও কবির (৩০) যন্ত্রপাতি ও জবাইকৃত গরুর মাংস ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌর মেয়র মোরশেদ মিয়াও পৌঁছান। থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ মরা গরুর মাংস জব্দ করে থানায় নিয়ে যায়।’

কয়েকজন অসাধু কসাইয়ের কারণে মাংস বাজারের বদনাম হচ্ছে। এরাই বারবার অসুস্থ গরু জবাই করে মানুষকে খাওয়াচ্ছেন। এদের পৌরসভা থেকে লাইসেন্সও দেওয়া হয়নি। এমন ক্ষোভ প্রকাশ করে মাংস বাজারে গরুর জবাইয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত মাওলানা আবু তাহের বলেন, ‘পশুডাক্তার গরুটিকে রোগাক্রান্ত চিহ্নিত করেন। তাই আমি গরুটি জবাই করিনি।’

চরফ্যাশন উপ-সহকারী প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আবু সাইদ বলেন, ‘নোমান কসাইয়ের গরুটি রোগাক্রান্ত। শোয়া অবস্থা থেকে উঠতে পারছিল না। পরে তারা গরুটিকে পাশের এলাকায় নিয়ে জবাই করে বলে শুনেছি।’

স্থানীরা বলেন, মরা ও রোগাক্রান্ত গরুটি গোপনে জবাই করে ফ্রিজে রেখে পরদিন ভালো গরুর মাংসের সঙ্গে মিশিয়ে বিক্রি করা হতো।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ফেসবুকে, যুবক গ্রেপ্তার

    জাবি ছাত্রকে হাত-পা বেঁধে টাকা লুট, গ্রেপ্তার ১

    বরিশালে ওষুধ ব্যবসায়ীদের কমিটি গঠনে বিরোধে, অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

    যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যা, স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

    শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলায় কারাগারে থাকা শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

    আয়াত হত্যার আসামি আবিরের বাবা-মা-বোন গ্রেপ্তারের পর রিমান্ডে

    স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ফেসবুকে, যুবক গ্রেপ্তার

    ‘নারী নির্যাতন বন্ধে চাই সহমর্মিতা ও আইনের প্রয়োগ’

    ককটেল বিস্ফোরণ: আ. লীগ নেতার মামলায় বিএনপির ৫ জন গ্রেপ্তার

    ফুটবল বিশ্বকাপ

    যে পরিবর্তন নিয়ে টিকে থাকার লড়াইয়ে নামছে আর্জেন্টিনা

    ইসলামে জুতা পরার আদব

    রেলের ইয়ার্ডকে পতিত জমি দেখিয়ে ইজারা