Alexa
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

‘তোর কারণে নকল করতে পারিনি’, বলেই শিক্ষককে পেটালেন প্রাক্তন ছাত্র

আপডেট : ২৮ মে ২০২২, ১৮:৫০

সাবেক শিক্ষার্থীর মারধরের শিকার হয়ে হাসপাতালে ভর্তি শিক্ষক। ছবি: আজকের পত্রিকা নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় ২০১৭ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেননি। সেই ক্ষোভ ঝাড়লেন আজ। আজ শনিবার দুপুরে বিদ্যালয়ের প্রবেশমুখে এক শিক্ষককে পিটিয়েছেন তিনি। 

ঘটনাটি ঘটেছে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলায়। মারধরের শিকার হেলাল উদ্দিন টুমচর আসাদ একাডেমির ভৌতবিজ্ঞানের শিক্ষক। সদর উপজেলার মান্দারী ইউনিয়নের গান্ধর্বপুর এলাকার লকিয়ত উল্যার ছেলে তিনি। অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর নাম মুরাদ হোসেন (২২)। তিনি এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রাক্তন শিক্ষার্থী এবং টুমচর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের আবুল কাসেমের ছেলে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রতিদিনের মতো বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে বিদ্যালয়ে আসেন হেলাল উদ্দিন। বিদ্যালয়ে প্রবেশমুখে পথরোধ করে দাঁড়ান আগে থেকে ওত পেতে থাকা মুরাদ ও তাঁর ৬-৭ জন সহযোগী। এভাবে পথ আটকানোর কারণ জানতে চাইতেই তাঁরা লাঠিসোঁটা নিয়ে শিক্ষকের ওপর হামলা করেন। এ সময় মুরাদ বলতে থাকেন, ‘২০১৭ সালে তোর কারণে টেস্ট পরীক্ষায় অংশ নিতে পারিনি। তোর কারণে বিদ্যালয়ে থাকার সময় পরীক্ষায় নকল করতে পারিনি। আজ তোকে পাইছি।’ এই বলে কিল-ঘুষি-লাথি দিয়ে মারাত্মক জখম করেন শিক্ষককে। এ সময় শিক্ষকের মোটরসাইকেলটিও ভাঙচুর করেন তাঁরা। অন্য শিক্ষকেরা এসে তাঁকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘২০১৭ সালে টেস্ট পরীক্ষায় ফেল করার কারণে মুরাদ পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি। ওই সময়ে দায়িত্বরত অধ্যক্ষ তাঁকে সুযোগ দেয়নি। আমি কোনো অন্যায় করিনি। তারপরও মুরাদের নেতৃত্ব ৬-৭ জন সন্ত্রাসী আমার ওপর হামলা করে এবং আমার মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে। হামলাকারী সবাইকে না চিনলেও মুরাদকে চিনতে পেরেছি।’ 

এদিকে ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত মুরাদ হোসেনের মোবাইল ফোনের নম্বর বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। 

এ নিয়ে বিদ্যালয়ের এক অভিভাবক সদস্য সৈয়দ মোজাম্মেল হোসেন বলেন, ‘ছাত্র হয়ে শিক্ষকের ওপর এভাবে হামলা মেনে নেওয়া যায় না। জড়িতদের আইনের আওতায় আনা উচিত।’ 

টুমচর আসাদ একাডেমি অধ্যক্ষ ফারজানা নুর বলেন, ‘বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। প্রাক্তন ছাত্র কীভাবে শিক্ষকের ওপর হামলা করে! আমরা বিদ্যালয়ে সব শিক্ষক বসে আজই সিদ্ধান্ত নিব। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।’ 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সদর থানার ওসি মোস্তফা কামাল জানান, বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীদের মাধ্যমে তিনি শুনেছেন। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    চমেকের পাশে নির্মিত হবে বার্ন হাসপাতাল, নথিপত্র গেছে চীনে

    অধ্যাপক রতন সিদ্দিকীর বাসায় হামলার নিন্দা মহিলা পরিষদের 

    মঠবাড়িয়ায় বাস চাপায় নিহত ২, আহত ৩ 

    ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বাংলাদেশি যুবক

    সাভারে শিক্ষক হত্যা: জিতুর কথিত প্রেমিকাও স্কুল থেকে বহিষ্কৃত

    বৃষ্টিতে প্রাণ ফিরে পেয়েছে সুবলং ঝরনা

    কপর্দকহীন ও উদভ্রান্তের মতো কথা বলা এখন বিএনপির মজ্জাগত: তথ্যমন্ত্রী

    দুই বন্ধু ঘুরতে গিয়ে একজনের মৃত্যু, গুরুত্বর আহত অপরজন

    পদ্মা সেতু দেখতে এসে জাজিরা প্রান্তে বাসের ধাক্কায় নিহত ১, আহত ১৩

    করোনা: শনাক্তের হার কমলেও এক দিনে মৃত্যু ৬

    ডাকাতির প্রস্তুতির সময় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার ৩: পুলিশ

    চমেকের পাশে নির্মিত হবে বার্ন হাসপাতাল, নথিপত্র গেছে চীনে