Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

প্যাসিফিক মোটরস ক্লায়েন্টদের জন্য অটো লোন চালু করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:২০

প্যাসিফিক মোটরস লিমিটেডের (নিসান বাংলাদেশ) সঙ্গে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের চুক্তি স্বাক্ষর। ছবি: সংগৃহীত  স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ সম্প্রতি প্যাসিফিক মোটরস লিমিটেডের (নিসান বাংলাদেশ) সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। এই চুক্তির ফলে প্যাসিফিক মোটরস লিমিটেডের ক্লায়েন্টরা ৭ দশমিক ৯৯ শতাংশ সুদের হারে অগ্রাধিকারমূলক ভিত্তিতে ৪০ লাখ টাকা পর্যন্ত এক্সক্লুসিভ অটো লোন গ্রহণ করতে পারবেন।

প্যাসিফিক মোটরস লিমিটেডের (নিসান বাংলাদেশ) প্রধান কার্যালয়ে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ এবং প্যাসিফিক মোটরস লিমিটেডের (নিসান বাংলাদেশ) মধ্যে সমঝোতা স্মারকটি স্বাক্ষরিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের হেড, মর্টগেজ অ্যান্ড অটো লোন মো. আনোয়ার তৌহিদ, ইসলামিক ব্যাংকিংয়ের পরিচালক আসিফ রহমান এবং প্যাসিফিক মোটরস লিমিটেডের (নিসান বাংলাদেশ) ডেপুটি ডিরেক্টর ফারজানা খান উপস্থিত ছিলেন।

অটো লোন পেতে বা ব্যাংকের অটো ফাইনান্সিং সুবিধাগুলো সম্পর্কে আরও জানতে আগ্রহী গ্রাহকেরা তাদের নিকটতম স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড শাখায় যোগাযোগ করতে পারেন অথবা যেকোনো সময় ১৬২২৩ নম্বরে ক্লায়েন্ট কেয়ার সেন্টারে কল করতে পারেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    হৃদরোগ প্রতিরোধে চিকিৎসকদের উদ্বুদ্ধ হওয়ার উপর জোর

    প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটিতে ‘লার্ন ফ্রম সিইও’

    নগদকে তৃতীয় সর্বোচ্চ ভ্যাটদাতার পুরস্কার দিচ্ছে এনবিআর

    আরলা ফুডসের কারখানা ঘুরে দেখলেন ব্র্যাক ডেইরির কর্মীরা

    রাজনৈতিক বিবেচনায় শীর্ষ পদে বদল ব্যাংকের অর্থ লোপাটে সহায়ক হয়: টিআইবি

    কেরানিগঞ্জ খোলামোড়ায় চালু হলো ‘স্বপ্নের’ নতুন আউটলেট 

    সমাবেশস্থল নিয়ে আলোচনা করতে ডিএমপি সদর দপ্তরে বিএনপি নেতারা

    দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক, ইউপি সদস্য আটক

    যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগের পেছনে আমাদের এক সাংবাদিক: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    রাজনৈতিক সহিংসতায় মার্কিন রাষ্ট্রদূতের উদ্বেগ

    লাবুশেন-হেডের জোড়া সেঞ্চুরিতে প্রথম দিন অস্ট্রেলিয়ার

    ভাইয়ের শোকে কান্না করতেও ভয় পাচ্ছি: মকবুলের বড় ভাই