Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২

সেকশন

epaper
 

সিলেটে হাবিব ব্যাংকের ধৃষ্টতা, ঝাড়ুতে বেঁধে জাতীয় পতাকা উত্তোলন!

আপডেট : ১৫ আগস্ট ২০২২, ১৯:৪৬

সিলেটে হাবিব ব্যাংকের ধৃষ্টতা, ঝাড়ুতে বেঁধে জাতীয় পতাকা উত্তোলন! জাতীয় শোক দিবসে পাকিস্তানি মালিকানাধীন হাবিব ব্যাংক লিমিটেড (এইচবিএল) সিলেট শাখায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনে চরম ধৃষ্টতা দেখিয়েছে। আজ সোমবার দুপুরে ঝাড়ুতে বেঁধে লাল-সবুজের দেশের জাতীয় পতাকাটি উত্তোলন করে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এতে সাধারণ মানুষের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম চৌধুরী নিজের ফেসবুকে লেখেন, ‘এত বড় দুঃসাহস! তাও সিলেটের মাটিতে। জাতীয় শোক দিবসে পাকিস্তানি “হাবিব ব্যাংক লিমিটেড” আমাদের অস্তিত্বের স্মারক, ৩০ লাখ শহিদের রক্ত আর দুই লাখ মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত জাতীয় পতাকা ঝাড়ুতে বেঁধে প্রদর্শন করে! সিলেট নগরীর পূর্ব জিন্দাবাজার এলাকায় হাবিব ব্যাংকের সামনে থেকে এই ছবিটি তোলা। মুখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বলে ফেনা তুলে লাভ নেই। এদের অবশ্যই শাস্তির আওতায় আনতে হবে। তবে কেবলমাত্র “সরি”তে যেন শাস্তি মওকুফ না হয়ে যায়।’

সোমবার দুপুরে নগরের পূর্ব জিন্দাবাজার এলাকায় হাবিব ব্যাংকে গিয়ে দেখা যায়, ব্যাংকের সামনে ঝাঁড়ুর মধ্যে একটি জাতীয় পতাকা বেঁধে রাখা হয়েছে। ব্যাংকের নিরাপত্তারক্ষীরা জানান, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে পতাকাটি উত্তোলন করা হয়েছে। ব্যাংকের এটিএম বুথের নিরাপত্তায় নিয়োজিত প্রহরী কমলেশ দে জানান, ব্যাংকের অপর নিরাপত্তা কর্মী আফজল মিয়া এই পতাকাটি বেঁধে রেখেছেন।

মোবাইলের মাধ্যমে জানতে চাইলে আফজল মিয়া আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এটা অনিচ্ছাকৃত হয়েছে। বাঁশ না পেয়ে না বুঝে ঝাড়ুর মধ্যে পতাকাটি টানিয়েছি।’

ব্যাংক কর্তৃপক্ষ পতাকা টাঙানোর জন্য বাঁশ দিয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে আফজাল বলেন, ‘না। এ ব্যাপার আমার বলার কিছু নেই। আমাকে মাফ করে দেন। আমি গরিব মানুষ, কিছু বললে চাকরি চলে যাবে।’ পরে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে কমলেশ দে পতাকাটি ঝাড়ু থেকে খুলে নেন।

এ বিষয়ে হাবিব ব্যাংক সিলেট শাখার ব্যবস্থাপক মঈনুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি আজকের পত্রিকাকে কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। তিনি একেকবার একেক কথা বলেন। মঈনুল ইসলাম প্রথমে বলেন—তিনি কিছুক্ষণ আগে জেনেছেন। পরে বলেন—‘আমি ছুটিতে ছিলাম। এ ব্যাপারে আমি জানি না।’ শুধু তাই নয়, ‘পতাকা টাঙানোর জন্য বাঁশের ব্যবস্থা মালিকপক্ষ করবে না?’ বলে প্রশ্নও রাখেন। আবার বলেন, ‘বিষয়টি আমাদের হেড অফিস অবগত। সেখান থেকে একটা ব্যাখ্যা দেওয়া হবে।’

তবে ওই ব্রাঞ্চের ক্যাশ ইনচার্জ বিদ্যুৎ কুমার দে সাংবাদিকদের বলেন, ‘এটা মারাত্মক ভুল হয়েছে। নিরাপত্তাকর্মীরা না বুঝে জাতীয় পতাকার অবমাননা করেছে। এ জন্য তিনি নিজেও দুঃখিত। নিরাপত্তারক্ষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

জাতীয় পতাকা অবমাননার বিষয়ে সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘ওখানে ম্যাজিস্ট্রেট পাঠিয়েছি। যারা এটি করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আর ওই ব্রাঞ্চের ম্যানেজারকেও ডাকব।’

যদিও জাতীয় শোক দিবসে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে উত্তোলনের কথা। এ নিয়ে আগস্ট মাসের শুরু থেকে সরকারিভাবে প্রচার-প্রচারণাও চালানো হয়েছে। শোক দিবসে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের নিয়ম নিয়ে গণমাধ্যমেও বিভিন্ন সময় সংবাদ প্রচারিত হয়। কিন্তু জাতীয় শোক দিবসে পাকিস্তানি মালিকানাধীন হাবিব ব্যাংক লিমিটেড (এইচবিএল) সিলেট শাখার এমন ধৃষ্টতায় মানুষের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    বিচ্ছেদের পর স্ত্রীকে হত্যা, সাবেক স্বামী গ্রেপ্তার

    কবিরহাটে বিয়ে বাড়িতে কিশোরীকে ধর্ষণ

    মোবাইল হারানোকে কেন্দ্র করে পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও আনসারদের সংঘর্ষ, আহত ৭

    প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ‘আপত্তিকর পোস্ট’ করায় রাজবাড়ীতে এক নারী গ্রেপ্তার

    ধর্ষণ ও নগ্ন ভিডিও ধারণ করার অভিযোগে ভুয়া এসআই গ্রেপ্তার

    ‘গ্যাঞ্জাম’ সৃষ্টি করে ছিনতাই, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রসহ গ্রেপ্তার ২ 

    অশান্ত সাগরে টহল কমের সুযোগ নিচ্ছে পাচারকারীরা

    মাইক্রোর ওপর উঠে গেল বাস, নিহত ৬

    ইউএস-বাংলার আকর্ষণীয় অফার ‘হোটেল ফ্রি’

    পটিয়ায় পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের গুলিতে এক কৃষক নিহত

    ১২ হাজার কারখানায় উৎপাদন ব্যাহত

    সবাইকে ‘স্মারক উপহার’ দেবে সিলেট বিভাগীয় ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন