Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২

সেকশন

epaper
 

দুই রোহিঙ্গা নেতা হত্যার ঘটনায় ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ৩

আপডেট : ১১ আগস্ট ২০২২, ১৩:৩৮

দুই রোহিঙ্গা নেতাকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন। ছবি: আজকের পত্রিকা কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার ১৫ নম্বর জামতলী রোহিঙ্গা শিবিরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে দুই রোহিঙ্গা নেতা নিহতের ঘটনায় মামলা হয়েছে। গতকাল বুধবার রাত ১টায় পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে এই মামলা করা হয়। 

নিহত আবু তালেবের স্ত্রী তৈয়বা খাতুন (৩০) বাদী হয়ে উখিয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন। এতে আরও সাত-আটজনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। 

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 

ওসি বলেন, মামলায় জামতলী রোহিঙ্গা শিবিরের জাফর আলমের ছেলে মাহামুদুল হাসান (২৭),  সোনা আলীর ছেলে শাহ মিয়া (৩২) ও তাঁর ভাই আবুল কালাম (২৫), রশিদ আহম্মেদের ছেলে জাফর আলম (৫৪) ও তাঁর ছেলে মো. সোয়াইবকে (২৫) আসামি করা হয়েছে। 

এদিকে রোহিঙ্গা শিবিরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) গতকাল বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এদের মধ্যে একজন মামলার এজাহারভুক্ত আসামি বলে জানিয়েছেন ৮ এপিবিএনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরান হোসেন। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি। 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, জামতলী রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১৫-এর সি ব্লকের হেড মাঝি (নেতা) আবু তালেব (৪০) এবং সাব মাঝি সৈয়দ হোসেন (৩৫) মঙ্গলবার রাতে প্রতিদিনের মতো কাজকর্ম শেষে  ব্লক-সি/ ৯-এর আছিয়া খাতুনের ঘরের সামনে বাঁশের মাচার ওপর বসে ব্লকের রাতের বেলায় পাহারাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করছিলেন। রাত  ১১টা ৪০ মিনিটে এজাহারনামীয় আসামিসহ সাত-আটজন অজ্ঞাতনামা বন্দুকধারী মুখে গামছা বেঁধে তাঁদের এলোপাতাড়ি গুলি করে। পরে সন্ত্রাসীরা ফাঁকা গুলি ছুড়তে ছুড়তে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এতে আবু তালেবের গলায় দুটি এবং বুকের পাঁজরে একটি এবং সাব-মাঝি সৈয়দ হোসেনের গলায় একটি গুলি লাগে। তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর রাতেই মৃত্যু হয়। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    বিচ্ছেদের পর স্ত্রীকে হত্যা, সাবেক স্বামী গ্রেপ্তার

    কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু

    হাসপাতালে নবজাতক রেখে পালালেন মা

    টেকনাফে ট্রলারডুবির ঘটনায় আরও ২ নারীর মরদেহ উদ্ধার, মৃত বেড়ে ৬

    জঙ্গি সম্পৃক্ততায় ঘর ছেড়ে যাওয়া ৭ জন গ্রেপ্তার

    জাতীয় গ্রিডে বিপর্যয়ের কারণ এখনো স্পষ্ট নয়: তদন্ত কমিটির প্রধান

    কৃষকের কপালে চিন্তার ভাঁজ

    থাইল্যান্ডের কাছে ধরা খেল পাকিস্তান

    শিশু-কিশোরদের হাতে স্টিয়ারিং, সড়কে আতঙ্ক

    সব ডিভাইসের জন্য একক চার্জার আনতে ইইউ পার্লামেন্টে প্রস্তাব পাস

    বিএনপির রাজনীতি বিদ্যুৎবিহীন খাম্বার মতো আশাহীন ও অন্তঃসারশূন্য: ওবায়দুল কাদের

    দখলমুক্ত হয়নি জঙ্গল সলিমপুর