Alexa
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

রাশিয়ার সঙ্গে সার্বিয়ার বিশেষ চুক্তিতে পশ্চিমা বিশ্বের উদ্বেগ

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:৪৫

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সার্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিকোলা সেলাকোভিচ। ছবি: সংগৃহীত  ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধের মধ্যেই রাশিয়ার সঙ্গে একটি বিশেষ চুক্তি করেছে সার্বিয়া। রাশিয়ার সঙ্গে পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ে দীর্ঘমেয়াদি ‘পরামর্শের’ লক্ষ্যে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। সার্বিয়ার এই চুক্তিকে কেন্দ্র করে ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) যোগদানের বিষয়ে বেলগ্রেডের মনোভাব এবং আগ্রহ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে ইইউ এবং যুক্তরাষ্ট্র।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল–জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে সার্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিকোলা সেলাকোভিচের সাম্প্রতিক একটি চুক্তিকে ঘিরে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ও যুক্তরাষ্ট্র। বেলগ্রেড চুক্তি অনুযায়ী সার্বিয়ার ইইউ যোগদান নিয়ে প্রশ্নও তোলা হয়েছে। গত শুক্রবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ সভার ফাঁকে করা চুক্তিটিতে সার্বিয়াকে পররাষ্ট্রনীতির বিষয়ে দীর্ঘমেয়াদি পরামর্শ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে মস্কো।

আল–জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই চাপের মধ্যে রয়েছে রাশিয়া। এই অবস্থায় রাশিয়ার সঙ্গে সার্বিয়ার এ ধরনের চুক্তিকে অত্যন্ত স্পর্শকাতর হিসেবে বিবেচনা করছে পশ্চিমা বিশ্ব। রাশিয়ার সঙ্গে এমন চুক্তির ফলে ইইউ ব্লকে যোগদানের অন্যতম শর্ত ভঙ্গ করেছে সার্বিয়া—এমনটাই দাবি করেছে ব্লকটি।

তবে সার্বিয়া সকল অভিযোগ অস্বীকার করে জানিয়েছে যে, কারিগরি চুক্তির মাধ্যমে শুধুমাত্র পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নের প্রতি জোর দেওয়া হয়েছে, এখানে নিরাপত্তার কোনো বিষয় নেই। এই বিষয়ে সার্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ‘এই চুক্তিটি করা হয়েছে মূলত দ্বিপক্ষীয় এবং বহুপক্ষীয় কার্যক্রম এবং সেই বিষয়ে পরামর্শ লেনদেনকে সামনে রেখে। এখানে নিরাপত্তা সংক্রান্ত কোনো বিষয় নেই।’ 

সার্বিয়া জোর দিয়ে বলার পরও ইইউ বিষয়টি নিয়ে নিশ্চিত নয়। এই বিষয়ে ইউরোপীয় কমিশনের মুখপাত্র পিটার স্ট্যানো গত সোমবারই সার্বিয়াকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, ‘ইউক্রেনে সশস্ত্র সহিংসতা চালিয়ে রাশিয়া জাতিসংঘ সনদ অমান্য করেছে। এই অবস্থায় রাশিয়া কোনোভাবেই এ ধরেন চুক্তি করতে পারে না।’ 

পিটার স্ট্যানো আরও বলেছেন, ‘এই বিষয়টি স্পষ্ট যে—তারা তাদের মধ্যকার বন্ধন শক্ত করতে চাচ্ছে। আর রাশিয়া–সার্বিয়ার মধ্যকার এই সম্পর্ক আমাদের সামনে গুরুতর প্রশ্ন হাজির করেছে। আমরা এই বিষয়টিকে খুবই গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছি এবং এর গতিপ্রকৃতির ওপর নজর রাখছি।’

এদিকে, বেলগ্রেডে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ক্রিস্টোফার হিল বলেছেন, ‘রাশিয়ার সঙ্গে আরও ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ভুল একটি পদক্ষেপ এবং তা সার্বিয়া ইউরোপীয় ইউনিয়নে যোগ দেওয়ার আকাঙ্ক্ষার বিপরীত। যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বাস করে, ইউক্রেনের বিরুদ্ধে আগ্রাসনের যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার সময় কোনো দেশেরই উচিত নয় রাশিয়ার সঙ্গে সহযোগিতা এগিয়ে নেওয়া।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ইউক্রেনকে আরও সাড়ে ২৭ কোটি ডলারের সামরিক সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

    ইউক্রেন রাজনৈতিক সদিচ্ছা দেখালে সংকট আগামীকালই শেষ হবে: ক্রেমলিন 

    বন্দী বিনিময় চুক্তিতে রাশিয়া থেকে মুক্তি পেলেন মার্কিন বাস্কেটবল তারকা

    রাশিয়া ইউক্রেন সংকট

    আমরা পাগল হয়ে যাইনি: পুতিন

    যুদ্ধ দীর্ঘায়িত হতে পারে, আর সৈন্য মোতায়েনের দরকার নেই: পুতিন

    জার্মানিতে অভ্যুত্থান চক্রান্তের অভিযোগে গ্রেপ্তার ২৫

    ফুটবল বিশ্বকাপ

    রোমাঞ্চকর জয়ে সেমিতে মেসির আর্জেন্টিনা

    বিএনপির সমাবেশ: গোলাপবাগ মাঠেই তৈরী হচ্ছে ব্যানার-ফেস্টুন 

    ফুটবল বিশ্বকাপ

    পদত্যাগ করলেন তিতে

    বিএনপির সমাবেশ: মধ্যরাতেও উজ্জীবিত গোলাপবাগ মাঠ, স্লোগানে সরব নেতা-কর্মীরা

    ফুটবল বিশ্বকাপ

    টাইব্রেকারে ব্রাজিলকে কাঁদিয়ে সেমিফাইনালে ক্রোয়েশিয়া

    কারাগারে কোয়ারেন্টিনে মির্জা ফখরুল ও আব্বাস