Alexa
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২

সেকশন

epaper
 

ছাত্রলীগ ছাড়া প্রশাসন চালাতে পারবেন?

আপডেট : ২৬ মে ২০২২, ১২:১৩

এস এম সজীব হোসাইন ‘আপনি হলে এসেছেন আর আমি জানি না, বিষয়টা কেমন না? প্রক্টর স্যারও হলে আসলে আমাকে ফোন দেয়। আপনি আমাকে ইনফর্ম (জানিয়ে) করে হলে আসতেন। আমাকে না নিয়ে আপনি কেন এখানে ঢুকলেন।’ গত মঙ্গলবার রাতে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) কবি কাজী নজরুল ইসলাম হল পরিদর্শনের সময় হলের প্রভোস্টদের ওপর এভাবে চড়াও হন হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম সজীব হোসাইন। তাঁকে নিয়ে হলে ঢুকতে হবে কেন জানতে চেয়ে সহকারী প্রভোস্ট শেখ মো. মাসুম বলেন, ‘তুমি আমার (প্রশাসনের) বডিতে কোথায়?’

হল ছাত্রলীগ সভাপতি সজীব বলেন, ‘ছাত্রলীগ কি প্রশাসনের বডি (সম্পৃক্ত) না? উইথআউট ছাত্রলীগ (ছাত্রলীগ ছাড়া) আপনারা কি প্রশাসন চালাতে পারবেন? এরা (অনুসারীরা) যদি এখানে একটা ঝামেলা করে, তাহলে আপনি কী করবেন?’

ওই রাতের সেই বাগ্‌বিতণ্ডার ৯ মিনিট ২ সেকেন্ডের একটি রেকর্ডিং থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা হলের ডাইনিং রুমে মিটিং শুরু করেন। এ সময় দুই সহকারী প্রভোস্ট শেখ মো. মাসুম ও মো. শরিফুল ইসলাম হলে আসেন। শিক্ষার্থীরা এত রাতে কী করছেন তা জানতে চান। কিছুক্ষণ পরই সেখানে হাজির হন কবি নজরুল হল ছাত্রলীগের সভাপতি সজীব। পরিদর্শনরত শিক্ষকদের সঙ্গে তাঁর উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়।

কিছু সময় পর ঘটনাস্থলে আসেন আরেক সহকারী প্রভোস্ট রাকিবুর রহমান। তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘এমন তো না যে আমরা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে এসে কোনো কাজ করছি। আমরা সবাই আমাদের দায়িত্ববোধের জায়গা থেকেই কাজ করছি।’

রাতে কী হয়েছিল, জানতে চাইলে সহকারী প্রভোস্ট শেখ মো. মাসুম বলেন, ‘কিছুদিন আগে ক্যানটিন ম্যানেজার জাহিদ জানিয়েছেন, তিনি আর ক্যানটিন চালাবেন না। সেই পরিপ্রেক্ষিতে রাতে আমি ও শরিফুল ইসলাম সেখানে যাই। হলে ঢুকতেই ডাইনিংয়ে ছাত্রদের জটলা দেখে তাদের সঙ্গে কথা বলি। এরপর সেখানে যা হয়েছে তা আমার সহকর্মী ও উপস্থিত সবাই জানে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানিয়েছি। তাঁরা এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেবেন বলে আশা করি।’

প্রভোস্টদের ওপর চড়াও হওয়ার বিষয়ে হল ছাত্রলীগ সভাপতি সজীব হোসাইন প্রথমে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। পরে আবার বলেন, ‘না না, এসব ভিত্তিহীন।’
এ ব্যাপারে শেকৃবির প্রভোস্ট কাউন্সিলের আহ্বায়ক ও সংশ্লিষ্ট হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘বিষয়টা আমরা জেনেছি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি, ছাত্রলীগের যেকোনো পদধারীই হোক না কেন, এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ছাত্রলীগ সভাপতিকে ফোন দিয়ে হলে যান কি না, এ প্রশ্নের জবাবে প্রক্টর ড. মো. হারুনুর রশিদ সুমন বলেন, ‘যে এই কথা বলেছে, তার ফোন নম্বরই আমার কাছে নেই। আর প্রশাসনিক দায়িত্ব পালনের জন্য তাকে কেন আমি ফোন দিতে যাব।’ ২৪ মে রাতের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘মৌখিকভাবে বিষয়টি আমি অবগত হয়েছি। সংশ্লিষ্ট হলের প্রভোস্টদের লিখিতভাবে অভিযোগ জানাতে বলা হয়েছে। এরপর বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ 

ছাত্রলীগ সম্পর্কিত খবর পেতে - এখানে ক্লিক করুন

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    সোহেল চৌধুরী হত্যা: আশীষ চৌধুরীর জামিন প্রশ্নে রুল জারি

    খাদ্যাভ্যাস ঠিক থাকলে হাসপাতালে যেতে হয় না: আরেফিন সিদ্দিক

    উন্নয়ন ফি নিজের কাছে রাখায় ঢাবি কর্মকর্তার পদাবনতি

    পাকুন্দিয়া পৌরসভার প্রায় ১৭ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

    করোনা সংক্রমণ বাড়ায় অনলাইন ক্লাসে ফিরছে বুয়েট

    ইঞ্জিন কেনায় দুর্নীতির অভিযোগে রেল ভবনে দুদকের অভিযান

    নির্ধারিত সময়ের আগেই পদ্মা সেতুর খরচ উঠে আসবে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী

    ‘পুলিশ এখন জনকল্যাণে নয়, আওয়ামী লীগের নিরাপত্তা কল্যাণে নিয়োজিত’

    সোহেল চৌধুরী হত্যা: আশীষ চৌধুরীর জামিন প্রশ্নে রুল জারি

    বাইডেনের চোখে সব নষ্টের গোড়া পুতিন

    ব্র্যাক ব্যাংক ও জেডটিই করপোরেশনের মধ্যে চুক্তি

    বড় কোনো পরিবর্তন ছাড়াই জাতীয় সংসদে বাজেট পাস