Alexa
রোববার, ২২ মে ২০২২

সেকশন

epaper
 

ঘাটাইলে গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৩ অবৈধ ইটভাটা

আপডেট : ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১২:২৪

 ঘাটাইল উপজেলায় তিনটি অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া নয়টি ইটভাটার মালিকের কাছ থেকে সাড়ে ২৭ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। গতকাল বুধবার উপজেলার চানতার, নিয়ামতপুর, ধলাপাড়া এবং রসুলপুর এলাকায় অবস্থিত ইটভাটায় সারা দিন অভিযান পরিচালনা করেন পরিবেশ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদিকে গত মঙ্গলবার বাসাইলে অবৈধ খননযন্ত্র দিয়ে বালু ও মাটি তোলার দায়ে এক ব্যক্তিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

পরিবেশ অধিদপ্তরের বিভাগীয় প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাইদা পারভীন এই ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন। এ সময় টাঙ্গাইল পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জমির উদ্দিন ও সহকারী পরিচালক তাপস চন্দ্র পাল ও ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মী ও পুলিশের পৃথক দল অভিযানে সহায়তা দেয়।

লাউয়াগ্রামের লিটন ব্রিকসকে ৫ লাখ টাকা, চানতার গ্রামের এমপিবি ব্রিকসকে ২ লাখ টাকা, নাইম ব্রিকসকে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা, আশা ব্রিকসকে ২ লাখ টাকা, আন্দিপুর গ্রামের সততা ব্রিকসকে ৩ লাখ টাকা, কেআরবি ব্রিকসকে ৩ লাখ টাকা, ধলাপাড়া গ্রামের সাথী ব্রিকসকে ৩ লাখ টাকা, রুপসা ব্রিকসকে ২ লাখ টাকা ও ভিআইপি ব্রিকসকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সদস্যরা লিটন, কেআরবি ও এমপিবি নামের তিনটি ইটভাটা যন্ত্রের সাহায্যে গুঁড়িয়ে দেন।

টাঙ্গাইল পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জমির উদ্দিন বলেন, ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রণ আইন অনুযায়ী ইটভাটা পরিচালনায় পরিবেশ ছাড়পত্র ও লাইসেন্স থাকতে হবে। ঘাটাইলে ৫৬টি ইটভাটার মধ্যে মাত্র ৯টি ইটভাটা বৈধ। বাকি ইটভাটাগুলো অবৈধ। অবৈধ ইটভাটা বন্ধে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

গত ১৮ জানুয়ারি আজকের পত্রিকায় ‘ইটভাটায় পুড়ছে গাছ’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর এ অভিযান পরিচালনা করা হলো।

খননযন্ত্রের মালিককে জরিমানা বাসাইলে অবৈধ খননযন্ত্র দিয়ে বালু ও মাটি তোলার দায়ে মালিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার ফুলকি ইউনিয়নের ময়থা গাছপাড়া এলাকায় এই অভিযান চালানো হয়। এ সময় ওই এলাকার অবৈধ খননযন্ত্রের মালিক আনোয়ারের ছেলেকে যন্ত্র চালানো অবস্থায় আটক করা হয়। পরে বালু ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন-২০১০-এর আওতায় অবৈধ ড্রেজারের মালিককে জরিমানা করা হয়। গতকাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছে উপজেলা ভূমি অফিস।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাহিয়ান নূরেন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। তিনি বলেন অবৈধভাবে বালু ও মাটি উত্তোলনের বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    সেচ খরচে দিশেহারা কৃষক

    চার শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত

    অল্প বৃষ্টিতেই কোমর পানি

    সখীপুরে ঝড়-বৃষ্টিতে পাঁচ সরকারি কার্যালয় জলাবদ্ধ

    চিকিৎসার টাকা জোগাতে উপহারের ঘর বিক্রি

    ‘কালো মহারাজ’-এর দাম হাঁকানো হচ্ছে ১৫ লাখ

    রামগড়ে শিক্ষকের ওপর যৌন নিপীড়নের অভিযোগ মিথ্যা, দাবী পরিবারের

    নামতে শুরু করেছে পানি, বাড়ছে দুর্গন্ধ

    বহুতল নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    নেত্রকোনায় স্কুলছাত্রীকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় মামলা

    ৪৪তম বিসিএসের আসন বিন্যাস প্রকাশ

    মালদ্বীপে নথিবিহীন বাংলাদেশিদের বৈধ হওয়ার সুযোগ