Alexa
শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

পেঁয়াজের দাম বাড়তি, আমদানির অনুমোদন চাইল ভোক্তা অধিদপ্তর

আপডেট : ২৯ জুন ২০২২, ১১:২০

কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েই চলেছে। ফাইল ছবি কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েই চলেছে। এমন পরিস্থিতে পেঁয়াজ আমদানির জন্য অনুমোদন চেয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এএইচএম সফিকুজ্জামান বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিবের কাছে এমন একটি চিঠি দিয়েছেন। 

তবে এই মুহূর্তে পেঁয়াজ আমদানির অনুমোদন দেওয়া ঠিক হবে না বলে মনে করছেন পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার মথুয়াপুর গ্রামের কৃষক মামুন শেখ। তিনি মোবাইল ফোনে আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘বৃষ্টিবাদলের কারণে গতকাল মঙ্গলবার বাজার একটু চড়া রয়েছে। তবে দুই-একদিনের মধ্যে দাম কমে আসবে।’

চিঠিতে ভোক্তা অধিকার উল্লেখ করেছে, বাজার তদারকির সময় দেখা গেছে পুরান ঢাকার শ্যামবাজারে প্রতিকেজি পেঁয়াজ ৪০-৪৫ টাকা এবং খুচরা বাজারে প্রতিকেজি পেঁয়াজ ৫০-৫৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। একই সময়ে পাবনা ও ফরিদপুরে বিভিন্ন মোকামে প্রতিমণ (৪০ কেজি) পেঁয়াজ এক হাজার ৫০০ থেকে এক হাজার ৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। 

চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এ বছর কৃষকদের প্রতিকেজি পেঁয়াজ উৎপাদন ব্যয় ছিল ২০-২২ টাকা। দেশে পর্যাপ্ত পরিমাণ পেঁয়াজ উৎপাদন ও মজুত রয়েছে। এরপরও আসন্ন ঈদ-উল-আজহা উপলক্ষে পেঁয়াজের বাজার অস্থিতিশীল ও অনিয়ন্ত্রিত করার অপচেষ্টা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বিগত বছরগুলোর অভিজ্ঞতার আলোকে বর্তমান সময় ভারত থেকে পেঁয়াজ অনতিবিলম্বে আমদানির কার্যক্রম গ্রহণ করা সমীচীন হবে বলে চিঠিতে উল্লেখ করেছে। এমন পরিস্থিতে পেঁয়াজের আমদানির অনুমোদন (আইপি) প্রদানের অনুরোধ করা হয়েছে চিঠিতে।

রাষ্ট্রায়ত্ত বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) হিসাব অনুযায়ী, গতকাল প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৪৫-৫৫ টাকা। যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ৩৫-৪৫ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিপ্রতি দাম বেড়েছে ২৫ শতাংশ। 

কৃষক মামুন শেখ জানান, পেঁয়াজ আবাদ করে এবার তাঁদের লোকসান গুনতে হয়েছে। লোকসান কিছুটি কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা চলছে। এখন আমদানি হলে তাঁদের লোকসানের পাল্লা আরও ভারী হবে। ঈদের পর পেঁয়াজের বাজার ৯০০-১১০০ টাকায় নেমে আসবে। তাঁদের এলাকার কৃষক ও বেপারির কাছে বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজের মজুত রয়েছে। তার ঘরেই দুই হাজার মণ পেঁয়াজ মজুত রয়েছে।

তবে পেঁয়াজ আমদানিকারক শ্যামবাজারের মেসার্স রাজবাড়ি ভান্ডারের মালিক আবদুল মালেক বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে পর্যাপ্ত পরিমাণ পেঁয়াজ মজুত থাকলেও সরবরাহ কম হচ্ছে বাজারগুলোতে। এক থেকে দেড় সপ্তাহ আগেও তাদের বাজারে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজের দাম ছিল ২৮-৩০ টাকা। গতকাল তা ৪০-৪২ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    জাতীয় শোক দিবসে পেট্রোবাংলার শ্রদ্ধা

    ইউএস-বাংলার ব্যাংকক ফ্লাইট ১ সেপ্টেম্বর থেকে

    চার্জার ফ্যান-লাইটের বাজারে আগুন, লাগাম টানতে দাম নির্ধারণের উদ্যোগ

    দেশে ফিরল বিমানের টরন্টো রুটের প্রথম ফিরতি বাণিজ্যিক ফ্লাইট 

    ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের জিডিএস অংশীদার হিসেবে কাজ করবে ট্রাভেলপোর্ট

    বাংলাদেশ রেলওয়েকে ট্রলি উপহার দিল ইসলামী ব্যাংক

    অথচ এই ছবিতে থাকতে পারতেন ওয়ার্ন ও সাইমন্ডস

    রাশিয়া থেকে জ্বালানি তেল কিনবে মিয়ানমার

    উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলার শিকার সাংবাদিক

    ভারতকে বলেছি শেখ হাসিনা সরকারকে টেকাতে করণীয় সব করতে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    ডিম–মুরগির দাম বাড়লেও স্বস্তিতে নেই নরসিংদীর খামারিরা

    আসন্ন শীতেই তীব্র গ্যাস সংকটে পড়তে যাচ্ছে জার্মানি