Alexa
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

ডলার-তেলের প্রভাবে অস্থির চালের বাজার

আপডেট : ১১ আগস্ট ২০২২, ০৫:৪৯

ফাইল ছবি ডলার ও জ্বালানি তেলের বাড়তি দামের প্রভাব পড়ছে সবকিছুতেই। বাজারে একদিকে ধানের সরবরাহ কম থাকায় বাড়ছে দাম, অন্যদিকে ডলারের দাম বৃদ্ধির ফলে আমদানিকারকেরা চাল আমদানি করছেন না। সব মিলিয়ে অস্থির দিনাজপুরে চালের বাজার। প্রতিদিনই বাড়ছে দাম।

কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের তথ্যমতে, বাজারে চালের দাম গত এক সপ্তাহে কেজিপ্রতি ২ থেকে ৪ টাকা বেড়েছে। অন্যদিকে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. কামাল হোসেন বলেন, ‘খাদ্য বিভাগ ও জেলা প্রশাসন নিয়মিত বাজার মনিটরিং করছে। ধান-চালের দাম স্থিতিশীল আছে। তবে দাম বাড়ছে এ ধরনের একটি গুঞ্জন রয়েছে।’

শহরের বাহাদুর বাজারের পাইকারি চাল ব্যবসায়ীরা জানান, সপ্তাহখানেক ধরে প্রতিদিনই চালের দাম বাড়ছে। আবার চাহিদা অনুযায়ী দিচ্ছেন না মিলাররা। গতকাল বুধবার পাইকারি বাজারে গুটি স্বর্ণা বিক্রি হচ্ছে ৪৩ থেকে ৪৫ টাকা কেজি দরে, আটাশ ৫৭ থেকে ৫৮ টাকা, উনত্রিশ ৫২ থেকে ৫৩, মিনিকেট ৬০ থেকে ৬৮, পাইজাম ৪৮ থেকে ৫০, নাজিরশাইল ৮০, সিদ্ধ কাটারি ১০৪ থেকে ১১০ টাকা, আর আতপ চাল প্রকারভেদে ৯৬ থেকে ১১৪ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়।

বাংলাদেশ অটো, মেজর ও হাস্কিং রাইস মিল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি সহিদুর রহমান পাটোয়ারী আজকের পত্রিকাকে বলেন, যদিও এই সময়ে ধানের দাম বৃদ্ধির কোনো 
যৌক্তিক কারণ নেই, তবু ধানের দাম বাড়ছে। আর ধানের দাম বাড়লে চালের বাড়বে—এটাই স্বাভাবিক।

তিনি আরও বলেন, সরকার চাল আমদানির অনুমতি দিয়েছে। কিন্তু বেসরকারি ব্যাংকগুলো সরকার নির্ধারিত ডলার রেট মানছে না। ফলে অতিরিক্ত মূল্যে চাল আমদানি করে আমদানিকারকেরা পোষাতে পারছেন না। 
জেলার বিরল, বীরগঞ্জ, বাহাদুর বাজার ও পুলহাটের বিভিন্ন অটোরাইস মিল ঘুরে জানা গেছে, বর্তমানে ধান-চালের বাজারে অস্থিরতা বিরাজ করছে। এক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিনই বাড়ছে ধান ও চালের দাম। মিলমালিকেরা জানান, বাজারে তেলের দাম বাড়ার খবরে হঠাৎই ধানের দাম বাড়তে শুরু করেছে। এক সপ্তাহে বস্তাপ্রতি দাম বেড়েছে দেড় শ থেকে ২০০ টাকা। যদিও এর যৌক্তিক কারণ নেই। কেননা বাজারে যে ধান পাওয়া যাচ্ছে, তা বিগত মৌসুমের ধান। তেলের দাম বাড়ার সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। আবার বাজারে ধানের সরবরাহও কমে গেছে আশঙ্কাজনক হারে। বর্তমানে কৃষকের কাছে ধান না থাকায় বাজার নিয়ন্ত্রণ করছেন একশ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী ও মজুতদারেরা। ফলে ধানের পর্যাপ্ত সরবরাহ না থাকায় অনেক মিলমালিক উৎপাদন বন্ধ রাখতে বাধ্য হচ্ছেন।

আবার ডলারের মূল্য অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পাওয়ায় আমদানির অনুমতি থাকা সত্ত্বেও ব্যবসায়ীরা চাল আমদানিতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন না।

ব্যবসায়ীরা জানান, ভারতের বাজারে গত বছরের তুলনায় চালের দাম কিছুটা কম থাকলেও ডলারের দাম বেড়ে যাওয়ায় চাল আমদানি করলে শতকরা ২৫ থেকে ২৭ ভাগ দাম বেড়ে যাচ্ছে। ফলে আমদানি করলেও তার সুফল পাওয়া যাবে না।

বাহাদুর বাজারের চাল ব্যবসায়ী এরশাদ হোসেন বলেন, ‘প্রতিদিনই চালের দাম বাড়ছে। গত এক সপ্তাহে চালের দাম বেড়েছে কেজিপ্রতি ৩ থেকে ৪ টাকা। খুচরা বাজারে আরও ১-২ টাকা বেড়েছে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    চাঁদাবাজির অভিযোগের পর রমেকের ১৬ কর্মচারীকে বদলি

    প্রথম চাকরিতে যোগ দিতে যাওয়ার পথেই প্রাণ গেল যুবকের

    করতোয়ায় ৫ স্বজনের সলিল সমাধি, মংলু রামের বাড়িতে শোক করারও কেউ নেই

    বোদায় নৌকাডুবি: তৃতীয় দিনে ৬৮ জনের মরদেহ উদ্ধার, নিখোঁজ ৪

    কুড়িয়ে পাওয়া টাকায় চোখে আলো ফেরার আশা দেখছেন হৃদয়

    বোদায় নৌকাডুবি: ৬৭ জনের মরদেহ উদ্ধার

    চোখ ওঠা নিয়ে বিদেশ ভ্রমণ না করার অনুরোধ

    ‘ভার্চুয়াল অ্যাকাউন্ট ফর পেমেন্ট’ সল্যুশন চালু করল স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড

    ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ লাইনে ছিদ্র, অভিযোগের আঙুল রাশিয়ার দিকে

    ইস্টার্ন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনায় টিএমএসএসের জন্য ১,২২৪ মিলিয়ন টাকা সংগ্রহ

    সাফজয়ী দলকে সংবর্ধনা দিল বাংলাদেশ সেনাবাহিনী 

    বছরের প্রথম টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় বাংলাদেশের