Alexa
শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

দেশের ১৫ চিনিকলের ১৪টিই লোকসানে, সংসদে শিল্পমন্ত্রী

আপডেট : ০৩ এপ্রিল ২০২২, ১৪:৪২

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। ফাইল ছবি দেশের সরকারি ১৫টি চিনিকলের মধ্যে ১৪টিই লোকসানে রয়েছে বলে জাতীয় সংসদে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তরে আজ রোববার সরকারি দলের সংসদ সদস্য আলী আজমের প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান শিল্পমন্ত্রী। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকের শুরুতে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়। 

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দেশে চিনিকলের সংখ্যা ১৫। এর মধ্যে একটি চিনিকল (কেরু অ্যান্ড কোং) লাভজনক এবং অলাভজনক চিনিকলের সংখ্যা ১৪। ২০২০-২০২১ মাড়াই মৌসুম থেকে সরকারি সিদ্ধান্তে অলাভজনক ১৪টি চিনিকলের মধ্যে ৬টির (পঞ্চগড়, সেতাবগঞ্জ, শ্যামপুর, রংপুর, পানা ও কুষ্টিয়া) আখ মাড়াই কার্যক্রম স্থগিত আছে। 

সরকারি দলের দিদারুল আলমের প্রশ্নের জবাবে শিল্পমন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রামের বাড়বকুণ্ডে অবস্থিত চিটাগাং কেমিক্যাল কমপ্লেক্স কারখানা পুনরায় চালু করার পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। কারখানা প্রাঙ্গণে একটি নতুন ক্লোর-অ্যালকালি ও ক্লোরিন সম্পর্কিত বেসিক কেমিক্যাল, কম্পাউন্ড (পিভিসি) প্ল্যান্ট স্থাপনের লক্ষ্যে পেশাদার উপযুক্ত পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে আর্থ-কারিগরি সম্ভাব্যতা সমীক্ষা সম্পাদনের জন্য একটি প্রতিষ্ঠান থেকে আরএফপির প্রস্তাব পাওয়া গেছে। এই প্রস্তাব মূল্যায়নের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। 

সরকারি দলের সংসদ সদস্য হাবিবর রহমানের প্রশ্নের জবাবে শিল্পমন্ত্রী বলেন, দেশে কৃষিভিত্তিক শিল্প স্থাপনের জন্য শিল্প মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) পাঁচটি জেলায় কৃষিভিত্তিক শিল্পনগরী/শিল্পপার্ক স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সেগুলো হলো—বিসিক খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পনগরী, ঠাকুরগাঁও; বিসিক মধুপুর শিল্প পার্ক (আনারসসহ কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াকরণ) টাঙ্গাইল; বিসিক উত্তরাঞ্চল কৃষিজাত পণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প পার্ক, বগুড়া; বিসিক কৃষি প্রক্রিয়াকরণ শিল্পনগরী, রংপুর এবং বিসিক কৃষি পণ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্প পার্ক, মেহেরপুর। 

জাতীয় পার্টির রুস্তম আলী ফরাজীর প্রশ্নের জবাবে শিল্পমন্ত্রী বলেন, সারা দেশে বিসিকের মোট ৭৯টি শিল্পনগরী আছে। মোজাফফর হোসেনের প্রশ্নের জবাবে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বিসিক কর্তৃক ২০০৯-২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৭১৫টি বন্ধ শিল্প কারখানা চালু করা হয়েছে।

বিদ্যুতের ২৭০২ কিমি লাইন মাটির নিচে
সরকারদলীয় সংসদ সদস্য বেনজীর আহমদের প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ জানান, বিদ্যুৎব্যবস্থার আধুনিকায়ন, সুষ্ঠু ও মানসম্মত বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য দেশের বড় বড় শহর তথা মেট্রোপলিটন এলাকায় বিদ্যুৎ লাইনের তার মাটির নিচ দিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এরই মধ্যে ঢাকায় ডিপিডিসি ১ হাজার ২৮৭ কিমি ও ডেসকো ১ হাজার ৩৬৬ কিমি, বাবিউবো সিলেটে ৩৮ কিমি, নেসকো রাজশাহী ও রংপুরে ১১ কিমিসহ প্রায় ২ হাজার ৭০২ কিমি ভূগর্ভস্থ লাইন নির্মাণ সম্পন্ন করেছে। 

সরকারি দলের এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ বলেন, এলএনজি আমদানিতে ২০২১-২২ অর্থবছরে পেট্রোবাংলাকে ৪ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি/অনুদান দেওয়া হয়েছে। চলতি অর্থবছরে এলএনজি আমদানিতে চাহিদার পরিমাণ ২৩ হাজার ৩৬৭ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। 

জাতীয় পার্টির শামীম হায়দার পাটোয়ারীর প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশে বর্তমানে বিদ্যুতের মোট স্থাপিত উৎপাদনক্ষমতা ২৫ হাজার ৫১৪ মেগাওয়াট (ক্যাপটিভ ও অফগ্রিড নবায়নযোগ্য জ্বালানিসহ)। বর্তমানে বিদ্যুতের চাহিদার পরিমাণ বেড়ে গড়ে প্রতিদিন ১৩ থেকে সাড়ে ১৩ হাজার মেগাওয়াট। চাহিদা অনুযায়ী বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে। 

সৈয়দ আবু হোসেনের প্রশ্নের জবাবে জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী জানান, গত বছরের ১২ এপ্রিল ১২ কেজি বোতলজাত এলপিজির দাম নির্ধারণ করা হয়েছিল ৯৭৫ টাকা। সর্বশেষ ৩ মার্চ এর দাম বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ৩৯১ টাকা। 

জাতীয় পার্টির মুজিবুল হকের প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ বলেন, সমুদ্রাঞ্চলে অবস্থিত ব্লকগুলো নিজেরা খনন করার পরিকল্পনা আপাতত সরকারের নেই। অগভীর ও গভীর সমুদ্রাঞ্চলে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান, উন্নয়ন ও উৎপাদন কার্যক্রম উচ্চ প্রযুক্তিনির্ভর, অত্যধিক ব্যয়বহুল ও ঝুঁকিপূর্ণ বিধায় উৎপাদন বণ্টন চুক্তির (পিএসসি) আওতায় আন্তর্জাতিক তেল কোম্পানির মাধ্যমে সম্পন্ন করা হয়ে থাকে। 

প্রতিমন্ত্রী জানান, পেট্রোবাংলার আওতাধীন দেশীয় অনুসন্ধান কোম্পানি বাপেক্সের স্থলভাগে সক্ষমতা থাকলেও সমুদ্রাঞ্চলে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান, উন্নয়ন ও উৎপাদন বিশেষভাবে প্রযুক্তিনির্ভর ও ব্যয়বহুল হওয়ায় সেই সক্ষমতা নেই। 

বিটিভিতে দিনে গড়ে এক ঘণ্টা ধর্মীয় আলোচনা
সরকারি দলের হাবিব হাসানের প্রশ্নের জবাবে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, পবিত্র আল কোরআন ও মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স.)-এর জীবন ও দর্শনকে বাংলাদেশ টেলিভিশনের ধর্মীয় অনুষ্ঠানগুলোতে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে প্রচার করা হয়। 

বাংলাদেশ টেলিভিশনে গত অর্থবছরে (২০২০-২১) ৩৩৪ ঘণ্টা ধর্মীয় অনুষ্ঠানগুলো প্রচার করা হয়েছে। সেই হিসাবে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ১ ঘণ্টা ধর্মীয় অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়ে থাকে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    ফজলে রাব্বী মিয়ার আসন শূন্য ঘোষণা

    সংসদ এলাকায় উপজেলা চেয়ারম্যানকে কিল-ঘুষি মারার অভিযোগ এমপির বিরুদ্ধে

    বাংলাদেশ সফরে আসছেন ইইউ’র ৬ সংসদ সদস্য

    কয়েক বছর ধরেই খাদ্যশস্যের বাজার স্থিতিশীল: সংসদীয় কমিটি 

    ‘পুলিশ এখন জনকল্যাণে নয়, আওয়ামী লীগের নিরাপত্তা কল্যাণে নিয়োজিত’

    সংসদে রাঙ্গা-হারুন বাহাস

    বগুড়ায় ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ২ 

    মুসলিম লীগের মতো বিএনপিও হারিয়ে যাবে: তথ্যমন্ত্রী 

    খরার আশঙ্কা ব্রিটেনে, পানির ব্যবহার কমাতে তোড়জোড় 

    অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের মানুষ বেহেশতে আছেন: মোমেন 

    ইডেন গার্ডেনের তারকাদের হাটে থাকছেন মাশরাফিও

    সিডনিতে ২ সৌদি বোনের মৃত্যু নিয়ে রহস্য