Alexa
রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

আমন চাষের শুরুতেই বাড়তি খরচের বোঝা

আপডেট : ১২ আগস্ট ২০২২, ১৫:৪১

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে আমন ধানের চারা রোপণের জন্য চলছে জমি প্রস্তুত। গতকাল উপজেলার গজেরকুটি গ্ৰাম থেকে তোলা ছবি। tআজকের পত্রিকা কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ডিজেলের দাম বাড়ায় বেড়েছে ফসল আবাদের খরচ। এতে আমন মৌসুমে ধান রোপণের শুরুতেই বাড়তি খরচের বোঝা চেপেছে কৃষকের কাঁধে।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে জানা গেছে, শ্রাবণের শেষের দিকে এসেও জমিতে সেচ দিয়ে অনেকে ধানের চারা রোপণ করছেন। কেউ কেউ রোপণ শেষ করলেও শুকিয়ে যাওয়া জমিতে বাড়তি খরচ করে সেচ দিচ্ছেন।

উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের পূর্ব ধনিরাম গ্ৰামের কৃষক নজরুল ইসলাম বলেন, ‘পানির অভাবে সেচ দিয়ে চাষাবাদ করতে হচ্ছে। কৃষিশ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না। পাওয়া গেলেও মজুরি চড়া। প্রতি বিঘা জমিতে চারা রোপণের জন্য শ্রমিকদের দেড় হাজার টাকা দিতে হচ্ছে। ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির ফলে পাওয়ারটিলার মালিকেরা জমি চাষের টাকা বেশি নিচ্ছেন। এবারে প্রতি বিঘা জমিতে চারা রোপণ পর্যন্ত প্রায় পাঁচ হাজার টাকা খরচ হয়ে গেছে।’

পশ্চিম ধনিরাম গ্ৰামের কৃষক মোকছেদুল হক বলেন, ‘পরিবারের খাদ্যের চাহিদা মেটাতে এক বিঘা জমিতে ধান চাষ করছি। বৃষ্টি নাই। জমিতে হালচাষে খরচ বেশি। শ্রমিকেরা মজুরি বেশি টাকা চাচ্ছে। তাই নিজের জমিতে নিজেই চারা রোপণ করছি।’

চন্দ্রখানা গ্রামের বাদশা সরকার বলেন, ‘আমি এবার তিন বিঘা জমিতে আমন চাষাবাদ করেছি। বৃষ্টির অভাবে খেতে নিয়মিত সেচ দিতে হচ্ছে। খেতের অবস্থা আপাতত ভালো। দু-এক দিনের মধ্যে জমিতে সার ও নিড়ানি দিতে হবে। শ্রমিক খরচ ও সারেরও দাম বেশি। এভাবে বেশি টাকা ব্যয় করে চাষাবাদ করলে লোকসান হতে পারে।’

উপজেলার শাহবাজার এলাকার পাওয়ারটিলার মালিক শাহ জালাল মিয়া ও বাদল সরকার বলেন, ‘বর্তমানে পাওয়ারটিলারের সব ধরনের যন্ত্রপাতির দাম বেড়েছে। তেল-মবিলের দামও অনেক বেশি। পাওয়ারটিলার চালকদের বেশি মজুরি দেওয়া লাগে। খুব খাটাখাটুনি করেও আমরা লাভের মুখ দেখতে পারি না।’

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নিলুফা ইয়াসমিন জানান, অনাবৃষ্টির কারণে সেচ দিয়ে চারা রোপণ করায় কৃষকদের বাড়তি খরচ হচ্ছে। তবে সঠিক পদ্ধতিতে চাষাবাদ, সুষম মাত্রায় সার ও কীটনাশক ব্যবহার করলে এবং প্রাকৃতিক উপায়ে খেতের ফসল উৎপাদন করলে খরচ অনেকাংশে কমিয়ে আসবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন দাস বলেন, ‘আমন মৌসুমে সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছি। চাষাবাদের জন্য কৃষকদের প্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহ নির্বিঘ্ন রাখতে লাইসেন্সপ্রাপ্ত ডিলারদের নিয়ে সভা করা হয়েছে। পাশাপাশি বাজার তদারকি করা হচ্ছে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    প্রতিমা তৈরি করেই মোহনের সংসারে এসেছে সচ্ছলতা

    ঋণের ফাঁদে গরিব কাঁদে

    মিঠাপুকুরে চোখ ওঠা রোগের প্রাদুর্ভাব

    আগ্রাসী ঋণে ঝুঁকছে ব্যাংক

    টিকিটসহ ধরা বুকিং সহকারী, বরখাস্ত

    শিল্পবর্জ্যে শীতলক্ষ্যার সর্বনাশ

    মরদের রাস্তায় এনে গ্রামবাসীর মানববন্ধন, আসামি গ্রেপ্তারের হুঁশিয়ারি

    মরিয়ম মান্নানকে অনলাইনে ‘হেনস্তাকারীরা’ সিআইডির নজরে

    হাসপাতালে চিকিৎসকের অপেক্ষায় থেকে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ, চিকিৎসকসহ আটক ২ 

    মেয়ের জিম্মায় বাড়ি ফিরলেন রহিমা বেগম

    টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, নেই তাসকিন

    স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওয়ার্ড বয়ের বিরুদ্ধে রোগীকে ধর্ষণের অভিযোগ