Alexa
রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

বিশ্ববিদ্যালয়ের আমবাগান ‘দখল’ ছাত্রলীগ নেতার

আপডেট : ২৩ মে ২০২২, ১৪:০৮

বিশ্ববিদ্যালয়ের আমবাগান ‘দখল’ ছাত্রলীগ নেতার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের দুই নেতা লিজ (ইজারা) ছাড়াই আমবাগান দখল করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি প্রকল্প বিভাগ বলছে, তারা কোনো বাগান লিজ দেয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গত শনিবার সন্ধ্যায় পশ্চিমপাড়ায় গোদাগাড়ী বাগানে আম পাড়তে গেলে ছাত্রলীগের দুই নেতা তাঁদের বাধা দেন। দুজন বলেন, বাগান লিজ নেওয়া হয়েছে। এমনকি তাঁরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে উচ্চবাচ্য করেন। এ সময় ঘটনাস্থলে থাকা এক সংবাদকর্মীকেও হেনস্তা করা হয়।

অভিযুক্তরা হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সোহরাওয়ার্দী হল ছাত্রলীগের সহসভাপতি সাখাওয়াত হোসেন শাকিল এবং শহীদ হবিবুর রহমান হল ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজোয়ান গাজী মহারাজ। তাঁরা উভয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার অনুসারী।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সন্ধ্যায় কয়েকজন শিক্ষার্থী পশ্চিমপাড়া এলাকায় আম পাড়তে যান। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছাত্রলীগ নেতা শাকিল ও মহারাজ তাঁদের ফল পাড়তে নিষেধ করেন। ক্যাম্পাসের অন্য জায়গায় গিয়ে পারতে বলেন। তাঁরা বাগান লিজ নিয়েছেন বলেও জানান।

এই নিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বাগ্‌বিতণ্ডা শুরু হলে ছাত্রলীগ নেতারা তাঁদের মারতে উদ্যত হন। এ সময় ঘটনাস্থলে থাকা সংবাদকর্মী তাঁদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তাঁর দিকেও তেড়ে আসেন।

ভুক্তভোগী সাংবাদিক লাবু হক আরটিভি অনলাইনের রাবি প্রতিনিধি এবং রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রচার সম্পাদক। তিনি বলেন, ‘আমার কয়েকজন ছোট ভাই আম পাড়তে গিয়েছিল। আমি পাশেই ছিলাম। বাগান লিজ নিয়ে তাদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হচ্ছিল। আমি বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে গেলে আমাকেও মারতে আসে।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা শাকিল বলেন, ‘ছোটখাটো একটা ঝামেলা হয়েছিল। সেটা সেখানেই মিটে গেছে। আমরা প্রথমে চিনতে পারিনি, পরে দেখি তারা আমাদের পরিচিত ছোট ভাই। আর সেখানে তাদের সঙ্গে সাংবাদিকও ছিল।’

সাংবাদিককে হেনস্তার বিষয়টি অস্বীকার করে শাকিল বলেন, ‘সাংবাদিকের সঙ্গে কোনো ঝামেলা হয়নি।’

যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘আমি বিষয়টি জেনেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো আমবাগান লিজ নেয়নি ছাত্রলীগ। আমি তাঁদের সঙ্গে কথা বলেছি। এখন তাঁরা ক্যাম্পাসে নেই। আগামীকাল বিষয়টি নিয়ে উভয় পক্ষের সঙ্গে বসব।’

বাগান লিজের প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম বলেন, ‘বাগানটি এখনো লিজ দেওয়া হয়নি, তবে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। আমরা কাকে লিজ দেব এখনো ঠিক করিনি। লিজ না পেয়েই তারা লিজ নিয়েছে বলাটা এবং শিক্ষার্থীদের মারতে উদ্যত হওয়াটা অন্যায়। ঘটনার পরেই আমরা সেখানে গিয়েছিলাম, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছি এবং বলে দিয়েছি যাতে তারা আর সেখানে না যায়। এ ছাড়া তাদের আগামীকাল সহ-উপাচার্য দপ্তরেও ডেকেছি।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    কামারপাড়ায় বেড়েছে ব্যস্ততা

    ৩০ মণ ওজনের ‘সেকেন্দার’

    চাহিদার চেয়ে পশু বেশি

    অবৈধ যানে বাড়ছে দুর্ঘটনা

    সম্প্রসারণ কাজে ধীরগতি, দুর্ভোগ

    প্রাচীন গ্রাম বটগোহালী

    ত্রাণ বিতরণের নামে নাটক করেছে বিএনপি: কাদের

    বিরলে নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু 

    বেনাপোল নিয়ে যা বলছে ভারতের হাইকমিশন

    বড়লেখায় নৌকা ডুবে নিখোঁজ ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার  

    অন্যের পক্ষে কোরবানি করার বিধান

    ঈদের আগে পদ্মা সেতুতে চলছে না মোটরসাইকেল