Alexa
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

পাহাড়তলীতে প্রধান আসামি মামুন গ্রেপ্তার, চাঁদপুর থেকে দুজন

ভাই হত্যার প্রতিশোধ নিতে আকাশকে খুন

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:০১

মীরসরাইয়ে যুবলীগকর্মী আকাশ হত্যায় গ্রেপ্তার তিনজন। ছবি: আজকের পত্রিকা চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ভাই হত্যার প্রতিশোধ নিতে জামিনে বেরিয়ে হিঙ্গুলী ইউনিয়ন যুবলীগের কর্মী শহীদুল ইসলাম আকাশকে কুপিয়ে হত্যা করেন প্রধান আসামি হুমায়ুন কবির মামুন (২৫)। গ্রেপ্তারের পর চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকাণ্ড নিয়ে তিনি এমন তথ্য দিয়েছেন বলে র‍্যাব জানিয়েছে।

গত শনিবার বিকেল ৫টার দিকে প্রধান আসামি মামুনকে চট্টগ্রাম শহরের পাহাড়তলী থেকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। তিনি হিঙ্গুলী ইউনিয়নের ইসলামপুর এলাকার বাসিন্দা। ওই দিন আরও আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁরা হলেন মামলার ৩ নম্বর আসামি ও পশ্চিম পরাগপুর এলাকার বাসিন্দা মুকেশ চন্দ্র দাশ প্রকাশ ওরফে সৌরভ দাশ (২৪) এবং ইসলামপুরের বাসিন্দা মো. ইকবাল (২২)। সৌরভ ও ইকবালকে চাঁদপুর জেলার পুরান বাজার থেকে শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব-৭-এর জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার বলেন, আকাশ হত্যা মামলার প্রধান আসামি হুমায়ুন কবির মামুন জানান, ২০১৯ সালের ৯ সেপ্টেম্বর তাঁর ছোট ভাই আফজাল হোসেনকে ব্যবসায়িক দ্বন্দ্বে কুপিয়ে হত্যা করেন আকাশ। তখন তাঁর ভাই ইকবাল ও তিনি নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের মামলায় জেলহাজতে ছিলেন।

নুরুল আবছার বলেন, মামুন আরও জানান, তিনি পরে ১৩ সেপ্টেম্বর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। মুক্তি পেয়ে মামুন তাঁর ভাইয়ের হত্যার প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য তাঁর সহযোগী মোতালেব, রাজু, নেজাম, হামিদ, মুকেশসহ অন্যদের হত্যার পরিকল্পনা করেন। সে অনুযায়ী ১৯ সেপ্টেম্বর জামিনে মুক্তি পাওয়ার পাঁচ দিনের মাথায় যুবলীগের কর্মী শহীদুল ইসলাম আকাশকে নিজ দোকানে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেন তিনি।

র‌্যাবের এ কর্মকর্তা বলেন, ঘটনার পর আসামিরা গ্রেপ্তার এড়াতে আত্মগোপনে চলে যান। তাঁদের সীতাকুণ্ড থানায় হস্তান্তর করা হয়। ১৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে হিঙ্গুলী ইউনিয়নের চিনকিরহাট এলাকায় যুবলীগের কর্মী শহীদুল ইসলাম আকাশকে হুমায়ুন কবির মামুন এবং তাঁর সহযোগীরা অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মামুন দোকানে এসে আকাশকে গালাগাল করেন। আকাশ প্রতিবাদ করলে মামুন তাঁকে দোকানের বাইরে নিয়ে কিরিচ দিয়ে মাথার পেছনে জখম করেন। একপর্যায়ে তাঁকে এলোপাতাড়ি কুপয়ে জখম করে তাঁরা পালিয়ে যান। পরে আকাশকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে তাঁর মৃত্যু।

এ ঘটনায় নিহত আকাশের বোন নাজমা আক্তার বাদী হয়ে ২১ সেপ্টেম্বর জোরারগঞ্জ থানায় ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ৭-৮ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    অবৈধ কয়লা কারখানা গিলছে বনের কাঠ

    ময়মনসিংহে গ্রেপ্তার ৭৫, বাড়িতে থাকছেন না বিএনপি নেতারা

    অবৈধ পথে ভারত যাচ্ছে তাজা মাছ, কমছে রপ্তানি

    চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে ২০২৪ সালের আগে ট্রেন চলাচল সম্ভব কি

    সড়কের অর্ধেক নদীতে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল

    পেয়ারার লোভ দেখিয়ে শিশুধর্ষণ, যুবক গ্রেপ্তার

    থেমে যাওয়ার শঙ্কায় সেলিন ডিয়ন

    আলো ছড়াচ্ছে পদ্মা গ্রন্থাগার

    বাঙালি মেয়ে ঈশিতার বলিউড সফর

    আষাঢ়ে নয়

    আদর্শ বীরাপ্পন, নায়িকা সোনিয়া

    রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পুলিশের সঙ্গে ‘সন্ত্রাসীদের গোলাগুলি’, নিহত ২

    ফুটবল বিশ্বকাপ

    রোমাঞ্চকর জয়ে সেমিতে মেসির আর্জেন্টিনা