Alexa
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

লঘুচাপের প্রভাবে পায়রা বন্দরে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত, প্লাবিত নিম্নাঞ্চল

আপডেট : ১১ আগস্ট ২০২২, ১৩:০০

বঙ্গোপসাগর বেশ উত্তাল রয়েছে, থেমে থেমে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ফাইল ছবি বর্তমানে ভারতের ছত্তিশগড় ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে বঙ্গোপসাগরের লঘুচাপটি। এর প্রভাবে পটুয়াখালীর কুয়াকাটাসংলগ্ন বঙ্গোপসাগর বেশ উত্তাল রয়েছে। গত সোমবার থেকে উপকূলীয় এলাকায় থেমে থেমে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। এদিকে পূর্ণিমার কারণে জোয়ারের প্রভাবে নদ-নদীর পানির উচ্চতা ২ থেকে ৩ ফুট বেড়েছে। 

আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দুই দফা অস্বাভাবিক জোয়ারে ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি প্রবেশ করে তলিয়ে গেছে নিম্নাঞ্চলসহ উপজেলার অর্ধশতাধিক গ্রাম। বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। এতে বিদ্যুতের সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। মানবেতর জীবনযাপন করছে অনেক পরিবার। শুধু তাই নয়, পানিতে ভেসে গেছে পুকুর ও ঘেরের মাছ। উপকূলীয় এলাকা দিয়ে যেকোনো সময় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। তাই পটুয়াখালীর পায়রাসহ সব বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কসংকেত বহাল থাকার কথা বলেছে আবহাওয়া অফিস। একই সঙ্গে মাছ ধরার ট্রলারগুলোকে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে। 

লালুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চরচান্দুপাড়া গ্রামের বাসিন্দা সোলায়মান বলেন, ‘আমাদের কষ্ট দেখার কেউ নেই। আমরা “ত্রাণ চাই না, বাঁধ চাই” স্লোগানে অনেক মানববন্ধন করেছি, কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। প্রতিবছর এই সময়ে ঘরবাড়ি ছেড়ে রাস্তায় থাকতে হয়।’ 

ধানখালী ইউপির স্কুলশিক্ষক কামরুন্নাহার পাপড়ি বলেন, গত মঙ্গল ও বুধবার বিদ্যুৎ আসেনি। লোডশেডিংয়ে বিপর্যস্ত হয়ে আছে জনজীবন। 

উপজেলার চম্পাপুর ইউপির দেবপুর গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য হাবিব মোল্লা আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘চার বছর আগে আমাদের বেড়িবাঁধ ভেঙে গেছে। প্রতি অমাবস্যা ও পূর্ণিমার সময় বাঁধের ভেতরে পানি প্রবেশ করে এবং গ্রাম তলিয়ে যায়। এমনকি রান্নাবান্না করতেও সমস্যা হয়।’ 

লালুয়া ইউপির চেয়ারম্যান শওকত হোসেন তপন বিশ্বাস আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘অমাবস্যা কিংবা পূর্ণিমায় জোয়ারের চাপ একটু বেশি হলেই আমাদের এখানে গ্রামের পর গ্রাম তলিয়ে যায়। জমি আর চাষ উপযোগী থাকে না। এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেও কোনো সুফল পাইনি।’ 

আলিপুর-কুয়াকাটা মৎস্য আড়ত ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. আনসার উদ্দিন মোল্লা আজকের পত্রিকাকে জানান, আবহাওয়ার খবর পেয়ে এরই মধ্যে মাছ ধরার সহস্রাধিক ট্রলার শিববাড়িয়া নদীর পোতাশ্রয়ে অবস্থান করছে। বৈরী আবহাওয়ায় বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার তিনটি ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটেছে। 

এ বিষয়ে কলাপাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফ হোসেন বলেন, ‘লালুয়ার ছয় কিলোমিটার বেড়িবাঁধ পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষ নির্মাণ করবে। আমার ওই এলাকায় এক কিলোমিটার বেড়িবাঁধ নির্মাণ করব। এরই মধ্যে আমাদের টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। আর দেবপুরে গত বছর দেড় কিলোমিটার বাঁধ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছিল পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু স্থানীয় লোকজন তাঁদের জমির ওপর বাঁধ করতে দেয়নি। যদি স্থানীয়রা এগিয়ে আসে, তাহলে দ্রুত সময়ের মধ্যে ওখানে বাঁধ নির্মাণ করা হবে।’ 

পটুয়াখালী জেলা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবা সুখী বলেন, ‘নদনদীর পানির উচ্চতা আরও বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে উপকূলীয় এলাকায় ঝোড়ো বাতাস বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ৭২ ঘণ্টা এই অবস্থা চলমান থাকবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    এসএসসি পরীক্ষার্থীর শ্রুতলেখক অনার্সের শিক্ষার্থী, পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার

    মরা গরুর মাংস ফেলে পালালেন কসাই

    অপহরণের ১৩ দিন পর স্কুলছাত্রী উদ্ধার, যুবক গ্রেপ্তার

    প্রায় ৩৩ কেজির ভোল মাছ, ৩ কোটি টাকা দাম হাঁকাচ্ছেন জেলে

    কুয়াকাটায় ধরা পড়ল ৩ মণের ৩টি পাখি মাছ

    দুর্গাপূজায় কোনো অঘটন চায় না সম্প্রীতি বাংলাদেশ 

    ইডেন ছাত্রলীগের বহিষ্কৃতরা কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাকের বাসায়

    এসএসসি পরীক্ষার্থীর শ্রুতলেখক অনার্সের শিক্ষার্থী, পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার

    ৮০০ এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট চালুর মাইলফলক অর্জন করল ব্র্যাক ব্যাংক

    প্রথম চাকরিতে যোগ দিতে যাওয়ার পথেই প্রাণ গেল যুবকের

    ভূয়া আইডি দিয়ে তরুণীদের সঙ্গে প্রেম, আপত্তিকর ছবি হাতিয়ে ব্ল্যাকমেল

    অ্যাডম্যান অ্যাওয়ার্ড গোল্ড পুরস্কার পেল কনকা অ্যান্ড্রয়েড ভয়েস কন্ট্রোল টেলিভিশন