Alexa
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

লন্ডভন্ড কুষ্টিয়া ও ঝিনাইদহ

আপডেট : ২২ মে ২০২২, ১৩:২৩

ঝড়ে বিধ্বস্ত একটি বাড়ি। গতকাল কুষ্টিয়া সদর উপজেলার পাটিকাবাড়ি এলাকা থেকে তোলা।  ছবি: আজকের পত্রিকা কুষ্টিয়া ও ঝিনাইদহে ঝড়ের আঘাত ও বৃষ্টিতে অনেক গ্রাম লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। আম, লিচুসহ বিভিন্ন মৌসুমি ফলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। উড়ে গেছে শত শত ঘরের টিনের চালা। উপড়ে পড়েছে অনেক গাছ। গতকাল শনিবার ভোরের দিকে শুরু হয় এ ঝড়। এদিকে, ঝড়ের সময় বজ্রপাতে এক নারীর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ ছাড়া ঝড়ের কবলে পড়ে আহত হয়েছেন চারজন।

কুষ্টিয়া: গতকাল ভোরের ঝড় ও বৃষ্টিতে জেলায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। লন্ডভন্ড হয়ে গেছে ঘরবাড়ি ও বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। আম, লিচুসহ বিভিন্ন মৌসুমি ফলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। উড়ে গেছে শত শত ঘরের টিনের চালা। গাছের ডাল পড়ে তার ছিঁড়ে অনেক স্থানে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। প্রায় ৪০ থেকে ৪৫ মিনিটের ঝড়ে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় শত শত গাছপালা ভেঙে রাস্তায় পড়ে আছে।

জানা গেছে, ঝড়ে শত শত হেক্টর জমির আম, কাঁঠাল, লিচুসহ বিভিন্ন মৌসুমি ফল ও ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার আমবাগানের মালিক জিয়াউর বলেন, বাগানের সব আম ঝড়ে পড়ে গেছে। আর এক সপ্তাহ পর আম পাড়া শুরু হতো। কিন্তু ঝড়ের তাণ্ডবে আমার ব্যাপক ক্ষতি হয়ে গেল। কৃষক মো. লিটন বলেন, পেঁপে বাগানের খুব ক্ষতি হয়েছে। বেশির ভাগ পেঁপেগাছ উপড়ে গেছে।

আম ব্যবসায়ী হানিফ হোসেন বলেন, আমি প্রতিবছর বাগান ধরে আম কিনি। এ বছরও কিনেছি। ঝড়ে সব আম পড়ে গেছে। এখন লাভ তো দূরের কথা, আসল টাকাও উঠবে না।

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক জানে আলম বলেন, ঝড়ের কারণে সড়কের দুপাশে শত শত গাছের ডালপালা ভেঙে পড়েছে। কিছু কিছু জায়গায় এলাকাবাসীর সহায়তায় আবার কোথাও কোথাও ফায়ার সার্ভিসের টিম গাছগুলো সড়ক থেকে সরিয়ে নিচ্ছে।

কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (টেকনিক্যাল) মো. মোকসেমুল হাকিম বলেন, ঝড়ের তাণ্ডবে পুরো জেলা লন্ডভন্ড। বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে এবং গাছের ডাল পড়ে তার ছিঁড়ে অনেক স্থানের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে আছে। আমরা মেরামতের কাজ করছি।

কুষ্টিয়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক সুশান্ত কুমার প্রামাণিক বলেন, ‘ঝড়ে আম, লিচুসহ বিভিন্ন মৌসুমি ফল ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তাৎক্ষণিক ফসলের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা যায়নি। তবে কৃষি বিভাগের লোকজন মাঠে গিয়ে ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয়ে কাজ করছেন।’

ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহে ঝড়ে গাছপালা ভেঙে পড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ের সময় বজ্রপাতে মাঠে কাজ করা রুপা (৩২) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি শৈলকুপার কুলচারা গ্রামের গোলাম নবীর (৩৭) স্ত্রী। এ সময় নবীও আহত হন। এ ছাড়া সদর উপজেলার ডেফলবাড়িয়া গ্রামে বজ্রপাতে দুটি মহিষ মারা গেছে।

জানা গেছে, ঝড়ে সদর উপজেলার গোয়ালপাড়া, ক্যাডেট কলেজ সংলগ্ন সড়ক, কালীগঞ্জে বারোবাজার, রঘুনাথপুর, কোটচাঁদপুরের এলাঙ্গীসহ বিভিন্ন স্থানে রাস্তায় ও রাস্তার পাশে ভেঙে পড়েছে ছোটবড় শতাধিক গাছ। এতে সকাল ৬টা থেকে বন্ধ ছিল ঝিনাইদহ-যশোর সড়কে যান চলাচল। পরে গাছগুলো সড়ক থেকে সরালে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। ঝড়ে চারজন আহত হয়েছেন। এ ছাড়া ঝড়ের সময় সদর ও কালীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় খুঁটি ভেঙে ও তার ছিঁড়ে বন্ধ হয়ে যায় বিদ্যুৎ সংযোগ।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ব্রহ্মপুত্রের ভাঙনে দিশেহারা

    সম্মেলন দ্বিতীয়বার স্থগিত করায় ক্ষোভ নেতা-কর্মীদের

    গবাদিপশুর দাম নিয়ে শঙ্কায় খামারিরা

    বন্যায় ভেসে গেছে ১১০৪ পুকুরের মাছ

    চাচাতো ভাইকে পিটিয়ে হত্যা

    সংসদ সদস্য অবরুদ্ধ কমিটির পর মুক্ত

    মেগা প্রকল্পগুলো দুর্নীতি আর টাকা পাচারের উৎস: টুকু

    মুকসুদপুরে ইউসিবি ব্যাংকের ২১৮ তম শাখার যাত্রা শুরু 

    শিক্ষক হত্যা: অভিযুক্ত জিতু ও তাঁর বাবার খোঁজ নেয়নি কেউ 

    ঈদের আগে বেতন-বোনাস পরিশোধে জাপা চেয়ারম্যানের অনুরোধ 

    মেঘনা নদীতে লঞ্চঘাট থেকে ১৮০০ লিটার চোরাই ডিজেল জব্দ

    বীর মুক্তিযোদ্ধার মেয়ের ৫ কোটি টাকার মানহানি মামলা