Alexa
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২

সেকশন

epaper
 

আ.লীগের যারা লুটপাট করছে তারা বেহেশতে আছে: শামসুজ্জামান দুদু

আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০২২, ২০:১৭

 জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম দলের উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু। ছবি: আজকের পত্রিকা  সম্প্রতি বাংলাদেশকে বেহেশতের সঙ্গে তুলনা করে বক্তব্য দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। এমন বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু। তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মানসিক সুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। 

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘আওয়ামী লীগের একটা অংশ (অর্ধেক বা ২০ ভাগ) যারা দুর্নীতি-লুটপাট করে খাচ্ছে তারা বেহেশতে আছে। বাকি আওয়ামী লীগ যারা খেটে খায় তারাসহ দেশের বাকি সব জনগণ ভয়ংকর কষ্টে আছে।’ 

আজ শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম দলের উদ্যোগে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। 

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘দেশে এমন কোনো নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য নাই যার দাম বাড়েনি। দেশের জনগণ কষ্টে আছে। এ রকম অবস্থায় তারা জনগণের সঙ্গে মশকরা করে বলে দেশের মানুষ নাকি বেহেশতে আছে। তাদের সুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন তোলাই যায়।’ 

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ‘তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে এর প্রভাব সর্বস্তরে পড়েছে। এরই মধ্যে শিল্প-কারখানায় ব্যাপকভাবে ধস নেমেছে। উৎপাদন বন্ধ হওয়ার উপক্রম দেখা দিয়েছে। এর আগের মূল্যবৃদ্ধি ও বর্তমান মূল্যবৃদ্ধি মিলে কোনো কোনো জিনিসের দাম ২০০ গুণ পর্যন্ত বেড়েছে।’ 

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘এই সরকার নির্বাচিত সরকার নয়। মানুষের ভোটের প্রয়োজন হয় নাই। তারা গায়ের জোরে ক্ষমতায় এসেছে। এই কারণে এ সরকার জবাবদিহির বাইরে। সঠিক নির্বাচন হলে বোঝা যেত আওয়ামী লীগ কতটা অজনপ্রিয় দল। কিন্তু দেশে এখন নির্বাচন নাই। নির্বাচনব্যবস্থাকে ভেঙে ফেলা হয়েছে। আর এই জন্যই সরকার বেপরোয়া হয়ে গেছে।’

 মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাস্তায় নামা ছাড়া উপায় নেই উল্লেখ করে দুদু বলেন, ‘আন্দোলন ছাড়া এই দুর্গতি থেকে বের হয়ে আসা যাবে না। সরকার যা-ই বলুক না কেন, সরকারের কোষাগার একদম তলানিতে।’ 

যারা সরকারের গুণগান গাইত তারাও এখন সরকারের বিরোধিতা করছে জানিয়ে দুদু বলেন, ‘আগে যারা সরকারের গুণগান গাইত তারাও এখন সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলছে। জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন দল প্রতিনিয়ত সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলছে। এমনকি রাশেদ খান মেনন যিনি এই সরকারের মন্ত্রী ছিলেন দ্রব্যমূল্য বাড়ার কারণে তিনিও সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলছেন। এই জন্য আসুন সবাই ঐক্যবদ্ধ হই এবং রাস্তায় নেমে আসি।’ 

সংগঠনের সভাপতি জনি সরকারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দলের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির সদস্যসচিব আব্দুর রহিম, যুগ্ম আহ্বায়ক সেলিম মিয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা ফরিদ উদ্দিন, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, জিনাফের সভাপতি মিয়া আনোয়ার, সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক তানিয়া আক্তার তামান্না, মসিউজ্জামান সুজন হাসান, কামাল সরকার, লোকমান প্রমুখ। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    চাকরিজীবী ছাত্রলীগ নেতা হলে থাকেন এসি লাগিয়ে

    বিএনপি নিজেদের কর্মীকে নিজেরা মারছে: তথ্যমন্ত্রী

    ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে আ. লীগ ৩০ আসনও পাবে না’

    গাইবান্ধা-৫ উপনির্বাচনে নৌকার মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন বিচারপতি খুরশীদের স্ত্রী

    হাজারীবাগে সংঘর্ষ: হামলাকারীদের ধরতে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম আওয়ামী লীগের

    বিএনপি যে হাঁটু ভাঙা নয়, সেটা তো টের পাচ্ছেন: আ. লীগকে মির্জা ফখরুল 

    বিশ্ববিদ্যালয়ে ই-নথি ব্যবস্থা জোরদারের আহ্বান

    জ্যোতিদের ফাইনাল খেলার সম্ভাবনা দেখছেন পাপন 

    দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে একটি চক্র ষড়যন্ত্র করছে: টুকু

    জোরপূর্বক বাল্যবিবাহ, ১৫ দিনের মাথায় নববধূর আত্মহত্যা

    আফগানিস্তানে হাজারা নারীদের বিক্ষোভ, ‘গণহত্যা’ বন্ধের আহ্বান

    টুঙ্গিপাড়ায় আইজিপির শ্রদ্ধা নিবেদন