Alexa
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

ডিজেল-সারের দাম বাড়ায় আমন চাষ নিয়ে শঙ্কায় ঠাকুরগাঁওয়ের চাষিরা

আপডেট : ০৭ আগস্ট ২০২২, ১৩:৫০

ভরা বর্ষার মৌসুমে সেচ দিয়ে আমনের চারা রোপণ করছেন ঠাকুরগাঁওয়ের চাষিরা। ছবি: আজকের পত্রিকা এ বছর ভরা বর্ষার মৌসুমে স্বাভাবিক সময়ের মতো বৃষ্টির দেখা পাননি ঠাকুরগাঁওয়ের কৃষকেরা। এতে বিকল্প পদ্ধতিতে সেচ দিয়ে আমনের চারা রোপণ করছেন এই অঞ্চলের চাষিরা। তবে খরা কাটিয়ে উঠলেও সম্প্রতি ইউরিয়া সারের পর ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে আমন চাষের বাড়তি খরচ নিয়ে দুশ্চিন্তা দেখা দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কৃষকদের মধ্যে। 

তাঁরা বলছেন, সারের দাম বাড়ার পর ডিজেলের দাম বাড়ায় উৎপাদন খরচ দ্বিগুণেরও বেশি হয়ে যাবে। এর সঙ্গে কৃষিপণ্য পরিবহন ও সেচ খরচ দুটোই বাড়বে। অন্যদিকে কৃষকদের সোলার সেচ পাম্পের মাধ্যমে সেচ ও ইউরিয়ার বদলে ডিএপি সার ব্যবহারে ফসল চাষ করার পরামর্শ দিচ্ছে জেলা কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা। এতে উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হবে না, খরচও কম হবে বলে জানান তাঁরা।

সরেজমিনেসদর উপজেলার বেগুনবাড়ী গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, অনেক কৃষক তাঁদের জমিতে শ্যালো ইঞ্জিন দিয়ে সেচ দিচ্ছেন। এ সময় আমির হোসেন নামের এক কৃষক আক্ষেপ করে বলেন, ‘বাপু, হামরা ভালো নাই। এক বিঘা জমিতে আমন চাষে খরচ হয় ১৮-২০ হাজার টাকা। ডিজেল ও সার-কীটনাশকের দাম বাড়াতে সেই খরচে আরও যোগ হলো বিঘাপ্রতি ৩-৪ হাজার টাকা। পাশাপাশি জমি হাল দিতে এখন লাঙলের পরিবর্তে আধুনিক কৃষিযন্ত্রের ব্যবহার বেড়েছে। সেই যন্ত্র চালাতেও ডিজেল ব্যবহার করা হয়। সেখানেও খরচ বাড়বে। এ ছাড়া ফসল উত্তোলনেও যন্ত্রের ব্যবহার করা হয়। সেখানেও খরচ বাড়বে। পাশাপাশি শ্রমিকের দাম বাড়ছে। এতে করে আমরা বিপাকে পড়েছি।’ 

একই এলাকার মনসুর আলী স্বপন বলেন, ‘১৫ দিন আগেও দোকান থেকে ইউরিয়া সার ৮৫০ টাকা দিয়ে কিনেছি। দাম বেড়ে যাওয়ায় এখন ১ হাজার ২৫০ টাকা দিয়ে কিনতে হচ্ছে। পটাশ সারও ৯৫০ টাকা ছিল, এখন তা বেড়ে ১ হাজার ৩৫০ টাকায় দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে সারের সঙ্গে প্যাকেট ও বোতলজাত কীটনাশকেরও দাম বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। প্রতি বোতল ও প্যাকেট কীটনাশকের দাম বেড়েছে ১০০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত। আমাদের মতো প্রান্তিক কৃষকের পক্ষে অতিরিক্ত টাকা খরচ করে আমন ধান আবাদ করা লোকসানের।’ 

  
মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের কৃষক জালাল মিয়া বলেন, বাড়তি খরচের সঙ্গে উৎপাদিত ফসলের ন্যায্যমূল্য তো পাই না। ফসলের অর্ধেক টাকা তো চলে যায় দালাল আর ফড়িয়াদের পকেটে।

কৃষক নেতা শাহিনুর আলম বলেন, বেশি দামে সার ও ডিজেল কেনায় কৃষকদের জমি আবাদে খরচ বেড়ে গেছে। এর পরেও ন্যায্য দামে ফসল বিক্রি করা যাবে কি না—এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন কৃষকেরা।

ঠাকুরগাঁও জেলা জেএসডির সভাপতি মনসুর আলী বলেন, ‘চলতি আমন মৌসুমের শুরুতেই জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধিতে কৃষকেরা আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বেন। অনেক সময় ফসল ওঠার পর খরচের চেয়ে কমে তাঁদের পণ্য বিক্রি করতে হয়। অবিলম্বে ডিজেলের দাম কমিয়ে কৃষকদের সহনীয় পর্যায় নিয়ে আসতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানাই।’

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এ বছর জেলায় আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১ লাখ ৩৭ হাজার ৩৫০ হেক্টর জমিতে, যাতে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় ৪ লাখ ২৯ হাজার ৭১৬ মেট্রিক টন চাল।

ঠাকুরগাঁওয়ে সারের কোনো সংকট নেই জানিয়ে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক কৃষিবিদ আবু হোসেন আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘সারের পর্যাপ্ত মজুত আছে। কৃষক পর্যায়ে ইউরিয়া সার ১ হাজার ১০০ ও পটাশ ৭৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর বেশি কোনো ডিলার বা খুচরা ব্যবসায়ীরা কৃষকদের কাছ থেকে নিলে তা অবৈধ। আমরা বাজার নিয়মিত তদারক করছি। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানও অব্যাহত রয়েছে। অন্যদিকে বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে ডিজেলের দাম বেড়েছে। এটি আমাদের কৃষকদের এখন মেনে নিতে হবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    করতোয়ায় ৫ স্বজনের সলিল সমাধি, মংলু রামের বাড়িতে শোক করারও কেউ নেই

    বোদায় নৌকাডুবি: তৃতীয় দিনে ৬৮ জনের মরদেহ উদ্ধার, নিখোঁজ ৪

    কুড়িয়ে পাওয়া টাকায় চোখে আলো ফেরার আশা দেখছেন হৃদয়

    বোদায় নৌকাডুবি: ৬৭ জনের মরদেহ উদ্ধার

    করতোয়ায় নৌকাডুবির ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৮

    নৌকাডুবিতে একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু

    কেন্দ্র দখল করতে পারবে না বলেই ইভিএমকে ভয় পায় বিএনপি: কাদের

    মরা গরুর মাংস ফেলে পালালেন কসাই

    শাহজাদপুরে শিশুকে অপহরণের পর হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদণ্ড

    নাফ নদী থেকে আবারও অজ্ঞাত ২ জনের মরদেহ উদ্ধার

    চাকরিতে পুনর্বহালের দাবিতে ‘করোনা যোদ্ধাদের’ মানববন্ধন

    ঢামেকে সাত তলা থেকে লাফিয়ে রোগীর আত্মহত্যার চেষ্টা