মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

সেকশন

 

পুরোনো তার-খুঁটি দিয়ে খরচ ৩০ লাখ টাকা

আপডেট : ২২ আগস্ট ২০২২, ১৩:২৪

পুরোনো তার-খুঁটি। ছবি: আজকের পত্রিকা নীলফামারীর ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের বৈদ্যুতিক সঞ্চালন লাইন পুনর্নির্মাণ কাজে পুরোনো বৈদ্যুতিক তার ও খুঁটি প্রতিস্থাপনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব বৈদ্যুতিক খুঁটি প্রতিস্থাপনের ব্যয় দেখানো হয়েছে মোট ২৯ লাখ ৯৫ হাজার টাকা। যা বাজার মূল্যে আসমান-জমিন ফারাক। বিষয়টি স্বীকার করে ডালিয়া পাউবোর যান্ত্রিক বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মামুনুর রশীদ মামুন আজকের পত্রিকাকে বলেন, জরুরি কাজ হওয়ায় ঠিকাদার কিছু পুরোনো বৈদ্যুতিক খুঁটি ও তার দিয়ে লাইনটি পুনর্নির্মাণ করেন। তবে কাজের বিল কেন প্রায় ৩০ লাখ সুপারিশ করা হয়েছে এটি আমি জানি না।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বৈদ্যুতিক লাইনটি মাত্র দুদিনে পুনর্নির্মাণ করা হয়েছে। এতে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকাও খরচ হয়নি। পুরোনো খুঁটি ও তার ঘষা মাজা করে জোড়াতালি দিয়ে লাইনটি পুনর্নির্মাণ করে সরকারের লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার পাঁয়তারা চলছে।

জানা গেছে, ২০২১ সালের ১৯ অক্টোবর রাতে পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বেড়ে তিস্তা ব্যারেজের রক্ষাকবচ হিসেবে পরিচিত ফ্লাড বাইপাসটি ভেঙে পড়ে। ফলে বন্যার প্রবল স্রোতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ১১ কেভি এইচটি বৈদ্যুতিক লাইনটির ১১টি খুঁটি ভেঙে যায়। এর মধ্যে কয়েকটি খুঁটি ভেসে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হয় সঞ্চালন লাইনের তার। ফলে ওই সময় লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সাধুর বাজার থেকে পাউবো দোয়ানীর কলোনি, তিস্তা বিজিবি ক্যাম্প, পুলিশ ক্যাম্প, আনসার ক্যাম্পের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এতে তিস্তা ব্যারেজের বিভিন্ন কাজের জন্য ব্যবহৃত প্রধান ওয়ার্কশপসহ বিভিন্ন দপ্তরের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। এ অবস্থায় পাউবোর যান্ত্রিক বিভাগ কোনো দরপত্র আহ্বান ছাড়াই মনঃপূত ঠিকাদারের মাধ্যমে জরুরি ভিত্তিতে ক্ষতিগ্রস্ত ১১ কেভি এইচটি বৈদ্যুতিক লাইনটির পুনর্নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণের কাজ হাতে নেয়।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, ক্ষতিগ্রস্ত বৈদ্যুতিক লাইনটির পুনর্নির্মাণ করতে নতুন করে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে ১১টি খুঁটি। প্রতিটি খুঁটি পুরোনো, ঘষে মেজে রং করা হয়েছে। বেশির ভাগ খুঁটি মরিচা ধরা ও ট্যাপ খাওয়া। ওই কাজের ঠিকাদার রবিউল ইসলাম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘লাইনটি পুনর্নির্মাণ ব্যয় ৩০ লাখ টাকা ধরা হয়েছে। তবে আজও সেই টাকা পরিশোধ করা হয়নি।’

ডালিয়া পাউবোর যান্ত্রিক বিভাগের প্রকৌশলী রুবাইয়াত ইমতিয়াজ বলেন, বিডিআর ক্যাম্পের অনুরোধে বৈদ্যুতিক লাইনটি জরুরি ভিত্তিতে পুনর্নির্মাণ করা হয়েছে। সম্ভাব্য ব্যয় কেন ৩০ লাখ টাকা সুপারিশ করেছেন জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     

    হাসপাতালে এক আসামিকে পিটিয়ে মারল আরেকজন

    চালের বস্তায় জাত ও দাম লিখতে গড়িমসি

    ঈদে মুক্তি পাওয়া সিনেমার হালচাল

    কৃষিতে সফল নুরুন্নাহার

    উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: বিএনপি-জামায়াত নেতারাও নামলেন ভোটের মাঠে

    পুতিনের পঞ্চম তারপর...

    লন্ডনের স্কুলে নামাজে নিষেধাজ্ঞার চ্যালেঞ্জে হেরে গেলেন মুসলিম শিক্ষার্থী

    খতনা করাতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু: জামিন পেলেন হাসপাতাল মালিক

    থানায় হামলা: স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাসহ ৯ জন ৬ দিনের রিমান্ডে

    চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় বিদেশি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

    পেনাল্টি নিয়ে ক্যাঁচাল করায় শিষ্যদের সতর্ক করলেন চেলসি কোচ 

    ছাত্রলীগ নেতার আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল