Alexa
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২

সেকশন

epaper
 

এমপির সামনেই ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, পুলিশের লাঠিপেটা

আপডেট : ১৫ আগস্ট ২০২২, ১৫:৫৯

বরগুনায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে পুলিশের লাঠিপেটা। ছবি: আজকের পত্রিকা বরগুনায় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশের লাঠিপেটায় অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন। এ সময় বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু উপস্থিত ছিলেন। পরে সেখানে বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা কয়েকটি মোটরসাইকেল ও পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করেন। 

আজ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে বরগুনা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

বরগুনা সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহম্মেদ জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু স্মৃতি কমপ্লেক্সে’ দুপুর ১২টার দিকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর ফেরার সময় শিল্পকলা একাডেমির সামনে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত গ্রুপের সদস্যরা তাঁদের ওপর হামলা চালান। এ সময় দুই গ্রুপের নেতা-কর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাঠিপেটা করে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরে তাঁরা কয়েকটি মোটরসাইকেলসহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের গাড়ি ভাঙচুর করেন। এরপর শিল্পকলা ও লঞ্চঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সংঘর্ষের ঘটনায় এক ছাত্রলীগ কর্মীকে লাঠিপেটা করছেন পুলিশ এক সদস্য। ছবি: আজকের পত্রিকা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল কবির রেজা জানান, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শিল্পকলায় প্রবেশের সময় শিল্পকলার ছাদ থেকে তাঁদের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। ইট-পাটকেলে পুলিশের গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং পুলিশ ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠিপেটা শুরু করে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বলেন, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছিলাম। এ সময় ছাত্রলীগ পরিচয়ে কিছু সন্ত্রাসী আমাদের ওপর হামলার চেষ্টা করে। পুলিশ তাঁদের লাঠিপেটা করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।’

রেজাউল কবির রেজা আরও বলেন, ‘কমিটি ঘোষণার পর এই সন্ত্রাসীরা একাধিকবার আমাদের ওপর হামলার চেষ্টা করেছে এবং শহরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে।’

এ বিষয়ে বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি। 

দুই গ্রুপের সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে পুলিশের লাঠিপেটা। ছবি: আজকের পত্রিকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম তারেক রহমান বলেন, একটি গ্রুপ শিল্পকলা একাডেমির দ্বিতীয় তলা থেকে পুলিশের গাড়িতে ইট ছুড়ে মারে। এ ঘটনার পর পুলিশ আশপাশের এলাকায় অভিযান চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে।

নদীবন্দর থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধারের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন,  ছাত্রলীগের কোনো নেতা-কর্মী নদীবন্দরে যায়নি। আর উদ্ধার হওয়া দেশীয় অস্ত্র ছাত্রলীগের নয়।

ইটপাটকেল নিক্ষেপ করছেন ছাত্রলীগের কর্মীরা। ছবি: আজকের পত্রিকা  অন্যদিকে সভাপতি পদবঞ্চিত জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সবুজ মোল্লা আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এ ঘটনায় আমি বা আমার সমর্থক কোনো ছাত্রলীগ কর্মী জড়িত নেই। আমি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলাম। হঠাৎ করেই পুলিশ লাঠিপেটা শুরু করে। কী ঘটেছে আমি জানার চেষ্টা করছি।’

প্রসঙ্গত, দীর্ঘ আট বছর পর গত ১৭ জুলাই বরগুনা শহরের সিরাজ উদ্দীন টাউন হল মিলনায়তনে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ২৪ জুলাই রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটির অনুমোদন দেন। এতে জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৩৩ সদস্যের নাম প্রকাশ করা হয়। এর পর থেকেই সদ্যঘোষিত এ কমিটি প্রত্যাখ্যান করে বরগুনা শহরে পদবঞ্চিতরা বেশ কিছুদিন বিক্ষোভ মিছিল ও ভাঙচুর চালায়।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    চকরিয়ায় নিজ বাড়ি থেকে আ. লীগ নেতার অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

    পদোন্নতি পেলেন সাংবাদিক পেটানো বিএমডিএ কর্মচারী

    ইডেন কলেজে সংঘর্ষ, নতুন করে ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা 

    ঘোড়ার গাড়িতে করে এনে সানজিদা-মারিয়াদের সংবর্ধনা দিল পুলিশ

    নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস উল্টে খাদে, ২ নারী নিহত

    গজারিয়া ধর্ম অবমাননার মামলায় যুবক গ্রেপ্তার

    রাশিয়ার পকেটে ইউক্রেনের ১৫ শতাংশ, কোন দিকে যাচ্ছে যুদ্ধ

    চাকরিজীবী ছাত্রলীগ নেতা হলে থাকেন এসি লাগিয়ে

    পুতিনের সমালোচনায় বিদ্ধ পশ্চিমা মূল্যবোধ

    দলের লাগাম থাকছে গান্ধী পরিবারের হাতেই 

    রাশিয়ার কাছে ৪ অঞ্চল হারানোর দিনে ন্যাটোর সদস্য হতে ইউক্রেনের আবেদন 

    ৯ মাস ধরে নিখোঁজ ছায়েদ