Alexa
রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

ক্ষণে ক্ষণে হাউমাউ করে কেঁদে উঠছেন বেঁচে যাওয়া নবদম্পতি

আপডেট : ১৫ আগস্ট ২০২২, ২২:১১

হাসপাতালে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে আছেন হৃদয় ও রিয়া মনি। ছবি: আজকের পত্রিকা রাজধানীর উত্তরায় প্রাইভেটকারে বিআরটির গার্ডার চাপায় বেঁচে যাওয়া নবদম্পতি প্রায় অক্ষতই আছেন। তাঁদের উত্তরারই একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জরুরি বিভাগে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিৎসকেরা।

আজ সোমবার রাত ৯টার দিকে হাসপাতালটিতে গিয়ে দেখা যায়, নতুন বিয়ে করা হৃদয় এবং নববধূ রিয়া মনিকে ঘিরে রয়েছেন স্বজনেরা। তাঁদের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন দেখা যাচ্ছে না।

জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ড. এন আলম মাসুদ জানান, শুধু হৃদয়ের ডান পায়ে সামান্য আঘাত রয়েছে। এছাড়া দুজনেই অক্ষত বলা যায়। তাঁদের শারীরিক কোনো সমস্যা নেই। তবে মানসিক ট্রমা কাটিয়ে উঠতে সময় লাগবে।

চিকিৎসক মাসুদ বলেন, ‘প্রথমে ভেবেছিলাম তাঁদের রিলিজ দিব। কিন্তু পরে রোডস অ্যান্ড হাইওয়ের সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নুরী এবং ডিএমপির উত্তরা বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ মোরশেদ আলম তাঁদের দেখতে এসেছিলেন। তাঁরা ট্রমা কাটিয়ে ওঠার জন্য আরো কিছু সময় হাসপাতালে রাখতে বলেছেন। দুজনকে এখন পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।’

জরুরি বিভাগের পর্যবেক্ষণ কক্ষে গিয়ে দেখা যায়, হৃদয় ও রিয়া মনিকে ঘিরে রয়েছেন স্বজনেরা। তাঁরা বেশিরভাগ সময়ই অন্যমনস্ক থাকছেন। ক্ষণে ক্ষণে হাউমাউ করে কেঁদে উঠছেন। হৃদয়ের মা, ভাই ও স্বজনেরা মিলে তাঁদের সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

রাজধানীর উত্তরায় প্রাইভেটকারে বিআরটির গার্ডার চাপায় বেঁচে যাওয়া নবদম্পতি হৃদয় ও রিয়া মনি। ছবি: সংগৃহীত আজ বিকেল সোয়া ৪টার দিকে রাজধানীর উত্তরায় জসিমউদ্দিন মোড় সংলগ্ন সড়কে বাস র‍্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) স্থাপনা প্রকল্পের একটি গার্ডার প্রাইভেটকারের ওপর পড়ে। এতে পাঁচ আরোহী নিহত হন। আহত হন আরও দুই জন আরোহী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রকল্পের কাজ চলাকালীন একটি গার্ডার ক্রেন দিয়ে তোলা হচ্ছিল। হঠাৎ ক্রেনটি গার্ডারসহ কাত হয়ে যায় এবং নিচ দিয়ে যাওয়া একটি প্রাইভেটকারের ওপর গার্ডারটি পড়ে। এতে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। 

মেট্রোরেল প্রকল্পের একটি শক্তিশালী ক্রেন এনে গার্ডারটি সরানো হচ্ছে। ছবি: আজকের পত্রিকা প্রাইভেটকারে আরোহী ছিলেন সাত জন। ছিলেন নববিবাহিত হৃদয়ের বাবা রুবেল (৬০), হৃদয়ের শাশুড়ি ফাহিমা (৪০), কনে রিয়া মনির খালা ঝরনা (২৮), ঝরনার দুই সন্তান জান্নাত (৬) ও জাকারিয়া (২)। ঘটনাস্থলেই তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। শুধু বেঁচে আছেন হৃদয় ও রিয়া। তাঁদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। 

ঘটনার পর গার্ডার সরিয়ে প্রাইভেটকার থেকে মরদেহ উদ্ধারের চেষ্টা করেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। লিভার দিয়ে উঁচু করার চেষ্টা করেন তাঁরা। কিন্তু তাতে কোনো কাজ না হওয়ায় সাড়ে ৬টার দিকে আনা হয় একটি এক্সক্যাভেটর। সেটি দিয়ে কাত হয়ে থাকার ক্রেনটি সোজা করে সেটি দিয়েই প্রাইভেটকারের ওপর থেকে গার্ডার সরানো হয়।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত স্বজনেরা জানান, গত শুক্রবার হৃদয় ও রিয়ার বিয়ে হয়। তাঁরা আজ ছেলের বাড়ি থেকে মেয়ের বাড়ি যাচ্ছিলেন। হৃদয়ের পরিবার দক্ষিণখান থানার কাওলা আফিল মেম্বারের বাড়ির ভাড়াটিয়া। আর কনে রিয়া মনির বাড়ি আশুলিয়ার খেজুরবাগানে আসরাফউদ্দিন চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকায়।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    হাসপাতালে চিকিৎসকের অপেক্ষায় থেকে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ, চিকিৎসকসহ আটক ২ 

    স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওয়ার্ড বয়ের বিরুদ্ধে রোগীকে ধর্ষণের অভিযোগ

    সেনাবাহিনীতে যুক্ত হলো নতুন সামরিক বিমান

    ইডেন কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, সভাপতি রিভাসহ আহত ১০

    জাপানি নাগরিক হত্যা: ইছাহাকের খালাস স্থগিত

    রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু

    হাসপাতালে চিকিৎসকের অপেক্ষায় থেকে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ, চিকিৎসকসহ আটক ২ 

    মেয়ের জিম্মায় বাড়ি ফিরলেন রহিমা বেগম

    টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, নেই তাসকিন

    স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওয়ার্ড বয়ের বিরুদ্ধে রোগীকে ধর্ষণের অভিযোগ

    ‘উপাত্ত সুরক্ষা আইন’ ঢেলে সাজানোর দাবি টিআইবির

    মরীচিকা পড়া সেতুর কাজ পুনরায় শুরু, অনিয়ম নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ