Alexa
রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

রাজনৈতিক দলগুলোকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানানো হবে: সিইসি

আপডেট : ২০ মে ২০২২, ১৮:০৮

সাভারে আজ শুক্রবার ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল। ছবি: আজকের পত্রিকা দু-এক মাসের মধ্যে বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দলকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানানো হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। সাভারে আজ শুক্রবার ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের উদ্বোধনী আয়োজনে উপস্থিত হয়ে এ কথা বলেন তিনি।

শুক্রবার সকাল ১০টায় সাভার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের উদ্বোধন হয়। ঢাকা সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিস ও সাভার উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি সব রাজনৈতিক দলকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানানোর কথা বলেন।

কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘অচিরেই বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দলকে আহ্বান জানাব সংলাপে বা আলোচনায় বসার জন্য। ঠিক করে বলতে পারছি না। হয়তো দু-এক মাসের মধ্যেই আমরা আলোচনায় বসতে পারি।’ 

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) নিয়ে সিইসি বলেন, ‘ইভিএমের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে আমরা কাজ করছি। ইভিএমের সক্ষমতা কতটুকু দরকার, আরও কী কী করা যায়, (এ নিয়ে) আমরা আরও কিছু সভা-টভা করব। এর পর আমরা এর সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করব। আমি একা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারব না।’ ৩০০ আসনে ইভিএমে ভোটগ্রহণ সম্ভব কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এখনই বলা সম্ভব নয়। নির্বাচন কমিশনকে সর্বোচ্চ স্বাধীনতা দেওয়া হবে বলে আশা করছি।’ 

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নির্বাচন কমিশনের সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার। তিনি বলেন, ‘ভোটার তালিকা হালনাগাদ আজ শুরু হয়েছে, যা বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের সাংবিধানিক ম্যান্ডেট। ভোটার তালিকা প্রণয়ন এর অন্যতম মূল কাজ। এ জন্য আমরা তিন ধরনের তথ্য গ্রহণ করছি। ভোটার তালিকা প্রণয়ন করা হবে ২০২৩ সালের ২ মার্চ। এই ভোটার তালিকা দিয়েই কিন্তু আগামী জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তাই এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সরকারের নির্বাহী যারা আছেন, তাঁরা নির্বাচন কমিশনকে সহযোগিতা করার জন্য বাধ্য। আপনারা অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে ভোটার তালিকা প্রণয়নের কাজ করবেন। ট্রান্সজেন্ডার ও নিষিদ্ধপল্লির মা-বোনদেরও কিন্তু এই তালিকায় আনার নির্দেশনা দিয়েছি। কীভাবে নিয়ে আসবেন, সে বিষয়ে আমরা প্রশিক্ষণও দিয়েছি।’

হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, ‘সাভারে প্রায় ৩৮০ জন তথ্যসংগ্রহকারী, ৭৬ জন সুপারভাইজার, সরকারি কর্মকর্তা ও রেজিস্ট্রেশন অফিসার আছেন। সংবিধানে বলা আছে, ভোটার তালিকা হালনাগাদ করতে বাড়ি বাড়ি যেতে হবে। আমরা মনে করি, এই কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে এবং আমরা জাতিকে একটি সুন্দর পরিচ্ছন্ন ভোটার তালিকা উপহার দিতে পারব।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার, ঢাকা জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনির হোসেন, সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, সাভার পৌর মেয়র আব্দুল গণি, সাভারের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলামসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    অবাধ তথ্য প্রবাহের সুবর্ণ সময় পার করছে বাংলাদেশ: স্পিকার

    রাজধানীতে ডেঙ্গু রোগী হাজার ছাড়াল

    দোরাইস্বামীর স্থলাভিষিক্ত হতে পারেন সুধাকর দালেলা

    আষাঢ়ে নয়

    অন্ধকার থেকে আলোয় ফেরা

    ডিজিটাল মাধ্যমে প্রান্তিকে পৌঁছাবে স্বাস্থ্যসেবা

    শিক্ষককে জুতার মালা পরানোর বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে রিট

    বাবরসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন বিষয়ে আরও শুনানি ১৮ জুলাই

    রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে জাতীয় পার্টির ঈদ শুভেচ্ছা

    কোরবানির পশুর হাট কাঁপাবে রং বাহাদুর

    রাস্তা বন্ধ করায় ৪ পরিবার বিপাকে

    বন্যায় পানিবন্দী ১০ হাজার মানুষ, শহর রক্ষা বাঁধের দাবি

    আজকের পত্রিকার বর্ষপূর্তিতে বন্যার্তদের খাবার ও ওষুধ বিতরণ