Alexa
রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

এই ঈদেই কিনে ফেলি

আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০২২, ১০:০৭

মডেল: ঋভু। ছবি: মঞ্জু আলম ঈদে কেনাকাটার তালিকায় যেমন থাকে জামাকাপড়, তেমনই অনেক শৌখিন মানুষের তালিকায় থাকে নতুন মোটরবাইক। কেউবা জমানো টাকায়, কেউবা ঈদের বোনাস পেয়েই কিনে ফেলেন পছন্দের ঝকঝকে একখানা মোটরবাইক। কিন্তু মনে রাখতে হবে, সব বাইক সবার জন্য নয়। ছাত্ররা যে বাইক কিনবেন, তা হয়তো একজন মধ্যবিত্ত চাকরিজীবী কিনবেন না। আবার চাকরিজীবীদের পছন্দের বাইক নারী বাইকার বা বাইক নিয়ে দাপিয়ে বেড়ানো তরুনদের ভালো না-ও লাগতে পারে। তাই কম দামে কিংবা টাকা আছে বলে বেশি দামে বাইক কিনবেন না। কোন কাজে বাইক ব্যবহার করবেন, আগে সেটা ভাবুন। তারপর বাজেট করুন।

আমাদের দেশে কমিউটার বাইক, প্রিমিয়াম ক্যাটাগরি বাইক, স্পোর্টস বাইক ও ক্রুজার বাইক—মোটামুটি এ চার ধরনের বাইক রয়েছে। অবশ্য এর বাইরেও কয়েকটি রকমফের রয়েছে।

কমিউটার বাইক
প্রতিদিন সাধারণত যে বাইকগুলো আমরা ব্যবহার করি, সেগুলো কমিউটার বাইক। এগুলো আরামদায়ক ও তেলসাশ্রয়ী। ইঞ্জিন সাধারণত ৮০ থেকে ১২৫ সিসি পর্যন্ত হয়ে থাকে। কমিউটার বাইকের মধ্যে একটু কেতাদুরস্তগুলো প্রিমিয়াম কমিউটার। ইঞ্জিনের শক্তি একই হলেও সৌন্দর্যের কারণে কমিউটারের চেয়ে এগুলোর দাম একটু বেশি। এগুলোর রক্ষণাবেক্ষণ অপেক্ষাকৃত সহজ। রাস্তায় চলাচলকারী মোটরবাইকগুলোর বেশির ভাগই কমিউটার ক্যাটাগরির বাইক।

কেনার সময় বিবেচনায় রাখুন

  • আপনি কোন কাজে বাইকটি ব্যবহার করবেন
  • বাইকটি বাজারে পরিচিত কি না
  • সার্ভিসিং-ব্যবস্থা পর্যাপ্ত কি না
  • স্পেয়ার পার্টসের সরবরাহ পর্যাপ্ত কি না
  • মাইলেজ কেমন
  • বাইকের বিল্ড কোয়ালিটি কেমন
  • বাইকের দাম কত।

মডেল: ঋভু। ছবি: মঞ্জু আলম প্রিমিয়াম ক্যাটাগরি বাইক
১৫০ থেকে ১৬০ সিসি ইঞ্জিনের বাইকগুলো সাধারণত প্রিমিয়াম ক্যাটাগরির বাইক। ইয়ামাহা ফেজার ও এফ জেড, সুজুকি জিক্সার ও জিক্সার এস এফ, টিভিএস অ্যাপাচি ১৫০ ও ১৬০, বাজাজ পালসার ও পালসার এন এস, হিরো হাঙ্ক, হোন্ডা হর্নেট—এগুলো জনপ্রিয় প্রিমিয়াম বাইক। এগুলো দেবে শক্তিশালী ইঞ্জিন, নিয়ন্ত্রণ আর গতির উদ্দামতা। তেল খরচের দিক থেকে অবশ্য এগুলোর খরচ কমিউটার বাইকের তুলনায় বেশি। দামও একটু বেশি।

স্পোর্টস বাইক
টিভিতে দেখা বাইকের রেসে যে বাইকগুলো ব্যবহার হয় সেগুলোই স্পোর্টস বাইক। আমাদের দেশে বাইকের সিসির সীমাবদ্ধতা থাকায় আসল স্পোর্টস বাইক পাওয়া যায় না। তবে একই রকম দেখতে এবং সিসি সীমার মধ্যে শক্তিশালী ইঞ্জিন দিয়ে তৈরি বেশ কিছু বাইক বাজারে আছে। যেমন, ইয়ামাহার ভি১৫–এর বিভিন্ন সংস্করণ এবং হোন্ডা সিবিআর ১৫০-এর কিছু সংস্করণ। এর বাইরে চায়নিজ কোম্পানি লিফানও এ ধরনের বাইক বাজারে এনেছে।

শক্তিশালী ইঞ্জিন, মসৃণ গিয়ার পরিবর্তন, কেতাদুরস্ত স্পোর্টিংশৈলীর এই বাইকগুলো আপনাকে দেবে একজন রেসারের অনুভূতি। বাইকগুলো তেল খরচ ও দামের দিক থেকে বেশ ওপরের দিকে। এগুলোর রক্ষণাবেক্ষণ যত্ন নিয়ে করতে হবে। দাম ৩ থেকে ৫ বা ৬ লাখ টাকা পর্যন্ত।

ক্রুজার বাইক
বেশ বড় আকারের ভারী ফ্রেম আর আরামদায়ক বসার ব্যবস্থাসহ যে বাইকগুলো দেখা যায় আমাদের দেশে, সেগুলোই ক্রুজার বাইক। এ বাইকগুলো আপনাকে দেবে আরামদায়ক যাত্রার অনুভূতি। জনপ্রিয় ক্রুজার বাইকের মধ্যে আছে সুজুকি ইন্ট্রুডার, রিগাল র‍্যাপ্টর, ইউ এম কমান্ডার।

মডেল: ঋভু। ছবি: মঞ্জু আলম চাকরিজীবী ও ছাত্রদের জন্য
বাইক কেনার সঙ্গে যেমন অর্থনৈতিক সংগতি দরকার, তেমনি দরকার প্রয়োজনের দিক বিবেচনা করা। ফলে শুধু বাইকের দাম কম দেখে বা সামর্থ্য আছে বলেই দামি বাইক কিনবেন না। এমনও হতে পারে, আপনি কম দামে একটি বাইক কিনলেন, কিন্তু কেন কিনলেন সেটা না জানার জন্য আপনার বাইক কেনার পর খরচ অনেক বেড়ে যেতে পারে। তখন কম টাকায় বাইক কেনার পরও আপনার প্রয়োজন মিটবে না। তাই শুধু দাম কম দেখেই বাইক কিনে ফেললে হবে না। আবার শুধু ফ্যান্সি ডিজাইন দেখে বাইক কিনে ফেললেই হবে না। হয়তো বাইকটা ফ্যান্সি ডিজাইনের, কিন্তু দেখা গেল সেটি অলিগলিতে ঢোকানো যায় না। সে ক্ষেত্রে বাইকটি যতই ফ্যান্সি হোক, কিনে লাভ নেই।

চাকরিজীবীদের জন্য এ দেশের জনপ্রিয় কিছু বাইকের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো রানার বুলেট, রানার টার্বো ১২৫, হোন্ডা লিভো, হিরো গ্লামার, বাজাজ ডিসকোভার, টিভিএস স্ট্রাইকার ইত্যাদি। এই সব বাইকই ১০০ থেকে ১২৫ সিসির মধ্যে, টপ স্পিড ১০০ থেকে ১০৫ কিলোমিটারের মধ্যে এবং দাম ৯১ হাজার থেকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকার মধ্যে বা একটু এদিক সেদিক।

নারীদের জন্য বাইক
পুরুষদের পাশাপাশি নারীরাও এখন শহরের রাস্তায় বাইক চালাচ্ছেন। আমাদের দেশে নারীদের কাছে সাধারণত জনপ্রিয় বাইক হলো রানার স্কুটি। এ ছাড়া আছে রানার কাইট প্লাস, ভেসপা, হোন্ডা ডিও, টিভিএস রকজ।

রানার স্কুটি ১০৪ সিসি ইঞ্জিনের। এই স্কুটিটির দাম ১ লাখ ৮ হাজার টাকা। এটি নারীদের মধ্যে জনপ্রিয় হলেও দামের দিক থেকে অবশ্য রানার কাইট প্লাস এগিয়ে রয়েছে। ১১০ সিসির এই বাইকটির মূল্য ৯১ হাজার টাকা। টিভিএস রকজ, ১২৫ সিসি ইঞ্জিনের এই বাইকটির দাম একটু বেশি হলেও পারফরম্যান্স এবং অন্য বিষয়গুলো বেশ ভালো।

লেখক: ফাউন্ডার ও সিইও, বাংলা অটোমোবাইল স্কিলস

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    চিংড়ি শুঁটকির ভর্তা

    গল্পগুলো লিলিবেটের অথবা রানির

    সুখবর

    লন্ডন ডিজাইন ফেস্টিভ্যালে বাংলাদেশ

    কলা পাতায় তালের কেক

    মাইডাস সেন্টারে বিবির পাবণ

    প্রত্যাখ্যানের ‘আনন্দ’ আখ্যান

    ফুটবলারদের জন্য বিশেষ অ্যাপ আনছে ফিফা 

    শ্রীপুরে যুবককে তুলে নিয়ে রাতভর নির্যাতন, পরে মৃত্যু

    বোয়ালমারীতে এক পরিচিতের বাসায় আত্মগোপনে ছিলেন রহিমা বেগম: দৌলতপুরের ওসি

    খুলনায় নিখোঁজ রহিমা বেগম ফরিদপুর থেকে জীবিত উদ্ধার

    ফোন ভাঙার ঘটনায় নিষিদ্ধ হতে পারেন রোনালদো 

    অধিনায়ক সাবিনা খাতুন ও তাঁর মাকে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের সংবর্ধনা