Alexa
রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

পার্বত্য অঞ্চলে বিমানবন্দর নির্মাণের সুপারিশ

আপডেট : ২৪ মে ২০২২, ১২:৩৮

পার্বত্য অঞ্চলে বিমানবন্দর নির্মাণের সুপারিশ পর্যটনশিল্পের বিকাশে পার্বত্য খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি ও বান্দরবানের যেকোনো উপযুক্ত স্থানে ছোট পরিসরে একটি বিমানবন্দর স্থাপনের সুপারিশ করেছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। এ ছাড়া সেখানে হাউজিং প্রকল্প গ্রহণের কথাও বলছে তারা। গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদ ভবনে পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয় বলে সংসদ সচিবালয় থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এতে বলা হয়, বৈঠকে কাপ্তাই লেককে মাছ চাষের জন্য অধিক উপযোগী করে গড়ে তোলা, জনগণের যাতায়াত সুবিধা এবং পর্যটনশিল্প বিকাশের লক্ষ্যে তিন পার্বত্য জেলায় রেললাইন স্থাপনসহ পার্বত্য জেলার যেকোনো উপযুক্ত স্থানে ছোট পরিসরে একটি বিমান বন্দর নির্মাণ, তিন পার্বত্য জেলায় হাউজিং প্রকল্প গ্রহণসহ জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

বৈঠকে তিন পার্বত্য জেলায় রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা চালুর বিষয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে একটি মহাপরিকল্পনা (মাস্টার প্ল্যান) গ্রহণ করা হয়েছে এবং গৃহীত মহাপরিকল্পনার আওতায় তিন পার্বত্য জেলায় রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা চালুর পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে বলে কমিটিকে জানানো হয়।

তিন পার্বত্য জেলার যেসব জমি ব্যক্তি পর্যায়ে বনায়ন করার জন্য লিজ দেওয়া হয়েছে কিন্তু এখন পর্যন্ত বনায়ন করা হয়নি, সেই জমির বর্তমান অবস্থা কমিটিকে আগামী বৈঠকে জানানোর জন্য সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকদের উপস্থিত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।

তিন পার্বত্য জেলায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বাসভবন/কোয়ার্টার নির্মাণ এবং পরিকল্পিত হাউজিংয়ে প্রকল্প গ্রহণসহ পার্বত্য জেলায় বিদ্যুতায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করে শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আনার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে সংসদীয় কমিটি।

কমিটির সভাপতি দবিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন কমিটির সদস্য পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং, এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এবং বাসন্তী চাকমা।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ১১ শ কেজি ‘বিগ বস’র দাম ১৫ লাখ টাকা

    শিক্ষক-সংকটে পাঠদান ব্যাহত

    ফের দায়িত্বে বিতর্কিত ঠিকাদার

    বিপজ্জনক পণ্য পরিবহন করছে না শিপিং এজেন্টরা

    গরুর চর্মরোগ, দুশ্চিন্তা খামারির

    রেলক্রসের ওভারপাসে বরাদ্দ বাড়ল ১৫০ কোটি টাকা

    বিরলে নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু 

    বেনাপোল নিয়ে যা বলছে ভারতের হাইকমিশন

    বড়লেখায় নৌকা ডুবে নিখোঁজ ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার  

    অন্যের পক্ষে কোরবানি করার বিধান

    ঈদের আগে পদ্মা সেতুতে চলছে না মোটরসাইকেল

    হিজবুল্লাহর ৩টি ড্রোন ভূপাতিত করার দাবি ইসরায়েলের