Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

ঝড়ে উড়ে গেল বিদ্যালয় ভবন, খোলা আকাশের নিচে চলছে পাঠদান

আপডেট : ২৫ মে ২০২২, ২০:০৩

ভবনের সামনে খোলা আকাশের নিচে জড়ো হওয়া শিক্ষার্থীরা। ছবি: আজকের পত্রিকা চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চরম্বা নাছির মোহাম্মদ পাড়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরো ভবনের টিন কালবৈশাখী ঝড়ে উড়ে গেছে। এখন শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে খোলা আকাশের নিচে। এদিকে মেরামতের সহযোগিতা চেয়ে বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করেছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

সরেজমিন পরিদর্শনে গিয়ে জানা গেছে, ২০১৫ সালে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের পরিচালক মোহাম্মদ ফিজনূর রহমানের প্রচেষ্টায় লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মো. সাইফুল আলমসহ এলাকাবাসীর সহযোগিতা নিয়ে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। এলাকাবাসীরা বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার জন্য জায়গায় দেন। বর্তমানে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২৪০ জন। শিক্ষক রয়েছেন ৪ জন। কয়েক দিন আগে রাতে হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড়ে বিদ্যালয়ের টিনের পুরো ভবনটি উড়ে যায়। ফলে ভবনে শ্রেণি কার্যক্রম চলার কোনো সুযোগ নেই। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষাকার্যক্রম ব্যাঘাত ঘটছে। 

বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, কালবৈশাখী ঝড়ে বিদ্যালয়ের পুরো ভবনের টিন উড়ে গেছে। রোধ-বৃষ্টি-ঝড়ে খোলা আকাশের নিচে কষ্টে ক্লাস করতে হচ্ছে। 

বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য মফিজুর রহমান জানান, ‘টিনের ছাউনি দিয়ে ভবনটি হওয়ার কারণে ঝড়ে সমস্যায় পড়তে হয়। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে বিদ্যালয়টির জন্য নতুন একটি পাকা ভবন তৈরির দাবি জানাচ্ছি।’ 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিমল কিশোর চৌধুরী বলেন, ‘এরই মধ্যে এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও শিক্ষা কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে জানানো হয়েছে। ঝড়ে ভবনের টিন উড়ে যাওয়ার কারণে খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাতে হচ্ছে।’ 

বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মো. সাইফুল আলম বলেন, ‘২০১৫ সালে লোহাগাড়ার তৎকালীন ইউএনও মোহাম্মদ ফিজনূর রহমানের আন্তরিক প্রচেষ্টা ও এলাকাবাসীর সহযোগিতা নিয়ে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করা হয়। কয়েক দিন আগে কালবৈশাখী ঝড়ে আমাদের বিদ্যালয়ের টিনের পুরো ভবনটি ভেঙে গেছে। ছাত্র-ছাত্রীদের খোলা আকাশের নিচে ক্লাস করাতে হচ্ছে। এতে শিক্ষার মানে চরম ব্যাঘাত হচ্ছে।’ 

সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মুসলিম উদ্দিন বলেন, ‘বিদ্যালয়টি প্রতি বছরে ভালো ফলাফল অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। কালবৈশাখী ঝড়ে পুরো টিনের ভবনটি গুঁড়িয়ে গেছে। খোলা আকাশের নিচে ছাত্র-ছাত্রীদের পাঠদান সত্যিই অনেক কষ্টদায়ক। আমরা এরই মধ্যে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    মাদ্রাসায় যাওয়ার পথে পানিতে ডুবে ভাইবোনের মৃত্যু

    বিএম ডিপো থেকে পণ্যভর্তি অক্ষত কনটেইনার সরানো শুরু

    পতেঙ্গা কনটেইনার টার্মিনাল চালু হচ্ছে এ মাসেই

    ‘হাইড্রোজেন পার অক্সাইড থেকেই সীতাকুণ্ডের ডিপোতে বিস্ফোরণ’

    শিশুর মরদেহ নিয়ে থানায় হাজির হলেন মা

    চবির অডিও কেলেঙ্কারি: চার মাস পর প্রতিবেদন জমা দিল তদন্ত কমিটি

    সিদ্ধিরগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, প্রেমিকসহ গ্রেপ্তার ৪

    বাস থেকে যাত্রীকে ফেলে দিয়ে হত্যা, চালক-হেলপার আটক

    আমেরিকার নিষেধাজ্ঞায় কষ্ট পাচ্ছে সাধারণ মানুষ, বিবেচনার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর

    পাটুরিয়ায় ভোগান্তি ছাড়াই ঘাট পারাপার, চাপ নেই গাড়ির

    ছেলেমেয়েকে হারিয়ে নির্বাক রহিচ দম্পতি 

    মেঘনা ব্যাংকের গ্রাহকেরা এখন অ্যাকাউন্ট থেকে নগদে টাকা পাঠাতে পারবেন