Alexa
শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

বিএনপিকে হাইকোর্ট ঘেরাও করতে বললেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:৩৭

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। ফাইল ছবি  গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিএনপির নেতাদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘খালেদা জিয়া অসুস্থ। তাকে বিদেশে নিতে দয়া-ভিক্ষা কেন? জেলখানা ঘেরাও করুন, হাইকোর্ট ঘেরাও করুন। ২০ হাজার লোক নিয়ে ফেব্রুয়ারির মধ্যে হাইকোর্ট ঘেরাও করুন। বিচারপতিদের জিজ্ঞেস করুন, জামিন দেওয়া হচ্ছে না কেন? জামিন পাওয়া তাঁর মৌলিক অধিকার। হাইকোর্টের বিচারপতিদের নৈতিক দায়িত্ব স্বপ্রণোদিত হয়ে খালেদা জিয়াকে জামিনে মুক্তি দেওয়া। তারপর তিনি কোথায় যাবেন সেটা তাঁর ব্যাপার।’

বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের চলমান সংলাপ প্রসঙ্গে জাফরুল্লাহ বলেন, ‘রাষ্ট্রপতিকে বলব, হাস্যকর সংলাপ বন্ধ করুন। এটা ফাজলামি ছাড়া আর কিছু নয়।’

আজ শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয় পার্টির প্রয়াত মহাসচিব জাফরুল্লাহ খান চৌধুরী লাহরীর স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা। এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, এনপিপির একাংশের চেয়ারম্যান ফরিদুজ্জামান ফরহাদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর অংশ) চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দার।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘গণতন্ত্র টানেলের নিচে আটকে পড়েছে। এখন একটাই পথ, সরকারের উচিত দ্রুত পদত্যাগ করা, জাতীয় সরকার গঠন করা। এই সরকারের অধীনে কোনোভাবেই গণতন্ত্র আসবে না, নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। বিএনপিকে বলব, রাজপথে নামুন। অনুমতির দিকে চেয়ে থাকবেন না। কার কাছ থেকে, কিসের অনুমতি নেবেন? কিসের ভয় পাচ্ছেন? রাস্তায় নামুন, আন্দোলন করুন। খালেদা জিয়ার জন্য দয়া চাইছেন কেন? জেলখানার দরজা ভেঙে তাঁকে বের করে নিয়ে আসুন।’

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা বলেন, ‘উন্নয়নের নাম করে জনগণের স্বাধীনতা নিয়ে নেওয়া, মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা—এটা মানায় না। পশ্চিমের সামান্য ধমকেই এখন দালাল নিয়োগ করা শুরু হয়েছে। সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুললে পাসপোর্ট কেড়ে নেওয়ার কথা বলা হচ্ছে। পাসপোর্ট নাগরিক হিসেবে মৌলিক অধিকার। এটা কারও দয়া না। আমি যেটা সত্য মনে করি, সেটা বলার অধিকার আমার রয়েছে। সরকারের দায়িত্ব জবাবদিহিতা, যেটা তারা বানান করাও ভুলে গেছেন। জবাবাদিহিতা না হলে গণতন্ত্র হয় না।’

নিতাই রায় চৌধুরী বলেন, বাকশালের সময়েও কথা বলা যেত। এখন সেটাও নেই। স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব এখন বিপন্ন। স্বাধীনতা নেই বললেও ভুল হবে না। জনগণ পরিবর্তন চায়। তাই সবাইকে প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    আমেরিকার এই নিষেধাজ্ঞা একটা সুযোগ: নুর

    আগামী নির্বাচন আগের দুই নির্বাচনকে ছাড়িয়ে যাবে:  জাফরুল্লাহ চৌধুরী

    মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে দেশে গুম-হত্যা বন্ধ হয়েছে: রেজা কিবরিয়া

    বিএনপির লবিস্ট নিয়োগের অর্থ কীভাবে বাইরে গেল খতিয়ে দেখছে সরকার: তথ্যমন্ত্রী

    গণতন্ত্র ফেরানো ছাড়া খালেদা জিয়ার মুক্তি অসম্ভব: খন্দকার মোশাররফ

    ভিয়েতনামের ‘মননশীলতার পিতা’ হ্যন আর নেই

    রামেকে করোনা উপসর্গে দুজনের মৃত্যু

    আইপিএলের নিলামে সাকিব-মোস্তাফিজের ভিত্তিমূল্য ২ কোটি রুপি

    একের সঙ্গে হরেক