Alexa
শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

পরীক্ষামূলক মধু সংগ্রহ শুরু

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:২৯

পীরগঞ্জের পাহাড়পুর গ্রামে সরিষা ফুল থেকে মধু সংগ্রহের জন্য বসানো হয়েছে মৌমাছির বাক্স। ছবি: আজকের পত্রিকা পীরগঞ্জে এখন দিগন্ত বিস্তৃত সরিষাখেতে চোখে পড়ছে হলুদ ফুলের সমারোহ। এসব খেতে এবার পরীক্ষামূলক মৌমাছির বাক্স বসিয়ে মধু আহরণ করছেন চাষিরা। এ জন্য কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে তাঁদের প্রশিক্ষণের পাশাপাশি মৌমাছি ও বাক্স সরবরাহ করা হয়েছে।

সরিষার ফুল থেকে মধু আহরণকে সাথি ফসলের সমতুল্য বলে মনে করছে কৃষি বিভাগ। আর মৌমাছির মাধ্যমে ফুল থেকে মধু সংগ্রহ হওয়ায় সরিষার পরাগায়নেও সহায়তা হচ্ছে, উৎপাদন বাড়ছে। সমন্বিত এই চাষে চাষিদের আলাদাভাবে আয় হচ্ছে। এতে উৎপাদন খরচ পুষিয়ে লাভের পাল্লা ভারী হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানিয়েছেন।

উপজেলা কৃষি বিভাগ জানায়, পীরগঞ্জে এ বছর ১ হাজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে উন্নত জাতের সরিষার আবাদ হয়েছে। সেখান থেকে এবার মানসম্মত মধু সংগ্রহের উদ্যোগ নিয়েছে কৃষি বিভাগ। সংস্থার দেওয়া মৌ বাক্স চাষিরা সরিষাখেতে বসিয়ে মধু সংগ্রহ করছেন।

কৃষি বিভাগ বলছে, জমিতে একই সঙ্গে দুটি ফসল উৎপাদন করা হলে সেটিকে সাথি ফসল হিসেবে গণ্য করা যায়। সরিষাখেত থেকে মধু সংগ্রহও সাথি ফসলের সমতুল্য। সরিষা ফুলের মধু দিয়ে চাষি পারিবারিক পুষ্টির চাহিদা মিটিয়ে বাজারে বিক্রি করে বাড়তি আয়ও করতে পারছেন।

উপজেলার বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে এখন সরিষা ফুলের মনকাড়া দৃশ্য চোখে পড়ার মতো। কৃষকেরা একদিকে যেমন মাঠে সরিষার পরিচর্যা করছেন, অপরদিকে তেমনি খেতের মধ্যে মৌমাছির বাক্স বসিয়ে মধু সংগ্রহ করছেন।

উপজেলার পাহাড়পুর গ্রামে সরিষাখেতে এ বছর পরীক্ষামূলকভাবে মৌ চাষের বাক্স স্থাপন করেছেন ডিপটি মিয়া। শুরুতেই মধু চাষে সফলতার আশা করছেন তিনি। ডিপটি মিয়া বলেন, ‘সরিষা ফুল থেকে মধু সংগ্রহের পদ্ধতি সম্পর্কে উপজেলা কৃষি বিভাগ প্রশিক্ষণ দিয়েছে। আমরা পরীক্ষামূলকভাবে মধু সংগ্রহ শুরু করেছি। একটু মধুও পেয়েছি।’

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাদেকুজ্জামান সরকার আজকের পত্রিকাকে জানান, মৌমাছি সরিষার ফুলে উড়ে উড়ে বসে মধু সংগ্রহ করে। এতে ফুলে সহজে পরাগায়ন ঘটে। সরিষাখেতের পাশে মৌ চাষের বাক্স স্থাপন করা হলে ফলন অধিক হয়। পাশাপাশি চাষিরা মধু আহরণ করে বাড়তি টাকাও আয় করতে পারেন।

সাদেকুজ্জামান বলেন, এ বছর উপজেলায় কৃষি বিভাগ থেকে প্রশিক্ষণ দিয়ে পাঁচ চাষিকে বিনা মূল্যে মৌমাছি ও বাক্স দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষামূলক উদ্যোগে দেখা গেছে, চাষিদের মধু চাষেও আগ্রহ বাড়ছে। এতে সফলতা আসলে চাষিদের সরিষা চাষ ও ফুল থেকে মধু সংগ্রহের জন্য ভবিষ্যতে আরও উৎসাহ দেওয়া হবে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    তিন বছরের কাজ শেষ হয়নি এগারোতেও

    তিন বছরেও নিজস্ব ভবন হয়নি শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের

    আবারও টালিউডে মোশাররফ

    ছোট্ট ক্যারিয়ারে অনেক প্রাপ্তি

    বর্জ্যে বেহাল পুরান ঢাকার বাংলাদেশ মাঠ

    আইপিএলের নিলামে সাকিব-মোস্তাফিজের ভিত্তিমূল্য ২ কোটি রূপি

    একের সঙ্গে হরেক

    আজকের রাশিফল

    নবজাতকের র‍্যাশ হলে

    বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলবে ইংল্যান্ড, ভনের ভবিষ্যদ্বাণী