Alexa
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

মাঠে অগ্রগতি ইউক্রেনের, বাড়ছে মিত্রদের সহায়তা

আপডেট : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:৫২

রয়টার্স ফাইল ছবি ইউক্রেনের উত্তর-পূর্ব দিকের খারকিভ অঞ্চলের কিছু শহর ও গ্রাম দখলে নিয়েছে ইউক্রেনের সেনারা। গত বুধবার রাতে নিয়মিত ভিডিও বার্তায় দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এমন খবর দিয়েছেন। অন্যদিকে জাপোরিঝজিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র এলাকায় গতকালও হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এ পরিস্থিতিতে গতকাল বৃহস্পতিবার ইউক্রেন ও তার প্রতিবেশীদের জন্য আরও সামরিক ঋণ ও সহায়তার ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

আল জাজিরাসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, বুধবার রাতে জেলেনস্কি ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ‘চলতি সপ্তাহে খারকিভ নিয়ে সুসংবাদ আছে। আমাদের প্রতিরোধযোদ্ধাদের সাম্প্রতিক সাফল্যগাথার খবর আপনারা হয়তো ইতিমধ্যে শুনেছেন। তাঁদের নিয়ে আমরা সবাই গর্ব করতে পারি।’

ওয়াশিংটনভিত্তিক ইনস্টিটিউট অব দ্য স্টাডি অব ওয়ার (আইএসডব্লিউ) গত বুধবার বলেছেন, ইউক্রেনের সেনারা রুশ ফ্রন্ট লাইনে সম্ভবত পেছন থেকে অতর্কিতে হামলা চালিয়েছে। এতে করে রুশ সেনারা প্রায় ২০ কিলোমিটার বা ৪০০ বর্গকিলোমিটার এলাকা থেকে সরে গেছেন।

অধিকৃত অঞ্চল হারানো নিয়ে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করেনি রাশিয়া। তবে খারকিভের বালাক্লেইয়া শহরে রুশপন্থী কর্মকর্তা রডিয়ন মিরোশনিক জানিয়েছেন, আলোচিত বালাক্লেইয়া শহর রুশদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে বালাক্লেইয়ারের উত্তর দিকে যুদ্ধ চলছে।

জাপোরিঝজিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের আশপাশের এলাকায় গত বুধবার রাতেও রাশিয়া হামলা চালিয়েছে। সেখানে রুশ হামলা বুধবার রাতে আগের তুলনায় চারগুণ বেড়েছে বলে দাবি করেছেন জাপোরিঝজিয়া ইউক্রেনের গভর্নর ভ্যালেন্টিন রেজনিচেঙ্কো।

যুদ্ধের শুরুর দিকে বিদ্যুৎকেন্দ্রটি দখলে নেয় রাশিয়া। সম্প্রতি সেখানে হামলার পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছে রাশিয়া ও ইউক্রেন। কেন্দ্রটি পরিদর্শন করে গত মঙ্গলবার এক প্রতিবেদন দিয়েছে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা। সংস্থাটি সেখানে একটি নিরাপদ, নিরস্ত্র অঞ্চল প্রতিষ্ঠার সুপারিশ করেছে।

এদিকে, ইউক্রেন ও পোল্যান্ড সীমান্তের অদূরে বেলারুশের সামরিক মহড়া নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে উভয় দেশ। গতকাল থেকে শুরু হওয়া মহড়াটি ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

এই পর্যায়ে ইউক্রেন যুদ্ধের সহায়তাসহ সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে গতকাল জার্মানির রামস্টাইনে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটিতে আলোচনায় বসেন ন্যাটোসহ ৪০টির বেশি দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা। এতে ইউক্রেনের জন্য সাড়ে ৬৭ কোটি ডলার সামরিক সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন। এ নিয়ে যুদ্ধ শুরুর পর ইউক্রেনকে মোট ১ হাজার ৩৫০ কোটি ডলারের সামরিক সহায়তা দিল যুক্তরাষ্ট্র। গত বুধবার ইউক্রেন ও তার প্রতিবেশী ১৮টি দেশের জন্য আলাদা করে আরও ২০০ কোটি সামরিক ঋণ ও অনুদান বরাদ্দ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গত জুনে এই খাতে ৪০০ কোটি ডলার বরাদ্দ দিয়েছিল দেশটি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ‘গডফাদারের সৌদি ভার্সন’: যেভাবে ক্ষমতা দখল করেন যুবরাজ এমবিএস

    যে কারণে মেসির চিকিৎসকও চান না আর্জেন্টিনা জিতুক

    ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে ফুলে ফেঁপে উঠছে পূর্ব ইউরোপের সমরাস্ত্র শিল্প

    সি-বাইডেন সৌহার্দ্যে কার কী লাভ

    সিনেটের নিয়ন্ত্রণ ডেমোক্র্যাটরা না পেলে যা যা হতে পারত

    ভূরাজনীতি বাদ দিয়ে জি-২০ সম্মেলন, সফলতা নিয়ে সংশয় 

    টিলা কাটার দায়ে ৫ জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড

    দায়িত্ব নিলেন বিশ্বনাথ মেয়র ও কাউন্সিলররা

    আমার নিয়োগপত্রে কোনো ঘষামাজা ছিল না: ওয়াসার এমডি তাকসিম

    গেট আছে, ঘর আছে, নেই শুধু গেটম্যান ১০ বছরেও

    ফেনী মুক্ত দিবস পালিত

    ‘গ্যাস ট্যাবলেট’ খেয়ে গৃহবধূর মৃত্যু