Alexa
শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

শাল্লায় পানিবন্দী দুই লক্ষাধিক মানুষ

আপডেট : ১৯ জুন ২০২২, ১৮:৪০

শাল্লায় দিনদিন বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। ছবি: আজকের পত্রিকা উজানের পাহাড়ি ঢল ও ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় সুনামগঞ্জের শাল্লায় দিনদিন বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। এরই মধ্যে উপজেলার দুই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী অবস্থায় রয়েছে। উপজেলার ১০৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ১৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রয়েছে। দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানি ও খাবারের সংকট। বন্যার পানিতে ভেসে যাচ্ছে গরু-মহিষসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। এ ছাড়া লক্ষাধিক মানুষ বাড়িঘর ছেড়ে নৌকায় নৌকায় অবস্থান করছে বলে খবর পাওয়া গেছে। 

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, জেলার সুরমা, যাদুকাটা ও কুশিয়ারা নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড বলছে, ভারতের মেঘালয় ও আসাম সীমান্তে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থাকায় সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হতে পারে। এরই মধ্যে বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে, শাল্লা সদরসহ উপজেলার ১১৯টি গ্রাম। এতে উপজেলায় নৌপথ ও সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। শুধু তাই নয়, প্রবল স্রোতে জেলার উপজেলা এলজিইউডির প্রায় আটটি কালভার্ট ভেঙে গেছে। 

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১০৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাময়িকভাবে পাঠদান বন্ধ রয়েছে। বন্যার্ত মানুষের আশ্রয়ের জন্য প্রতিটি বিদ্যালয় আশ্রয়কেন্দ্রের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। 

আজ শনিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বন্যার পানিতে উপজেলার ১১৯টি গ্রামের বাড়িঘর ও রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে। সারা উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। খাবার রান্না ও স্যানিটেশন-ব্যবস্থা না থাকায় বিপাকে পড়েছে ওই সব এলাকার লোক। তাই বন্যার এমন ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পেতে স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সহায়তা চেয়েছে বন্যাকবলিত মানুষ। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয় ও কলেজে আশ্রয়কেন্দ্রের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া উপজেলার বন্যাকবলিত গ্রামগুলো পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু তালেব। 

শাল্লায় দিনদিন বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। ছবি: আজকের পত্রিকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবু তালেব বলেন, বন্যার্তদের ত্রাণ সহযোগিতায় ৫ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। উপজেলা সদরে কয়েক শ প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে। তবে উপজেলার প্রতিটি গ্রামে বন্যার্তদের সহযোগিতার জন্য উপজেলা প্রশাসনের কয়েকটি টিম কাজ করবে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ডাক চা শ্রমিকদের

    নন্দীগ্রামে রাস্তা খুঁড়ে রেখে লাপাত্তা ঠিকাদার, চরম দুর্ভোগে মানুষ

    লঘুচাপের প্রভাবে পায়রা বন্দরে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত, প্লাবিত নিম্নাঞ্চল

    মেঘনায় অস্বাভাবিক জোয়ারে পানি বৃদ্ধি, ১৫ গ্রাম প্লাবিত

    বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাড়ে আটকে ছিল লালমনিরহাট এক্সপ্রেস, ৬ ঘণ্টা পর চালু

    আবাদ শুরুর আগেই সারের কৃত্রিম সংকট

    বিসিএস ভাইভা প্রস্তুতি: ভালো উপস্থাপনা জরুরি

    চবির হলে ৪ ছাত্রলীগ নেত্রীর মধ্যে মারামারি, তদন্ত কমিটি গঠন

    ভেন্টিলেশনে সালমান রুশদি, কথা বলতে পারছেন না

    আষাঢ়ে নয়

    তুইও মরবি, আমাদেরও মারবি

    নতুন পরিচয়ে সোহানা সাবা