Alexa
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

‘ডা.’ লিখতে পারবেন না হোমিও–ইউনানি ডিগ্রিধারীরা, স্বীকৃতি দিতে একগুচ্ছ পরামর্শ হাইকোর্টের

আপডেট : ১৪ আগস্ট ২০২১, ১৭:১৩

বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে পৃথক মন্ত্রণালয় গঠনের পরামর্শ দিয়েছেন আদালত। ছবি: সংগৃহীত হোমিওপ্যাথি ও ইউনানি চিকিৎসা শাস্ত্রে ডিগ্রিধারীরা নামের আগে ‘ডাক্তার’ পদবি ব্যবহার করতে পারবেন না। ন্যাশনাল মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের এক রিটের পরিপ্রেক্ষিতে এ নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা সংশ্লিষ্ট এমবিবিএস ডিগ্রি অর্জনকারী ৯৬ জন চিকিৎসক ন্যাশনাল মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের পক্ষে এ রিট করেন। বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থার জন্য পৃথক নিয়ন্ত্রণ সংস্থা গঠন এবং বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা সংশ্লিষ্ট এমবিবিএস ডিগ্রি অর্জনকারীদের নামের আগে ডাক্তার পদবি ব্যবহার করতে পারা নিশ্চয়তা চেয়ে ২০১৯ সালে এ রিট করা হয়। 

হাইকোর্ট বিষয়টি আমলে নিয়ে ওই সময় রুল জারি করেন। ২০২০ সালের ৫ জানুয়ারি রুলের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। একই বছরের ১১ নভেম্বর বিচারপতি বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ রায় দেন। 

আদালত রায়ে বলেন, বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থায় সংশ্লিষ্ট এমবিবিএস ডিগ্রি অর্জনকারী তথা হোমিওপ্যাথিক ও ইউনানি চিকিৎসকেরা নামের আগে ডাক্তার পদবি ব্যবহার করতে পারবেন না। ওই রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে আজ শনিবার প্রকাশ করা হয়েছে। 

রায়ে এসব বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে পৃথক মন্ত্রণালয় গঠনের পরামর্শ দিয়েছেন আদালত। এ সংক্রান্ত জারি করা রুল খারিজ করে ৭১ পৃষ্ঠার রায়ে বলা হয়েছে, দুঃখজনকভাবে এটি লক্ষণীয় যে, বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিল আইন, ২০১০–এর ২৯ ধারা অনুযায়ী বিএমডিসির নিবন্ধনভুক্ত মেডিকেল বা ডেন্টাল ইনস্টিটিউট কর্তৃক এমবিবিএস অথবা বিডিএস ডিগ্রিধারী ছাড়া অন্য কেউ নামের আগে ডাক্তার (ড.) পদবি ব্যবহার করতে পারবেন না। 

কিন্তু স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের ২০১৪ সালের ৯ মার্চ তারিখের সংশোধিত বিজ্ঞপ্তিতে ‘অলটারনেটিভ মেডিকেল কেয়ার’ শীর্ষক অপারেশনাল প্ল্যানের বিভিন্ন পদে কর্মরত হোমিওপ্যাথি, ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক কর্মকর্তাদের স্ব–স্ব নামের আগে ডাক্তার (ডা.) পদবি সংযোজনের অনুমতি দিয়েছে, যা এক কথায় আইনের কর্তৃত্ব ব্যতীত তথা বেআইনি। 

এ ছাড়া বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক বোর্ড কর্তৃক ইংরেজি ২০২০ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বিভিন্ন শাখায় হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকদের তাদের নামের আগে পদবি হিসেবে ডাক্তার (ড.) ব্যবহারের অনুমতি দেওয়াও বেআইনি। 

রায়ে বলা হয়, বিকল্পধারার চিকিৎসা পদ্ধতির পেশাধারীরা নামের আগে ইন্টিগ্রেটেড ফিজিশিয়ান, কমপ্লিমেন্টারি ফিজিশিয়ান, ইন্টিগ্রেটেড মেডিসিন প্র্যাকটিশনার এবং কমপ্লিমেন্টারি মেডিসিন প্র্যাকটিশনার পদবি ব্যবহার করতে পারেন। পাশের দেশ ভারতেও বিকল্প ধারার চিকিৎসকেরা (Dr.) লিখতে পারে না।

রায় আরও বলা হয়েছে, যেহেতু দরখাস্তকারীরাসহ হাজার হাজার বিকল্প চিকিৎসকেরা বাংলাদেশের আনাচে–কানাচে প্রশাসন ও কর্তৃপক্ষের সামনে আইনগত অনুমোদন ছাড়া দীর্ঘদিন যাবৎ বিকল্প চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছেন, সেহেতু বিষয়টি আলোচনার দাবি রাখে। চিকিৎসা বিষয়টি বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিককে স্পর্শ করে এবং এর গুরুত্ব অপরিসীম। 

সবার জন্য স্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে ১৯৭৮ সালে কাজাখস্তানের আলমাআতা শহরে সবার জন্য প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা পরিকল্পনা ঘোষণা করে। আলমাআতা ঘোষণার মূল উদ্দেশ্য হলো স্বাস্থ্যসেবাকে সর্বজনীন করে একটা সুন্দর পৃথিবী গড়ে তোলা। উদাহরণ হিসেবে এই ঘটনাটি রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে। 

সংবিধানের ৩২ অনুচ্ছেদে নাগরিকের জীবন ধারণের অধিকার নিশ্চিত করেছে–এ কথা উল্লেখ করে রায়ে বলা হয়, বিকল্প চিকিৎসা পদ্ধতি পাঁচ হাজার বছরের পুরোনো চিকিৎসা ব্যবস্থা। এ পদ্ধতির যথাযথ ব্যবহার এবং সঠিকভাবে পঠন এবং প্রশিক্ষণ সামগ্রিক চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নয়ন করবে। 

সংবিধানের ৪০ অনুচ্ছেদে প্রত্যেক নাগরিকের যে কোনো পেশা গ্রহণের অধিকার রয়েছে–উল্লেখ করে রায়ে আরও বলা হয়েছে, তাই কিছু পরামর্শসহ রুল খারিজ করা হলো। পরামর্শগুলো হচ্ছে–আলমাআতা ঘোষণা বাস্তবায়নে ব্যবস্থা গ্রহণ, বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থার নীতিমালা করা, বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা পদ্ধতির জন্য পৃথক মন্ত্রণালয় গঠন, বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা পদ্ধতির জন্য শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান করা এবং ওই সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত ডিগ্রিগুলোকে স্বীকৃতি দেওয়ার পদ্ধতি নির্ধারণ করতে হবে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    চলতি অধিবেশনেই ইসি আইন পাস করতে চায় সরকার

    চীনের গুয়াংজুতে চালু হলো বিমানের কার্যালয়

    রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে ইসি গঠনে আইন চাইল আ.লীগ   

    করোনায় আরও ১০ মৃত্যু, শনাক্ত ২০% ছাড়াল

    ডিসি সম্মেলন শুরু কাল

    জাতীয় লবণ নীতিমালা অনুমোদন

    উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফের আগুন

    মেসিকে টপকে টানা দ্বিতীয়বার ফিফার বর্ষসেরা খেলোয়াড় হলেন লেভানডফস্কি

    করোনার সঙ্গে ইনফ্লুয়েঞ্জা ইউরোপে ‘টুইন্ডেমিক’

    অভিনয়শিল্পী শিমুর বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার

    চীনের নজর মধ্যপ্রাচ্যে বড় চ্যালেঞ্জ যুক্তরাষ্ট্র

    নীলফামারীতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ, যুবক আটক