Alexa
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২

সেকশন

epaper
 

পায়রা বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত, জোয়ারের পানিতে প্লাবিত ২০ গ্রাম

আপডেট : ১৫ আগস্ট ২০২২, ১৪:০৭

পায়রাসহ সব সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। ছবি: আজকের পত্রিকা পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় বঙ্গোপসাগর বেশ উত্তাল রয়েছে। উপকূলীয় এলাকায় থেমে থেমে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। গত এক সপ্তাহে নদ-নদীর পানির উচ্চতা ২ থেকে ৩ ফুট বেড়ে উপজেলার ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকার মানুষ পার করছে মানবেতর জীবন। 

উপকূলীয় এলাকায় বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্য বিরাজ করছে। ফলে যে কোনো সময় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। তাই পায়রা সহ সব সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। মাছধরা ট্রলার সমূহকে নিরাপদে থাকতে বলা হয়েছে। এদিকে সাগর উত্তাল থাকায় পর্যটকদের নিরাপদে রাখতে সৈকত এলাকায় মাইকিং করছে টুরিস্ট পুলিশ।

লালুয়া ইউপির চেয়ারম্যান শওকত হোসেন তপন বিশ্বাস আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এই মৌসুমে আমার ইউনিয়নের মানুষের কষ্টের শেষ নেই। সিডর এবং আইলার সময় ভেঙে যাওয়া বেড়িবাঁধ এখনো সংস্কার না হওয়ায় অমাবস্যা ও পূর্ণিমার জোয়ারে ইউনিয়নের চর-চান্দুপাড়া, বুড়োজালিয়া, মুন্সিপাড়া, মঞ্জুপাড়া, নাওয়াপাড়া, চাড়িপাড়া, বানাতিপাড়া, পশুরবুনিয়া ও হাসনাপাড়া গ্রামে পানি প্রবেশ করে মানুষের বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়ে। এ সময় তাদের বাড়িঘর ছেড়ে রাস্তায় আশ্রয় নিতে হয়। এ ব্যাপারে একাধিকবার মানববন্ধনসহ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।’ 

ভারী বৃষ্টিপাত ও জোয়ারের পানিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। ছবি: আজকের পত্রিকা উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনা পারভিন সীমা আজকের পত্রিকাকে জানান, বাধ ভেঙে পানি প্রবেশ করে উপজেলার ধানখালী, চম্পাপুর ও মহিপুর ইউপির কয়েকটি গ্রামের মানুষ পানিবন্দী থাকায় তাদেরকে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

কুয়াকাটা-আলীপুর মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আনসার উদ্দিন মোল্লা জানান, বিরূপ আবহাওয়ার কারণে কিছু মাছ ধরা ট্রলার শিববাড়িয়া নদীর পোতাশ্রয়ে অবস্থান করছে। কিন্তু অনেক ট্রলার এখনো সমুদ্রে অবস্থান করছে।

সমুদ্রে নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ায় মাইকিং করে পর্যটকদের নিরাপদে থাকার নির্দেশ দিচ্ছে টুরিস্ট পুলিশ। ছবি: আজকের পত্রিকা পটুয়াখালী জেলা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবা সুখী বলেন, সুস্পষ্ট লঘুচাপটি নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। আগামী দুই দিন বাতাসের তীব্রতা এবং বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকতে পারে। তাই পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সকল মাছ ধরা ট্রলারসমূহকে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে। 

টুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোনের পুলিশ পরিদর্শক হাসনাইন পারভেজ বলেন, এরই মধ্যে সমুদ্রে নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ায় সমুদ্র উত্তাল রয়েছে। তাই মাইকিং করে পর্যটকদের নিরাপদে থাকার নির্দেশ দিচ্ছি। ঝুঁকিপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে আমাদের টিম সব সময় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    তুমব্রু সীমান্তের উত্তরে প্রচণ্ড গোলাগুলি, দক্ষিণে চোরাচালানকালে জব্দ ২৯ মহিষ

    ভোলায় কোস্টগার্ডের অভিযান, অস্ত্রসহ আটক ১০ জলদস্যু

    উন্নত হওয়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ: নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী

    মুলাদীর অধিকাংশ কমিউনিটি ক্লিনিকে সেবা না পাওয়ার অভিযোগ

    ভোল মাছটি নিয়ে বিপাকে জেলে, ভালো দাম পেলেই বেচে দেবেন

    এসএসসি পরীক্ষার্থীর শ্রুতলেখক অনার্সের শিক্ষার্থী, পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার

    রাশিয়ার পকেটে ইউক্রেনের ১৫ শতাংশ, কোন দিকে যাচ্ছে যুদ্ধ

    চাকরিজীবী ছাত্রলীগ নেতা হলে থাকেন এসি লাগিয়ে

    পুতিনের সমালোচনায় বিদ্ধ পশ্চিমা মূল্যবোধ

    দলের লাগাম থাকছে গান্ধী পরিবারের হাতেই 

    রাশিয়ার কাছে ৪ অঞ্চল হারানোর দিনে ন্যাটোর সদস্য হতে ইউক্রেনের আবেদন 

    ৯ মাস ধরে নিখোঁজ ছায়েদ