Alexa
শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

‘শয়তানের নিশ্বাসে’ গয়না ও মোবাইল খোয়ানোর অভিযোগ

আপডেট : ২৯ জুন ২০২২, ২২:০০

হোমনা উপজেলা কমপ্লেক্স, কুমিল্লা। ছবি: সংগৃহীত কুমিল্লার হোমনায় অফিসে যাওয়ার পথে কথিত ‘শয়তানের নিশ্বাস’ চক্রের খপ্পরে পড়ে একজন চাকরিজীবী নারী তাঁর স্বর্ণালংকার ও মোবাইল ফোন খুইয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ বুধবার বেলা বারোটা থেকে একটার মধ্যে উপজেলার কফিল উদ্দিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে চৌরাস্তা পর্যন্ত কোনো এক স্থানে হিতাহিত জ্ঞানশূন্য করে স্বর্ণালংকার লুটে নেওয়ার অভিযোগ করেছেন রাহিমা আক্তার (৩৫) নামের ওই নারী।

ভুক্তভোগী ওই নারী উপজেলা সাব রেজিস্ট্রি অফিসে চাকরি করেন বলে জানিয়েছেন। পুলিশের ধারণা, ‘শয়তানের নিশ্বাস’ নামের স্কোপোলামিন ড্রাগ প্রয়োগ করে রাহিমা আক্তারকে হিতাহিত জ্ঞানশূন্য করে তাঁর স্বর্ণালংকার লুটে নিয়েছে। 

রাহিমা আক্তার উপজেলার শ্রীমদ্দি গ্রামের মো. আহসান কবীরের স্ত্রী। অফিসের যাওয়ার পর তাঁকে তন্দ্রাচ্ছন্ন, আনমনা, অন্যমনস্ক ও অস্বাভাবিক ভাব দেখে তাঁর সহকর্মীরা বাসায় খবর দেন। পরে স্বজনেরা গিয়ে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা করান। কিছুটা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এলে দুপুরে থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) ইকবাল মনির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেন। 

ভুক্তভোগী রাহিমা আক্তার জানান, বুধবার অফিসের উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর হোমনা কফিল উদ্দিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মার্কেটের কাছে পৌঁছালে ওই চক্রের ১০-১২ বছর বয়সী এক শিশু তাঁর পথরোধ করে দাঁড়ায়। এ সময় কান্না জড়ানো কণ্ঠে মাকে ফোন দেওয়ার কথা বলে তাঁর (রাহিমার) কাছে মোবাইল ফোনটি চায়। প্রথমে তিনি দিতে অস্বীকার করলেও পরে চোখের পানি দেখে মায়ায় পড়ে মোবাইলটি এগিয়ে দিলে শিশুটিও একটি প্লাস্টিকের ব্যাগ ও একটি চানাচুরের প্যাকেট তাঁকে ধরিয়ে দেয়। রাহিমা ব্যাগ ও চানাচুরের প্যাকেটটি হাতে নিলে শিশুটি মোবাইল ফোন কানে ধরে সামনে চলতে থাকে। রাহিমাও তাঁর পিছু পিছু হাঁটতে থাকেন। এরই মধ্যে তাদের সঙ্গে যোগ হয় আরও দুই যুবক। এক সময় স্কুল মার্কেট থেকে চৌরাস্তার পর্যন্ত কাছাকাছি কোনো এক স্থানে গিয়ে একজন সঙ্গে টাকা-পয়সা আছে কিনা জানতে চায়। টাকা নেই বললে এক যুবক রাহিমাকে গলার চেন ও কানের দুল খুলতে বলেন। রাহিমাও বিনা বাক্যে এক ভরি চার আনা ওজনের লকেটসহ গলার চেইন ও তিন আনা ওজনের কানের দুল জোড়া খুলে ওই ব্যক্তির হাতে তুলে দেন।

এ ঘটনায় হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখছি। মালামাল উদ্ধার এবং ওই চক্রটিকে ধরতে ইতিমধ্যে পুলিশ মাঠে নেমেছে।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    বিএনপির সমাবেশস্থলে ছাত্রলীগের হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ

    চাকরির জন্য দেওয়া টাকা ফেরত পেতে মরদেহ নিয়ে অবস্থান

    ডিজেলের দাম বৃদ্ধিতে মৎস্য খাতে অস্থিরতা

    ৭ দিনের মধ্যে নূরকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আদালতে হাজিরের নির্দেশ

    কাজের সন্ধানে গিয়ে নিখোঁজ, ৩৬ বছর পর ফিরলেন মনির

    অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ, প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

    ৩৬ সিসি ক্যামেরার নজরদারিতে পদ্মা সেতু

    কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থাগুলোর পক্ষপাতের অভিযোগে বিক্ষোভ তৃণমূলের

    একজন শিক্ষক সবসময় মাথা উঁচু করে চলবেন: খুবি উপাচার্য 

    আগামীকাল ‘খ’ ইউনিটের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা

    অভিযুক্ত চিকিৎসকের নিবন্ধন বাতিলের দাবি বিএইচআরএফের 

    পুরোনো প্রেম নিয়ে পন্ত-উর্বশীর কাদা ছোড়াছুড়ি