Alexa
বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

ঢাবির সাবেক অধ্যাপককে হত্যার পেছনে তাঁর বাড়িরই রাজমিস্ত্রি!

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:১৮

ঢাবির পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের সাবেক অধ্যাপক সাইদা গাফফার। ছবি: আজকের পত্রিকা নিখোঁজের দুই দিন পর গাজীপুর মহানগরীর দক্ষিণ পানিশাইল এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক সাইদা খালেকের মরদেহ। আজ শুক্রবার সকালে মরদেহ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ওই অধ্যাপকেরই বাড়ির এক রাজমিস্ত্রিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

সাইদা খালেক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ছিলেন। তিনি মোছা. সাইদা গাফফার নামেই বেশি পরিচিত ছিলেন। 

গাজীপুর মহানগর পুলিশের কাশিমপুর থানার ওসি মাহবুবে খোদা জানান, অধ্যাপক সাইদা খালেক মহানগরীর কাশিমপুরের পানিশাইল এলাকার মোশারফ মৃধার বাসায় ভাড়া থাকতেন। তিনি সেখানে থেকে নিজের নির্মাণাধীন বাড়ির কাজকর্ম দেখাশোনা করতেন। তাঁকে গত ১২ জানুয়ারি থেকে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে সাইদা খালেকের মেয়ে সাদিয়া কাশিমপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। 

ওসি বলেন, ‘নিখোঁজের জিডি করার পর সাইদা খালেকের সন্ধানে তদন্তে নামে পুলিশ। তদন্তের একপর্যায়ে পুলিশ সন্দেহজনকভাবে মো. আনোয়ারুল ইসলামকে (২৫) আটক করে। তিনি সাইদা খালেকের প্রকল্পের রাজমিস্ত্রি হিসেবে কাজ করতেন। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানান, গাজীপুর মহানগরীর দক্ষিণ পানিশাইল এলাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আবাসন প্রকল্পের ভেতরে একটি ঝোপের মধ্যে সাইদার মরদেহ ফেলে রাখা হয়েছে। পরে তাঁর দেওয়া তথ্যমতে শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে বর্ণিত স্থান থেকে গলায় ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।’ 

হত্যার কারণ কী জানতে চাইলে ওসি মাহবুবে খোদা বলেন, ‘এ বিষয়ে গ্রেপ্তার আনোয়ারুলকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। কেন, কী উদ্দেশ্যে হত্যা করা হয়েছে, আরও কেউ জড়িত আছে কি না—এসব জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, সাইদা খালেককে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।’ 

এদিকে সাইদা খালেককে হত্যার ঘটনায় তাঁর ছেলে সাউদ ইফতেখার জহির বাদী হয়ে আটক আনোয়ারুল ইসলামকে আসামি করে কাশিমপুর থানায় হত্যা মামলা করেছেন। সাউদ ইফতেখার বলেন, ‘আম্মার হত্যার বিষয়ে আমাদের কোনো ধারণা নেই। পুলিশ তদন্ত করছে।’ তিনি জানান, আজ বাদ এশা বনানী ১২ নং বাইতুন নুর জামে মসজিদে সাইদা খালেকের জানাজার শেষে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হবে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    রাজধানীতে চলন্ত বাস থেকে ফেলে দিয়ে হত্যার অভিযোগ

    মানিকগঞ্জে কৃষক শাইজুদ্দিন হত্যা মামলায় ১ জনের ফাঁসির আদেশ

    শার্শায় শাকিব হত্যার ৩ আসামি গ্রেপ্তার

    চট্টগ্রামে শুল্ক আত্মসাতের দায়ে কারাগারে দুই রাজস্ব কর্মকর্তা

    নান্দাইলে ট্রলি-অটোর সংঘর্ষে নিহত ১

    টঙ্গীতে টিকা নিতে এসে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

    রাজধানীতে চলন্ত বাস থেকে ফেলে দিয়ে হত্যার অভিযোগ

    বিআরটিএর অভিযান: স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ২৪ বাসে মামলা

    মানিকগঞ্জে কৃষক শাইজুদ্দিন হত্যা মামলায় ১ জনের ফাঁসির আদেশ

    শার্শায় শাকিব হত্যার ৩ আসামি গ্রেপ্তার

    গ্রাহক সেবা বাড়াতে আমাজনের সঙ্গে চুক্তি করছে টেলিনর

    রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ক্যাম্প চালু করল হোপ’ ৮৭