Alexa
রোববার, ২২ মে ২০২২

সেকশন

epaper
 

শক্তিবর্ধক পানীয়ের দেদার বিক্রি

আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:৪৪

শক্তিবর্ধক পানীয়ের দেদার বিক্রি সখীপুর উপজেলার সর্বত্র অবাধে বিক্রি হচ্ছে অনুমোদনহীন শক্তিবর্ধক পানীয় (ড্রিংকস)। নিয়মিত পান করে আসক্ত হয়ে পড়ছেন মধ্য ও উঠতি বয়সের যুবকেরা। এতে নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা তৈরি হতে পারে বলছেন চিকিৎসকেরা। সদরসহ গ্রামীণ বাজারগুলোর মুদিদোকান, এমনকি চা-দোকানেও পাওয়া যাচ্ছে এসব ভেজাল পানীয়। লাভ বেশি হওয়ায় অবাধে বিক্রি করছেন দোকানিরা।

সরেজমিন উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম ও বাজার ঘুরে দেখা গেছে, শহর থেকে অজপাড়াগাঁও, হাটবাজার, পান-সিগারেট, কনফেকশনারি ও মুদিদোকানগুলোতেও বিভিন্ন নামী-বেনামি কোম্পানির পানীয় বিক্রি হচ্ছে। সন্ধ্যা হলেই এসব পানীয় কিনতে যুবক থেকে মধ্যবয়সী ও পঞ্চাশোর্ধ্বরাও দোকানের আশপাশে ঘুরঘুর করেন। আর দোকানিরা এসব পানীয়কে হারবাল, আয়ুর্বেদ, ইউনানি ওষুধ বলে বিক্রি করছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুজন বিক্রেতার (মুদিদোকানি) সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিভিন্ন কোম্পানির প্রস্তুত করা শক্তিবর্ধক সিরাপগুলো বিভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন নামে বাজারে সরবরাহ করা হয়। এসব বোতলের গায়ে বিএসটিআইয়ের (বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন) সিল লাগানো থাকে। তাই তাঁরা মনে করেন, এটা বৈধ ও অন্যান্য এনার্জি ড্রিংকসের মতো স্বাভাবিক পানীয়। এসব পানীয় বিক্রি করে প্রতি বোতল থেকে ২০-৩০ টাকা পর্যন্ত মুনাফা পাচ্ছেন তাঁরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন সেবনকারী বলেন, এর ক্ষতিকর দিক জানা নেই। তিনি বাজারে প্রচলিত এনার্জি ড্রিংকসের মতোই মনে করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসি বিভাগের গবেষণা সদস্য ও রিসার্চ কো-অর্ডিনেটর খান তাজুল আরেফিন রাসেল আজকের পত্রিকাকে বলেন, এসব পানীয় কোনোভাবেই আয়ুর্বেদ, ইউনানি বা হারবাল ওষুধ হতে পারে না। হারবাল ওষুধ মনে করে এসব পানীয় সেবন করা কোনোভাবেই উচিত নয়। সাময়িক শক্তি বৃদ্ধি পেলেও ধীরে ধীরে যৌনক্ষমতা একেবারে হারিয়ে যাওয়ারও শঙ্কা রয়েছে। এসব পানীয় উচ্চ রক্তচাপেরও কারণ হতে পারে। তাই যেকোনো ওষুধ সেবনের ক্ষেত্রেই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    সেচ খরচে দিশেহারা কৃষক

    চার শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত

    অল্প বৃষ্টিতেই কোমর পানি

    ঝুঁকিতে বসতভিটা ও কৃষিজমি

    সখীপুরে ঝড়-বৃষ্টিতে পাঁচ সরকারি কার্যালয় জলাবদ্ধ

    চিকিৎসার টাকা জোগাতে উপহারের ঘর বিক্রি

    ভারতে বিভিন্ন আইনের অপব্যবহার বেড়ে চলেছে: আর্টিকেল নাইনটিন

    বঙ্গবন্ধু কেমিক্যাল মেটেরোলজি অলিম্পিয়াডে ১ম শাবিপ্রবির রিফাত

    মৃত্যুর খবরেই ঘোড়ায় চড়ে ছোটেন মনু মিয়া, খোঁড়েন ‘শেষ ঠিকানা’

    পাবনায় চোর সন্দেহে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

    বিএলএফ ও ট্যানারি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের মে দিবস উদ্যাপন

    সিঙ্গাপুরের প্রধান কোচ হলেন সালমান বাট