Alexa
মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

‘নতুন কাপড় তো দূরের কথা, পুরান সবই গেছে নষ্ট অইয়া’

আপডেট : ০৬ জুলাই ২০২২, ১৩:২৫

বন্যার পানিতে ভিজে যাওয়া কাপড় শুকাচ্ছেন দুই নারী। ছবি: আজকের পত্রিকা ঈদ মানে খুশি, আনন্দ। আর মাত্র তিন দিন পরেই উদ্‌যাপন করা হবে পবিত্র ঈদুল আজহা। কিন্তু এবারের ঈদে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার বানভাসি মানুষের মনে আনন্দ নেই।

জগন্নাথপুর পৌরসভার হাজী আব্দুর রশীদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আশ্রয়কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, কয়েক দিনের বৃষ্টি শেষে রোদের দেখা পেয়ে বন্যার পানিতে ভিজে যাওয়া পুরোনো কাপড় বিদ্যালয়ের ছাদে শুকাতে দিচ্ছেন দুই নারী। জয়ধন বিবি নামের এক নারী ভেজা একটি সুটকেস থেকে পুরোনো কাপড়চোপড় বের করছেন।

ঈদের প্রস্তুতির বিষয়ে জানতে চাইলে জয়ধন বিবি বলেন, ‘নতুন কাপড় তো দূরের কথা, পুরান সবই গেছে নষ্ট অইয়া। সর্বনাশা বন্যায় এই ঈদ ভাসিয়ে নিয়ে গেছে।’

তিনি বলেন, ‘৪ ছেলে ১ মেয়েকে নিয়ে কোনোমতে খেয়ে না খেয়ে বেঁচে আছি। ঈদে তো আর বাড়ি যাওয়া হবে না। নতুন কাপড় পাব কই?’

খালেদা বেগম নামের আরেক নারী বলেন, ‘ছোট ছোট ছেলে-মেয়ে তো আর এত সব বুঝে না। তাদের তো ঈদের জামা লাগবেই। সে জন্য গত ঈদের জামা রোদে শুকাচ্ছি। এগুলো দিয়েই যদি মানানো যায়!’

গত ১৬ জুন এই উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতি দেখা দেয়। এরপর থেকে পানিবন্দী হয়ে পড়েন চার লক্ষাধিক মানুষ। বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্র আশ্রয় নেয় লক্ষাধিক পরিবার।

ইউএনও সাজেদুল ইসলাম বলেন, ‘উপজেলায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে ভেঙে যাওয়া ঘর-বাড়ির তালিকা করেছি।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    সময়টা অনুধাবন করে সহনশীল হতে হবে

    কারাগারে না পাঠিয়ে সংশোধনের সুযোগ অপরাধীদের

    বাসে বাড়তি ভাড়ায় বিপাকে যাত্রী, বাধছে তর্কবিতর্ক

    ভোগান্তির আরেক নাম ফতেপুর বেইলি সেতু

    এখনো বই পায়নি সুনামগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীরা

    শিশুর চুল থাকুক খুশকিমুক্ত

    পুরোনো কথা মনে করে আমিরের চোখে জল

    ৬০০ টি-টোয়েন্টি খেলা প্রথম ক্রিকেটার পোলার্ড

    সৎ মেয়েকে নিয়ে পালানো যুবক গ্রেপ্তার, প্রকাশ্যে ফাঁসির দাবি স্ত্রীর

    সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন র‍্যাব কর্মকর্তার মৃত্যু

    শেষ হলো তাজিয়া মিছিল