Alexa
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

ভাষা শহীদদের প্রতি ফুলেল শ্রদ্ধা

আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১৮:১২

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের পক্ষে তাঁর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এসএম সালাহউদ্দিন ইসলাম এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে তাঁর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকিব আহমদ চৌধুরী পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। ছবি: ইন্দ্রজিৎ কুমার ঘোষ অমর একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একুশের প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের পক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন তাঁর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহউদ্দিন ইসলাম এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন তাঁর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকিব আহমদ চৌধুরী। 

স্পিকারের পক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সংসদ সচিবালয়ের সার্জেন্ট আ্যট আর্মস কমডোর মিয়া মোহাম্মদ নাইম রহমান। ছবি: আজকের পত্রিকা এরপর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরীর পক্ষে সংসদ সচিবালয়ের সার্জেন্ট আ্যট আর্মস কমডোর মিয়া মোহাম্মদ নাইম রহমান।

শহীদ মিনারের শ্রদ্ধা জানান তিন বাহিনীর প্রধানেরা। ছবি: ইন্দ্রজিৎ কুমার ঘোষ রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকারের পর দেশের তিন বাহিনীর প্রধানেরা শহীদদের বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। 

শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ। ছবি: ইন্দ্রজিৎ কুমার ঘোষ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষাশহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিচালক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ।

শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতারা। ছবি: ইন্দ্রজিৎ কুমার ঘোষ আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে একটি প্রতিনিধি দল শহীদ মিনারের বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করে। পর্যায়ক্রমে জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের পক্ষ থেকে জাতীয় পার্টির নেতারা শ্রদ্ধা জানান। এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

রাত ১২টার আগেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ ভিড় করেন শহীদ মিনার অভিমুখী রাস্তায়। রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর শহীদ মিনার সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

এবারও শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন পর্বে অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হয়েছে। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে প্রতিটি সংগঠনের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ পাঁচজন প্রতিনিধি, ব্যক্তি পর্যায়ে একসঙ্গে সর্বোচ্চ দুজন শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের অনুমতি পেয়েছেন। শহীদ মিনারের সব প্রবেশমুখে হাত ধোয়ার জন্য বেসিন ও লিকুইড সাবান রাখা হয়েছে। মাস্ক পরা ছাড়া কাউকে শহীদ মিনার চত্বরে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে পলাশী মোড় থেকে শহীদ মিনার পর্যন্ত রাস্তায় তিন ফুট পরপর চিহ্নিত করা হয়েছে। এই চিহ্ন অনুসরণ করে সবাই পর্যায়ক্রমে শহীদ মিনারে যাচ্ছেন ও ফুল দিচ্ছেন। এ ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার বিভিন্ন প্রবেশপথে স্বেচ্ছাসেবকেরা হাত মাইক দিয়ে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারে প্রচার চালাচ্ছেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়টিও তাঁরা পর্যবেক্ষণ করছেন। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    হামলার হুমকি নেই, সর্বোচ্চ নিরাপত্তা থাকবে: র‍্যাব

    একুশের দিনে শহীদ মিনারে যাবেন যে পথে

    শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদনে একসঙ্গে পাঁচজনের বেশি নয়

    চুয়াডাঙ্গায় ক্ষতিকর রং মেশানো শিশুখাদ্য বিক্রির দায়ে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা

    বাণিজ্যমেলায় রপ্তানি আদেশ পাওয়া গেছে ৩০০ কোটি টাকার: বাণিজ্যমন্ত্রী

    নড়াইলে নিখোঁজের ৫ দিন পর ব্যবসায়ী লাশ উদ্ধার

    কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে নির্বাচনী সামগ্রী, কড়া নির্দেশনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী

    বিশ্ববিজয়ী প্রযুক্তিবিদ তৈরি হবে বাংলাদেশে: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

    ঠাকুরগাঁও-৩ উপনির্বাচন: কেন্দ্রে পাঠানো হচ্ছে নির্বাচনী সরঞ্জাম