বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

করোনা ঠেকায় মাশরুম

আপডেট : ২৩ আগস্ট ২০২১, ১১:৫০

মাশরুম গবেষক ড. আনোয়ার হোসেন। ছবি: আজকের পত্রিকা বিশেষ ধরনের মাশরুমের চা পান করে করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধ করা সম্ভব বলে দাবি করেছেন একজন গবেষক। তিনি হলেন ড. মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। বাড়ি ঢাকার ধামরাই উপজেলার চাপিল গ্রামে। তিনি ছত্রাক তত্ত্ববিদ ও মাশরুম গবেষক এবং উদ্যোক্তা।

মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন মাশরুম বিষয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেছেন। বাড়িতেই গড়ে তুলেছেন মাশরুমের গবেষণাগার। শুধু তাই নয়, তাঁর গ্রামে করোনার উপসর্গ থাকা একাধিক বয়স্ক রোগীকে এই মাশরুমের চা পান করিয়ে সফলতাও পেয়েছেন।

করোনা বিস্তার রোধে উপকারী মাশরুমটির বৈজ্ঞানিক নাম গ্যানোডার্মা লুসিডাম। এর নির্যাস ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসের বংশবৃদ্ধি রোধ করার ক্ষমতা রাখে। এ দেশে একে ঋষি মাশরুম নামে চেনেন অনেকে। মেহগনি, আম, জাম, কাঁঠাল, একাশিয়া ও বাঁশের গোঁড়ার দিকে এই মাশরুম জন্মাতে দেখা যায়। এগুলো গাছের ওপর পরজীবী হিসেবে জন্মায়। এই মাশরুম শুকিয়ে তা গরম পানিতে জ্বাল দিয়ে চায়ের মতো পান করা যায়।

ড. আনোয়ার তাঁর এলাকার ১১ জন বয়স্ক রোগীকে এই গ্যানোডার্মা লুসিডাম মাশরুমের চা পান করিয়ে করোনাসহ বিভিন্ন রোগ থেকে সুস্থ করেছেন। তাঁদের মধ্যে ওই এলাকার আব্দুস সালাম ও আব্দুল রশিদের করোনা পজিটিভ ছিল এবং আজিমউদ্দিন ও মো. মোক্তার আলীর করোনার সব ধরনের উপসর্গ ছিল। সাত থেকে ১০ দিন গ্যানোডার্মা লুসিডাম মাশরুমের চা পান করার পরই তাঁরা সুস্থ হয়ে ওঠেন।

জানতে চাইলে আব্দুস সালাম আজকের পত্রিকা কে বলেন, ‘আমার করোনার উপসর্গ দেখা দিলে পরীক্ষা করি। পরে জানতে পারি আমার করোনা হয়েছে। এ রকম কথা শুনে প্রথমে চিন্তায় পড়ে যাই। হোমকোয়ারেন্টিনে থেকে ডাক্তারের পরামর্শ মতো কাজ করি। কিন্তু আমার শরীরের কোনো উন্নতি হচ্ছিল না। পরে আমার ভাতিজা আনোয়ার হোসেন আমার কথা শুনে আমাকে প্রতিদিন মাশরুমের চা পান করাত, আর বলত কাকা কোনো চিন্তা কইরেন না। কয়েক দিন এই চা পান করার পর করোনাসহ ঠান্ডা-কাশি, জ্বরসহ সব চলে যাবে। ঠিক তাই হয়েছে। সাত-আট দিন এই চা পান করার পর আমি সুস্থ হয়ে উঠি। আগের থেকে এখন খুব ভালো আছি।’

এ বিষয়ে মাশরুম গবেষক ড. আনোয়ার বলেন, প্রায় দুই হাজার বছর আগে চীনে এই মাশরুমের ব্যবহার শুরু হয়। তারপর সারা বিশ্বে এটি গবেষণার বিষয় হিসেবে ছড়িয়ে পড়ে। গ্যানোডার্মা লুসিডাম মূলত মাশরুমটির বৈজ্ঞানিক নাম। চীন-জাপানে এটি লিংঝি এবং রেইসি মাশরুম বলে পরিচিত। বিভিন্ন জটিল রোগে প্রাকৃতিক সুরক্ষার জন্য সারা বিশ্বে এর ব্যবহার দিন-দিন বাড়ছে। তিনি বলেন, ‘আমরা করোনা থেকে মুক্ত হতে টিকার পেছনে ছুটলেও এর উৎপত্তিস্থল চীন ও প্রতিবেশী দেশে গ্যানোডার্মা মাশরুমের ব্যবহার যেমন বেড়েছে, তেমনি বেড়েছে করোনা রোগীর ওপর এর প্রায়োগিক গবেষণা। আমেরিকা, যুক্তরাজ্য, চীন, জাপান, হংকং, ভারত, পাকিস্তান, ইরাক, ইরান, এমনকি আফ্রিকার নাইজেরিয়াতেও এর ওপর গবেষণা হয়েছে।’

আনোয়ার বলেন, ইতিমধ্যে আমেরিকা-ইউরোপ ও চীনেও বেড়েছে এই মাশরুমের ব্যবহার। এমনকি যুক্তরাষ্ট্র মাশরুমটি করোনার প্রতিরোধে ব্যবহারের জন্য এফডিএ ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের অনুমোদন দিয়েছে। এই মাশরুম করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে ম্যাজিকের মতো কাজ করে। এ ছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশের গবেষকেরা মাশরুমটি করোনার বিরুদ্ধে কাজ করছে বলে জার্নালে তুলে ধরেছেন। তিনি আরও বলেন, এই মাশরুমের রস মানুষের শরীরে লিম্ফোসাইট ও বি-সেল তৈরির মাধ্যমে ক্ষতিকর ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা কয়েক গুণ বাড়িয়ে দেয়। করোনাভাইরাসে প্রতিরোধে একইভাবে মাশরুমের রস বা চা দারুণ কাজ করছে। টিকার পাশাপাশি মানুষ এই মাশরুমের রস পান করলে অনেকাংশে মৃত্যু ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব।

কীভাবে মাশরুমটি করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধ করে এমন প্রশ্নে ড. আনোয়ার বলেন, গ্যানোডার্মা মাশরুমের নির্যাস অস্থি মজ্জায় আরএনএ এবং ডি এনএর সংশ্লেষ বাড়ায়, যাতে বেশি-বেশি লিম্ফোসাইট তৈরি হয়। এ কারণে শরীরের ইমিউনিটি বৃদ্ধি পায়। করোনাভাইরাস শরীরে প্রচুর প্রো-ইনফ্ল্যামেটরি সাইটোকাইনিন তৈরি করে যা মালটি-অর্গান ফেইলিউরের জন্য দায়ী।

পক্ষান্তরে গ্যানোডার্মা মাশরুমের নির্যাসে থাকা পলিস্যাকারাইড ও ট্রাইটারপেনয়েড সাইটোকাইনিনের ক্ষতিকর প্রকোপ থেকে মানবদেহকে রক্ষা করে। ভাইরাসের প্রোটিন-কোট সংশ্লেষে বাধা দিয়ে ভাইরাসের বংশ বৃদ্ধি রোধ করে। এভাবে গ্যানোডার্মা মাশরুম করোনাজনিত মৃত্যু ও হস্পিটালাইজেশন কমায়।

এ বিষয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের অধ্যাপক ও জীবাণু বিশেষজ্ঞ ড. আলী আজম তালুকদার বলেন, আর মাশরুমের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। করোনা প্রতিরোধে টিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। টিকার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং মাশরুম চা পান করা যেতে পারে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ভাঙা সেতু, ঝুঁকি নিয়ে পারাপার

    কাঠালিয়ায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত

    বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী আ.লীগের ৩ প্রার্থী

    নদীবন্দরে চাঁদাবাজি

    নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে মতবিনিময়

    ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ার রোগী বাড়ছে , চিকিৎসা দিতে হিমশিম

    জানার পরও সময়মতো ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন

    শুচিবাই থেকে ভালো কিছু

    শিবপুরে যুবদলের ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন

    বেগমগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

    ময়মনসিংহে ১০ শ্রমিকের মাঝে সাড়ে ৫ লাখ টাকার চেক বিতরণ

    লোকে কী না বলে!