Alexa
শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

শিলাবৃষ্টিতে এক হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১১:২৮

 চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১৫ মিনিটের শিলাবৃষ্টিতে সব হারিয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছেন অধিকাংশ কৃষক। তাঁদের শীতকালীন সবজিসহ প্রায় সব ধরনের ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিন পার করছেন কৃষকেরা। গত বুধবারের শিলাবৃষ্টিতে প্রায় এক হাজার হেক্টর ফসলের ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে কৃষি বিভাগ।

সরেজমিন গতকাল শুক্রবার সকালে জেলার রামচন্দ্রপুর এলাকায় দেখা গেছে, ফুলকপি, বাঁধাকপি, লালশাক, টমেটো, পেঁয়াজ, আলুগাছ, সরিষা, আমগাছ, বরইসহ কৃষকের বিভিন্ন ফসল মাটিতে পড়ে আছে। বাঁধাকপির গাছগুলো টুকরো টুকরো হয়ে গেছে। সরিষার গাছ ভেঙে গেছে। আমগাছের পাতা ঝরে আশপাশে পড়ে রয়েছে। অনেক পেঁয়াজের জমিতে গিয়ে বোঝা যাচ্ছে না এ জমিতে পেঁয়াজ লাগানো ছিল কি না। কষ্টে কৃষকেরা মাথায় হাত দিয়ে বসে আছেন। তাঁরা সারা বছর সংসার কী দিয়ে চালাবেন, তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন।

এর আগে বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে রানীহাটি, রামচন্দ্রপুর, ছত্রাজিতপুর, মহারাজপুর, বারঘরিয়া, রামজীবনপুর, বাবুপুর, চরপাকা, নয়ালাভাঙ্গাসহ বিভিন্ন স্থানে ঝোড়ো হাওয়া ও শিলাবৃষ্টি হয়। এতে বেশি ক্ষতি হয়েছে শিবগঞ্জ উপজেলার চরপাকা ইউনিয়নে। এ সময় কিছু বাড়িরও ক্ষতি হয়েছে।

রানীহাটি এলাকার আবদুস সালাম জানান, এ বছর শীতের বেশ কিছু সবজি ও ফল চাষ করেছিলেন তিনি। আর ১৫ দিন আগে থেকে কিছু সবজি বাজারে বিক্রিও করছিলেন তিনি। কিন্তু বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে হঠাৎ শিলাবৃষ্টি এসে সব লণ্ডভণ্ড করে দিয়েছে। মুলাসহ বিভিন্ন সবজি গাছের ফুল-ফল ঝরে গেছে। এমনকি তাঁর রোপণ করা বাঁধাকপি নষ্ট হয়ে গেছে।

চরপাকা ইউনিয়নের কৃষক রবিউল ইসলাম বলেন, তাঁর জমিতে পেঁয়াজ, রসুন, সরিষা, ফুলকপি, বেগুন, আলুসহ বিভিন্ন শীতকালীন সবজি ছিল। শিলাবৃষ্টিতে সব নষ্ট হয়ে গেছে। বিশেষ করে পেঁয়াজের অনেক গাছ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। আর সরিষার গাছ ভেঙে গেছে। তিনি আরও বলেন, ‘এ কষ্ট বলে বোঝানো যাবে না। জমির কথা মনে পড়লেই কেমন যেন লাগছে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, গতকালের শিলাবৃষ্টিতে সরিষা, কলা, বেগুন, টমেটোসহ জেলার ৮১২ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। তার মধ্যে বেশি সরিষা। তবে মোট কত টাকার ক্ষতি হয়েছে, তা এখন বলা সম্ভব নয়। আর যেহেতু শিলাবৃষ্টির পর থেকেই আবহাওয়া ভালো হয়ে গেছে তাই ক্ষতি অনেকটা কমে আসবে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    বিতর্কে বিভক্ত ঢাকাই সিনেমা

    নিয়ন্ত্রণহীন বাজারে অসহায় বাণিজ্যমন্ত্রী

    অসততা

    শেষযাত্রা

    সার সংকট নিরসনে ৩৩ ডিলারকে ৩ দিনের সময়সীমা

    ভবন থাকলেও আসবাব সংকটে টিনশেডে পাঠ

    আষাঢ়ে নয়

    এ লড়াই এগিয়ে যাওয়ার

    বিতর্কে বিভক্ত ঢাকাই সিনেমা

    শেষযাত্রা

    অসততা

    নিয়ন্ত্রণহীন বাজারে অসহায় বাণিজ্যমন্ত্রী

    অলিম্পিকেও নিষিদ্ধ হতে পারে ভারত