Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

৪০ কন্যার বিবাহোত্তর সংবর্ধনা, জমকালো আয়োজন

আপডেট : ২৮ মে ২০২২, ১৬:৫৮

দিনাজপুর শহরের গ্রিন ভিউ কনভেনশন সেন্টারে গতকাল ৪০ জন এতিম কন্যার বিবাহোত্তর সংবর্ধনা। ছবি: আজকের পত্রিকা দিনাজপুরে ৪০ জন এতিম কন্যার বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে শহরের গ্রিন ভিউ কনভেনশন সেন্টারে এই সংবর্ধনার আয়োজন করে লায়ন্স ক্লাব, শিশু নিকেতন ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম। বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এম এ মজিদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন শিশু নিকেতনের সভাপতি মোজাফ্ফর আলী মিলন। ধন্যবাদ দেন দিনাজপুর লায়ন্স ক্লাবের প্রেসিডেন্ট সৈয়দ মিজানুর রহমান মুন্না। উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকীসহ প্রশাসন ও সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, ‘অনুষ্ঠানে আমরা যারা উপস্থিত আছি, তাদের অনেকেই যৌতুকবিহীন বিয়ে করিনি। কিন্তু আজকে এখানে যে ৪০ জন যুবক তাদের নতুন জীবন শুরু করছে। তারা কিন্তু যৌতুক ছাড়াই তাদের দাম্পত্য জীবন শুরু করছে। এটা সমাজের জন্য দারুণ বার্তা।’ এ সময় তিনি তাঁদের আশ্বস্ত করেন, কর্মসংস্থানের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাঁদের সব রকম সহযোগিতা করা হবে।

শিশু নিকেতনের সভাপতি মোজাফ্ফর আলী মিলন বলেন, ‘বরাবরের মতো আমরা এবারও একত্রে ৪০ জন মেয়ের বিয়ের আয়োজন করেছি। এটা নিঃসন্দেহে আমাদের জন্য অনেক আনন্দের।’

বিয়ের কনে শিশু নিকেতনে বেড়ে ওঠা আরিফা বানু বলেন, ‘আমরা দারুণ আনন্দিত। কখনোই কল্পনাও করিনি এত জাঁকজমকভাবে আমাদের বিয়ে হবে। এত বিশাল আয়োজন হবে। এটা আমাদের সারা জীবন মনে থাকবে।’

অনুষ্ঠানে বর-কনে ও তাঁদের আত্মীয়-স্বজনসহ প্রায় দেড় হাজারের মতো অতিথি অংশ নেন। তাঁদের সবার জন্য ভোজনের আয়োজন করা হয়। এ ছাড়া তাঁরা যেন সুন্দরভাবে চলতে পারেন, সে জন্য অনুষ্ঠানে তাঁদের সেলাই মেশিন, বাইসাইকেল, গৃহস্থালি সামগ্রী, নগদ অর্থসহ বিভিন্ন উপঢৌকনও দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

উল্লেখ্য, দিনাজপুর লায়ন্স ক্লাব ১৯৭৯ সাল থেকে সমাজের অবহেলিত এতিম কন্যাশিশুদের নিয়ে কাজ করে আসছে। তারা এতিম কন্যাশিশুদের শিশু নিকেতনের মাধ্যমে তাদের আবাসন, পড়াশোনাসহ চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। শিশু শ্রেণি থেকে এইচএসসি পর্যন্ত পড়াশোনার সব ব্যবস্থা করা হয়। শুধু তা-ই নয়, তারা কন্যাদের যাঁদের আর্থিক সংগতি নেই, তাঁদের বিবাহের ব্যবস্থাও করে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে আজ পর্যন্ত ১৭৪ জন মেয়ের আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে যৌতুকবিহীন বিয়ের আয়োজন করে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    মহাসড়কে অবৈধ পার্কিং যানজটে অতিষ্ঠ মানুষ

    করোনা বাড়লেও মাস্কে অনীহা

    বন্যার ক্ষত ৫০ কিমি সড়কে

    পশুহাটে মিলেমিশে চাঁদাবাজি

    পাহাড়ে সেনা ক্যাম্প সম্প্রসারণের দাবি

    তিন দিনেও মামলা নেয়নি থানা-পুলিশ

    ক্যাটল ট্রেনে প্রায় এক হাজার গরু-ছাগল আসল ঢাকায়

    ইংল্যান্ডের নতুন ধারার ক্রিকেটকে চ্যালেঞ্জ জানালেন স্টিভ স্মিথ

    সিদ্ধিরগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, প্রেমিকসহ গ্রেপ্তার ৪

    বাস থেকে যাত্রীকে ফেলে দিয়ে হত্যা, চালক-হেলপার আটক

    আমেরিকার নিষেধাজ্ঞায় কষ্ট পাচ্ছে সাধারণ মানুষ, বিবেচনার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর

    পাটুরিয়ায় ভোগান্তি ছাড়াই ঘাট পারাপার, চাপ নেই গাড়ির