Alexa
রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

খোকসায় আ. লীগের দু-পক্ষের গোলাগুলিতে আহত ২, সাবেক চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

আপডেট : ১৮ আগস্ট ২০২২, ১৭:৩৬

আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত হায়দার আলী ও আব্দুর রশিদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ছবি: আজকের পত্রিকা কুষ্টিয়ার খোকসাতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু-পক্ষের ধাওয়া, পাল্টা ধাওয়া, গোলাগুলি ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার ওসমানপুর ইউনিয়নের খানপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় উভয় পক্ষের দুজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বেশ কিছু ঘরবাড়িতে ভাঙচুর করা হয়েছে। তবে কে কাকে আগে আক্রমণ করেছে? তা নিয়ে দু-পক্ষের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ তুলেছেন। 

আহতরা হলেন, ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য (মেম্বর) হায়াত আলী (৫৫) ও ইউনিয়নের দেবীনগর গ্রামের নাদের শেখের ছেলে আব্দুর রশিদ (৪৫) শেখ (২)। তাঁরা কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

এ ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার সকালে থানায় একপক্ষ মামলা করেছেন। মামলায় ওসমানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এলাকায় স্থানীয় সংসদ সদস্য (এমপি) ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ গ্রুপের ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান গ্রুপের সমর্থকদের মাঝে বিরোধ চলে আসছে। এমপির গ্রুপের নেতৃত্ব দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাবুল আক্তার ও স্থানীয় মেম্বর হায়দার আলী। আর খান গ্রুপের নেতৃত্ব দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম তারেক ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান। 

বিরোধের জেরে গতকাল রাত ১১টার দিকে ইউনিয়নের খানপুর এলাকায় দু-পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়। চলে ধাওয়া, পাল্টা ধাওয়া, ভাঙচুর ও গোলাগুলি। এ সময় এমপি গ্রুপের সমর্থক হায়দার আলী ও খান গ্রুপের সমর্থক আব্দুর রশিদ গুলিবিদ্ধ হন। উভয় পক্ষের বেশ কিছু ঘরবাড়িতে ভাঙচুর করা হয়। 

তবে এমপি গ্রুপের নেতা–কর্মীরা বলছেন, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্টে দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে তাঁদের জানিপুর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে বিক্ষোভ সমাবেশ ছিল। প্রথমে তাঁদের সমর্থকদের সমাবেশে আসতে বাধা প্রদান করেন প্রতিপক্ষরা। পরে সমাবেশ শেষে বাড়ি ফেরার পথে তাঁদের হামলা, গুলিবর্ষণ ও ঘরবাড়িতে ভাঙচুর করা হয়। 

আর খান গ্রুপের নেতা-কর্মীরা বলছেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষরা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা ও গুলিবর্ষণ চালায়। এতে চেয়ারম্যানের বাড়ির কেয়ারটেকার গুলিবিদ্ধ হন। ভাঙচুর করা হয় বাড়িতে। 

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাবুল আক্তার বলেন, ‘সমাবেশ শেষে আমাদের সমর্থকেরা রাতে বাড়ি ফিরছিল। এ সময় সাবেক চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান ও তাঁর লোকজন হামলা চালায় ও গুলি করে। আমাদের একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ছাড়াও কয়েকটি বাড়িতে ভাঙচুর করা হয়েছে। এ নিয়ে থানায় মামলা করেছি।’ 

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম তারেক বলেন, ‘ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাড়িতে অতর্কিত হামলা ও গুলি চালায় প্রতিপক্ষরা। এতে তাঁর বাড়ির কেয়ারটেকার গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।’ 

খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আশিকুর রহমান বলেন, আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও শটগানের গুলি বিনিময় হয়েছে। উভয় পক্ষের দুজন আহত হয়েছেন। এমপি গ্রুপ মামলা করেছেন। মামলায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    খুলনায় নিখোঁজ রহিমা বেগম ফরিদপুর থেকে জীবিত উদ্ধার

    অধিনায়ক সাবিনা খাতুন ও তাঁর মাকে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের সংবর্ধনা 

    জামালপুরে রিকশাচালককে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন, গ্রেপ্তার ১

    নিরাপত্তা কর্মী সেজে মাদকের কারবার, অবশেষে ধরা 

    ছুরিকাঘাতে চাঁদপুর জেলা আ. লীগ নেতাকে হত্যা

    মামলা করে ভেজালে পড়তে চাই না: নিহত যুবদলকর্মী শাওনের ভাই

    বঙ্গবন্ধু সেতুতে গাছবোঝাই ট্রাক উল্টে রেললাইন ব্লক, ট্রেন চলাচল বন্ধ

    মধ্যরাতে উত্তপ্ত ইডেন, গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেওয়ায় হল ছাড়া ছাত্রলীগ নেত্রী

    রাজধানীতে গৃহকর্মীর রহস্যজনক মৃত্যু, গৃহকর্তার দাবি আত্মহত্যা

    ফুটবলারদের জন্য বিশেষ অ্যাপ আনছে ফিফা 

    শ্রীপুরে যুবককে তুলে নিয়ে রাতভর নির্যাতন, পরে মৃত্যু

    বোয়ালমারীতে এক পরিচিতের বাসায় আত্মগোপনে ছিলেন রহিমা বেগম: দৌলতপুরের ওসি