অবশেষে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হচ্ছে বহুল আলোচিত বানিয়াচং কাগাপাশা বাজারে। বিভিন্ন ব্যক্তির লিখিত অভিযোগ ও পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের জের ধরে আগামী মঙ্গলবার উচ্ছেদে নামছে উপজেলা প্রশাসন।

ওই উচ্ছেদ অভিযান সফল হলে বেশ কিছু পরিমান সরকারী ভুমি উদ্ধারের পাশাপাশি জনবহুল রাস্তা দখলমুক্ত হবে। একদিকে যেমন করে সরকার লাভবান হবেন তেমনি করে কমে যাবে যানজট।

জানা যায়, বানিয়াচং থেকে নবীগঞ্জগামী সড়কের মধ্যবর্তী স্থান কাগাপাশা বাজারটি অবস্থিত। বর্তমান সাংসদ এ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খানের প্রচেষ্ঠায় সড়কটি সম্পূর্ন পাকাকরণ ও ব্রীজ কালভার্ট নির্মানের ফলে সড়কটি ব্যস্ততম হয়ে পড়ে।

রাস্তাটি দিয়ে সিলেটগামী ও সিলেট থেকে বানিয়াচং, আজমিরীগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জগামী হাজার হাজার লোকজন আসা যাওয়া করেন। কিন্তুু কাগাপাশা বাজারে বেশ কিছু দোকান রাস্তা দখল করে গড়ে উঠেছে। এ বিষয়ে বারবার পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়।

এছাড়া এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগও দেয়া হয়। ওই সকল পক্রিয়ার পর প্রশাসন বাজারে সার্ভেয়ার দ্বারা মাপজোক করে ঘটনার সত্যতা মিলে।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে অবৈধ দখলকারদের নিজ দায়িত্বে স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলার তাগিদ দেয়া হলে কোন কোন ব্যক্তি নিজ দায়িত্বে দখলমুক্ত হন। তবে অনেকেই অবৈধ স্থাপনায় ব্যবসা বাণিজ্য করে আসছন।

এ ব্যাপারে কথা হয় সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মতিউর রহমান খানের সাথে।

তিনি জানান আগামী মঙ্গলবার কাগাপাশা বাজারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে যাবেন। যারা নিজ উদ্যোগে স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলেছেন কিংবা ভেঙ্গে ফেলবেন তাদেরকে সাধুবাদ জানাই। আর যারা বহাল তবিয়তে থাকবেন তাদের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।

-জীবন আহমেদ লিটন