Alexa
শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

ফেরি চলবে ধনু নদে, ঘুচবে যোগাযোগবিচ্ছিন্নতা

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১২:৪০

খালিয়াজুরী উপজেলার রসুলপুর ঘাট দিয়ে নৌকায় ধনু নদ পার হচ্ছেন মানুষ। সম্প্রতি তোলা ছবি। আজকের পত্রিকা নেত্রকোনা জেলা শহর থেকে খালিয়াজুরীর দূরত্ব ৬০ কিলোমিটার। আর মদনের উচিতপুর থেকে খালিয়াজুরী সদরের দূরত্ব ১৭ কিলোমিটার। ধনু নদের কারণে মূল ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন খালিয়াজুরীর জনপদ। সেখানে চলাচলের জন্য একটি ফেরির অনুমোদন হয়েছে। ফেরি চলাচল শুরু হলে খালিয়াজুরী উপজেলার সঙ্গে জেলা শহর নেত্রকোনাসহ দেশের অন্যান্য এলাকার যোগাযোন পরিবর্তন আসবেে। ঘুচবে যোগাযোগ বিচ্ছিন্নতা । নেত্রকোনা সড়ক বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, ধনু নদে একটি ফেরি সার্ভিস চালুর নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে।

জানা গেছে, নেত্রকোনার হাওড়বেষ্টিত উপজেলা খালিয়াজুরীর দীর্ঘদিনের সমস্যার অবসান হতে যাচ্ছে। ওই উপজেলাকে বিচ্ছিন্ন করে প্রবাহিত ধনু নদ পারাপারে বরাদ্দ হয়েছে ফেরি। ফেরি রসূলপুর ঘাটে পৌঁছলে যেকোনো যানবাহন পৌঁছাবে খালিয়াজুরী উপজেলা শহরে। গত বুধবার চার চাকার গাড়ি দেখে অবাক নেত্রকোনার খালিয়াজুরী হাওড় উপজেলার মানুষজন।

স্থানীয়রা বলছেন, ধনু নদে একটি সেতু হলে বদলে যেতো পুরো উপজেলার চিত্র। চার চাকার গাড়ি চলার দৃশ্য দেখতে বুধবার রাস্তার দুইপাশে ভিড় জমান হাওড়পাড়ের শতশত মানুষ। ওইদিন বিকেলে খালিয়াজুরী উপজেলা সদরে এই দৃশ্য দেখেন স্থানীয়রা।

এই দুটি গাড়িই খালিয়াজুরী উপজেলা সদরের মাটিতে চলা প্রথম কোনো চার চাকার যান। এর আগে আর কোনোদিন এই উপজেলায় সদরে চার চাকার যান পৌঁছেনি। খুব সহজে গাড়িগুলো সেখানে পৌঁছায়নি। যেতে পোহাতে হয়েছে নানা ঝামেলা। নৌকায় পার করতে হয়েছে ধনু নদ। আর সে জন্য কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থেকে আনতে হয়েছে ইঞ্জিনচালিত প্রশস্ত নৌকা। নদীর পাড় হতে নির্মাণ করতে হয়েছে অ্যাপ্রোচ সড়ক। আর এসব মোকাবিলা করতে হয়েছে কোভিড-১৯ টিকা পৌঁছাতে।

খালিয়াজুরীর সন্তান ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার তাঁর উপজেলাবাসীকে প্রথম সুখবরটি দেন। নিজের ফেসবুকে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, ‘...চেষ্টা করছিলাম ধনুতে একটি ফেরির ব্যবস্থা করতে। আজ সেই ফেরিটির অনুমোদন হলো। জয়বাংলা।’

খালিয়াজুরী উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক স্বাগত সরকার শুভ বলেন, ‘উপজেলা সদরে কোনো যানবাহন না আসায় আমরা সব দিক দিয়ে পিছিয়ে আছি। ইউনিয়নগুলো থেকে কেউ চাইলেই রাতের বেলা উপজেলা সদরে আসতে পারেন না। জরুরি ও জটিল রোগীদের পরিবহন করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। দূরের শিক্ষার্থীরা সদরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এসে নিয়মিত ক্লাস করতে পারে না। কৃষিপণ্য ছাড়াও ব্যবসা-বাণিজ্যের বিভিন্ন মালামাল আনা-নেওয়া করতে হয় শ্রমিক দিয়ে। তাই একটি ফেরি চালু হলে আমাদের উপজেলার সম্পূর্ণ চিত্রটি পাল্টে যাবে। গতি আসবে এ অঞ্চলের অর্থনীতিতে।’

খালিয়াজুরী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘ধনু নদটির জন্য দীর্ঘদিন এই উপজেলা শহর বিচ্ছিন্ন। জরুরি প্রয়োজনে বা কোনো প্রসূতি মাকে নিয়ে জেলা শহরে যেতে পারেন না স্থানীয়রা। রসুলপুর ঘাটে ফেরি সার্ভিস চালু হলে জেলা সদর, বিভাগ কিংবা রাজধানীর সঙ্গে খালিয়াজুরীর সার্বক্ষণিক যোগাযোগ স্থাপিত হবে। খালিয়াজুরী থেকে জেলা সদর পর্যন্ত সরাসরি বাস সার্ভিস চালু করা যাবে। সিএনজিচালিত অটোরিকশা, প্রাইভেটকার নিয়ে খুব সহজেই পৌঁছে যাবে খালিয়াজুরীতে। এ ছাড়া কৃষিনির্ভর এই এলাকার কৃষকদের পণ্য পরিবহন সহজ হবে।’

নেত্রকোনা সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী হামিদুল ইসলাম বলেন, ‘খালিয়াজুরী উপজেলার রসুলপুর ঘাটে ধনু নদে একটি ফেরি সার্ভিস চালু করার নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে সেটি বরাদ্দ হবে।’ খুব দ্রুত সময়ে সেখানে উঁচু একটি সেতু এবং মদনের উচিতপুর থেকে খালিয়াজুরী সদর পর্যন্ত উড়াল সড়ক নির্মাণের চিন্তাভাবনা আছে বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    সার সংকট নিরসনে ৩৩ ডিলারকে ৩ দিনের সময়সীমা

    ভবন থাকলেও আসবাব সংকটে টিনশেডে পাঠ

    তিনটি পরিকল্পিত হত্যা প্রমাণ পুলিশের হাতে

    হ্রদে মিলছে ঝাঁকে ঝাঁকে মাছ

    বাড়বে বাণিজ্য, মিলবে কাজ

    সওজের সড়কে পৌরসভার নামে টোল আদায় বন্ধে ধর্মঘট

    অলিম্পিকেও নিষিদ্ধ হতে পারে ভারত

    ভোলার গ্যাস নিয়ে বড় পরিকল্পনায় সরকার

    দাম্মামে ফ্রেন্ডস অব বাংলাদেশ আ. লীগের শোক দিবস পালিত 

    কুমিল্লায় কাভার্ডভ্যানের চাপায় স্বেচ্ছাসেবক দল নেতার মৃত্যু

    রুশদির ওপর হামলায় ইমরান খানের নিন্দা

    ফেসবুক লাইভে এসে নিজের দুর্দশার কথা জানালেন এক প্রবাসী