Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

বিনম্র শ্রদ্ধা শহীদদের প্রতি

আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১৪:৫৬

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধার ফুলে ফুলে ভরে ওঠে হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বেদি। ছবি: আজকের পত্রিকা ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি?’ একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২ সালের এদিনে রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে রাজপথ রঞ্জিত হয় ছাত্রদের রক্তে। গৌরবোজ্জ্বল মাতৃভাষা আন্দোলনের ৭০ বছর পূর্ণ হয়েছে গতকাল। সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জের উপজেলাগুলোতে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধার সঙ্গে শহীদদের স্মরণ করা হয়।

বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো প্রতিবেদনে:

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন। গতকাল সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। ছবি: আজকের পত্রিকা সুনামগঞ্জ: একুশের প্রথম প্রহরে বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে জেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে ছিল মানুষের ভিড়। রাত ১২টা ১ মিনিটে শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ও পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান।

এ সময় জেলা প্রশাসন, পুলিশ ও মুক্তিযোদ্ধাদের পর বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বীর মুক্তিযোদ্ধারা।

জেলা আওয়ামী লীগ পৃথকভাবে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করে। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এনামুল কবির ইমনের নেতৃত্বে মিছিলসহ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

অন্যদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুটের নেতৃত্বে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করে।

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ): উপজেলা পরিষদ, প্রশাসনসহ রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে সকাল সাড়ে ৭টায় পৌরশহরের কেন্দ্রে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

প্রথমে উপজেলা পরিষদ, এরপর উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, পৌরসভা, জগন্নাথপুর থানা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, জগন্নাথপুর প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা শ্রদ্ধা নিবেদন করে। পরে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাজেদুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান।

জামালগঞ্জ (সুনামগঞ্জ): যথাযোগ্য মর্যাদায় ও নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জামালগঞ্জে পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। একুশের প্রথম প্রহরে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাত ১২টা ১ মিনিটে ফুলের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হয়।

প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে ভাষাশহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন ও পুষ্পমাল্য অর্পণ করে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ, জামালগঞ্জ থানা, উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও জামালগঞ্জ প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ সময় ভাষাশহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা এবং একুশের চেতনা বাস্তবায়নের শপথ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

পরে সকাল ১০টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত দেবের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবাল আল আজাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বীণা রানী তালুকদার, ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম জিলানী আফিন্দি রাজু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোহাম্মদ আব্দুন নাসের ও বীর মুক্তিযোদ্ধারাসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান।

শিশুর গালে এঁকে দেওয়া হয় জাতীয় পতাকা ও বর্ণ। গতকাল আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। ছবি: আজকের পত্রিকা হবিগঞ্জ: শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে ভাষাশহীদদের স্মরণ করে হবিগঞ্জবাসী। সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধায় ফুলে ফুলে ভরে ওঠে হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন হবিগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ অ্যাডভোকেট মো. আবু জাহির। পরে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহানসহ প্রশাসনের নেতারা। একে একে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করে জেলা পুলিশ, হবিগঞ্জ পৌরসভা, জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে, জেলা প্রেসক্লাব, জেলা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, জেলা শিক্ষা কার্যালয়ে, জেলা ফায়ার সার্ভিস, জেলা আনসারসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।

পরে জেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়। সকালেও শ্রদ্ধা জানাতে সাধারণ মানুষের ভিড় ছিল শহীদ মিনারে।

এদিকে জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভাসহ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালন করে জেলা-উপজেলা প্রশাসন ও জেলা আওয়ামী লীগ।

শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ): উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আনুষ্ঠানিকভাবে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিবসটি শুরু হয়। ধারাবাহিকভাবে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে উপজেলা প্রশাসন, পৌরসভা, উপজেলা প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যরা।

পরে সকালে শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, আবৃত্তি ও চিত্রাঙ্কন অনুষ্ঠিত হয়।

এ ছাড়া সকাল ১০টায় কলেজে শিক্ষক মিলনায়তনে ‘একুশে ফেব্রুয়ারি জেগে উঠে বাঙালি জাতিসত্তার চেতনা’ শীর্ষক আলোচনা সভা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রভাষক তহুরা বেগম, প্রভাষক মুহাম্মদ মহিউদ্দিন, প্রভাষক মো. রফিকুল ইসলাম, প্রভাষক মো. আরিফুর রহমান, প্রভাষক মো. হোসেন প্রমুখ।

সভায় তাঁরা বলেন, ‘ভাষাশহীদের ত্যাগের কারণেই আজকে আমরা মন খুলে বাংলা বলছি ও লিখছি। বিশ্বের ইতিহাসের বুকে মাতৃভাষার জন্য বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলাম আমরা এই বাঙালিরাই। বায়ান্নের ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়।’

পুষ্পস্তবক অর্পণের পর ক্ষুদ্র পরিসরে দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করে রবীন্দ্র চর্চার সংগঠন রবিরশ্মি মৌলভীবাজার। গত মৌলভীবাজার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। ছবি: আজকের পত্রিকা মৌলভীবাজার: মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক ভাষা দিবসে ঢল নামে সর্বস্তরের মানুষের। শিশু থেকে বৃদ্ধ সবাই এসেছিলেন ভাষাশহীদদের আত্মাহুতির সাত দশক পূর্তিতে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে।

একুশের প্রথম প্রহরে মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চবিদ্যালয় মাঠে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান ও জেলা প্রশাসন।

পরে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন মৌলভীবাজার-৩ আসনের সাংসদ নেছার আহমদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান। পরে একে একে জেলা পুলিশ, পৌরসভা, উপজেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও জেলা প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক-সামাজিক সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।

সোমবার সকাল থেকে উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, জাতীয় রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠন প্রভাতফেরিতে অংশ নেয়। পরে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এ ছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকেরা পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

এদিন জেলা প্রশাসনের আয়োজনে দিনব্যাপী নানা ধরনের কর্মসূচি পালন করা হয়। জেলা শিশু একাডেমি ও শিল্পকলা একাডেমির সহযোগিতায় চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, সুন্দর হাতের লেখা প্রতিযোগিতা, শুদ্ধভাবে বর্ণমালা উচ্চারণ প্রতিযোগিতা, ছড়া পাঠ, দেশাত্মবোধক গান ও কবিতা আবৃত্তি অনুষ্ঠিত হয়।

বিকেলে ১৯৫২ সালের ভাষাসৈনিক ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এর মধ্যে ভাষাসৈনিক আব্দুল মালিক জীবিত, বাকি তিনজন মৃত্যুবরণ করায় তাঁদের পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার): উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়। একুশের প্রথম প্রহরে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে উপজেলা প্রশাসন, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের সদস্যরা। এ সময় শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান সর্বস্তরের মানুষ।

সোমবার সকাল ৭টায় উপজেলা মডেল সরকারি উচ্চবিদ্যালয় থেকে প্রভাতফেরি বের হয়। এ প্রভাতফেরি শেষ হয় উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সকাল সাড়ে ৮টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ভাষা দিবসের তাৎপর্য নিয়ে এক আলোচনা সভা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আশেকুল হকের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়ারদৌস হাসান।

পরে আলোচনায় অংশ নেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন, সাবেক পৌর কাউন্সিলর মো. আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    কান্না থামেনি সেই মায়ের

    বালু তোলায় তীরে ভাঙন নদীতে যাচ্ছে ফসলি জমি

    প্রচার ও দক্ষতার অভাবে বাড়ছে না প্রবাসী শ্রমিক

    আজকের রাশিফল

    রাষ্ট্র ও রাষ্ট্রভাষা

    কৃষিজমি সুরক্ষায় অঙ্গীকার ও তৎপরতা

    ঢাকায় বিএনপির পদযাত্রা স্থগিত

    ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে অন্তঃসত্ত্বা ‘প্রেমিকার’ ধর্ষণ মামলা

    রিংকুসহ ২২ বাংলাদেশিকে আঙ্কারায় আনা হচ্ছে: কনসাল জেনারেল

    পা দিয়ে লিখে এইচএসসি পাস, হতে চান বিসিএস কর্মকর্তা

    ভূমিকম্প: তুরস্কে তীব্র ঠান্ডায় উদ্ধার ব্যাহত, বাড়ছে ক্ষোভ

    না.গঞ্জে রেস্তোরাঁয় ঢুকে গুলির ঘটনায় মালিকদের বিক্ষোভ