Alexa
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

কৃষিজমির মাটি যাচ্ছে ভাটায়

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৪:৩৩

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে অবৈধ ট্রাক্টর মাটি নেওয়ায় নষ্ট হচ্ছে ফসলি জমি। উপজেলার সুবিদপুর এলাকা থেকে গতকাল তোলা ছবি। আজকের পত্রিকা চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায় অবৈধ ট্রাক্টরে করে ফসলি জমি থেকে মাটি নেওয়ার হিড়িক পড়েছে। ফসলি জমিতে ডেকো মেশিন বসিয়ে এসব ট্রাক্টরের মাধ্যমে মাটি নেওয়ায় বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এসব জমিতে ফসল ফলাতেও পারছেন না স্থানীয় কৃষকেরা। এ ছাড়া কাঁচা রাস্তা দিয়ে এসব ট্রাক চলাচলে ধুলা-বালুতে আশপাশের ঘর-বাড়ি, দোকান পাট, স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীসহ পথচারীরা চরম ভোগান্তির মধ্যে রয়েছে বলেও জানা গেছে। তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ চান ভুক্তভোগীরা।

সরেজমিন দেখা গেছে, উপজেলার উভারামপুর, নূরপুর, ভূলাচোঁ এলাকায় প্রায় ১০-১২টি অবৈধ ট্রাক্টর মাটি উত্তোলনের কাজে নিয়োজিত রয়েছে। এসব অবৈধ ট্রাক্টরের চালক মাহাবুব, খলিল, কামাল, রুবেল, পিন্টু ও জাহাঙ্গীরের অত্যাচারে এলাকার পথচারীরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া গত কয়েক বছর ধরে টোরামুন্সীর হাটে ইউ এন বি, বি জে কে, এম এন্ড বি ঝিকঝাক ও হাবিব ইট ভাটাসহ প্রায় ১০টি ভাটায় ইট তৈরির কাজে কৃষি জমি থেকে অবৈধ ট্রাক্টরের মাধ্যমে মাটি কেটে নেওয়া হচ্ছে। এসব অবৈধ ট্রাক্টর মালিক সাচনমেগের খোরশেদ, জাহাঙ্গীর মজুমদার, কাইতড়া গ্রামের কামাল, সাইফুল, নূরপুর সালাউদ্দিন, উভারামপুরের আলমগীর হোসেন বলে জানা গেছে।

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে অবৈধ ট্রাক্টর মাটি নেওয়ায় নষ্ট হচ্ছে ফসলি জমি। উপজেলার সুবিদপুর এলাকা থেকে গতকাল তোলা ছবি। আজকের পত্রিকা ক্ষতিগ্রস্ত জমির মালিক ইউসুফ, হারুন, মাসুদ ও রফিকসহ কয়েকজন কৃষক বলেন, ‘মুন্সীর হাটের ইট ভাটার মালিক ফরিদ হোসেন, হান্নান মিয়া, সুমন মিয়াসহ এক দল ভূমিদস্যুরা ভেকো মেশিন দিয়ে তাঁদের জমি থেকে মাটি কেটে নিচ্ছেন। এতে জমিতে চাষাবাদ করতে না পেরে বাধ্য হয়ে তাঁদের কাছে মাটি বিক্রি করতে হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তাঁরা। এ নিয়ে ইতিপূর্বে জমির কয়েকজন মালিক মাটি উত্তোলন বন্ধ করতে বললে ভূমিদস্যুরা তাঁদের হুমকি দিয়েছেন বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে তাঁরা গত বছরে প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ করেও কোনো সুরাহ পাইনি বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ক্ষতিগ্রস্থ জমির মালিকেরা আরও বলেন, এসব ভূমিদস্যুদের অবৈধ ট্রাক্টর গ্রামীণ রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত চলাচলের ফলে এলাকার কৃষি জমি ও রাস্তা-ঘাট ভেঙে যাচ্ছে। কিন্তু গত মাসখানেক ধরে ফসলি জমির মাটি কেটে পুরো এলাকায় পুকুরে পরিণত করে ফেলেছে। তাই জরুরি ভিত্তিতে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদ হোসেন বলেন, ‘বিষয়টি নজরে এসেছে। আমরা অবশ্যই অবৈধ ট্রাক্টরের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিব। সেই সঙ্গে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করলে এর দ্রুত সমাধান হবে।

ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিউলী হরি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত জমির মালিক বা ভুক্তভোগীদের মাধ্যমে লিখিত অভিযোগ পেলে ভালো হতো। তারপরেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখব।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    সন্ত্রাস-নাশকতা বড় গুনাহের কাজ

    প্রশাসনের দিকে অভিযোগের তির নৌকার ১০ প্রার্থীর

    মেসিকে টপকে টানা দ্বিতীয়বার ফিফার বর্ষসেরা খেলোয়াড় হলেন লেভানডফস্কি

    করোনার সঙ্গে ইনফ্লুয়েঞ্জা ইউরোপে ‘টুইন্ডেমিক’

    অভিনয়শিল্পী শিমুর বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার

    চীনের নজর মধ্যপ্রাচ্যে বড় চ্যালেঞ্জ যুক্তরাষ্ট্র

    নীলফামারীতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ, যুবক আটক

    আহত শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার দায়িত্ব নিল শাবিপ্রবি প্রশাসন