Alexa
বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

বৃষ্টি হলেই কাদায় মাখামাখি

আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০২২, ১২:৪০

বৃষ্টিতে রাস্তায় পানি। গতকাল জামালগঞ্জের সাচনা বাজারে। আজকের পত্রিকা জামালগঞ্জের সাচনা বাজার উপজেলার বাণিজ্যকেন্দ্র হলেও উন্নয়নে পিছিয়ে রয়েছে। খানাখন্দে ভরা রাস্তাটি সামান্য বৃষ্টিতেই কর্দমাক্ত হয়ে যায়। এদিকে বর্জ্য নিষ্কাশনের জন্য নালার ব্যবস্থা না থাকায় রাস্তায় পানি জমে যায়। এমন অবস্থায় ভোগান্তিতে পড়তে হয় ব্যবসায়ীসহ বাজারে আগতদের।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাজারের প্রতিটি রাস্তার বেহাল অবস্থা। খানাখন্দে ভরা রাস্তায় পানি জমে কাদা হয়ে গেছে। কাঁচাবাজার ছাড়া অন্য কোথাও পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা নেই। এদিকে কর্তৃপক্ষ কোনো উদ্যোগ না নেওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন ব্যবসায়ী, ক্রেতা-বিক্রেতা ও কৃষকেরা। বাধ্য হয়েই কাদা মাড়িয়ে বাজারে যাতায়াত করছেন ব্যবসায়ীরা। বাজারটির অভ্যন্তরে যাওয়ার রাস্তা ও দোকানের জায়গা কাদায় মাখামাখি। এ নিয়ে সাধারণ ব্যবসায়ীসহ ক্রেতা-বিক্রেতাদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, প্রবেশের পাঁচটি রাস্তার অবস্থা নাজুক। দীর্ঘদিন রাস্তাগুলো সংস্কার না করায় বিভিন্ন জায়গায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে উত্তর ইউনিয়ন থেকে বাজারে প্রবেশদ্বারের মুখে রাস্তার কাজ অসম্পূর্ণ থাকায় একটু বৃষ্টি হলেই হাঁটুপানি জমে থাকে। পানি ও বর্জ্য নিষ্কাশনেরও কোনো ব্যবস্থা নেই। ফলে গত দুই দিনের বৃষ্টিতে কয়েকটি রাস্তার প্রবেশের মুখে পানি ও কাদা জামে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে গেছে।

ব্যবসায়ী মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে এই বাজারে অবস্থান করছি, কিন্তু আজ পর্যন্ত দৃশ্যমান কোনো কাজ দেখিনি। রাস্তায় ঢালাইয়ের কাজ না হওয়ায় বৃষ্টি হলেও পানি জমে কাদা উঠে যায়। এমন অবস্থায় চলাচলে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। অনেক ক্রেতা আবার রাস্তার বেহাল অবস্থার কারণে বাজারে আসতে চান না।’

এই ব্যবসায়ী আরও বলেন, ‘সরকার এই বাজার থেকে রাজস্ব আদায় করে, অথচ রাস্তাটার উন্নয়ন দৃশ্যমান নয়। বৃষ্টি ছাড়াও বাজারে চলাফেরা করতে সমস্যা হয়। বাজারের পুরো রাস্তাটাই ভাঙা ও খানাখন্দে ভরা।’

এ বিষয়ে সাচনা বাজার কমিটির সভাপতি চিত্ত রঞ্জন পাল আজকের পত্রিকাকে বলেন, রাস্তাগুলোর এমন অবস্থার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

রাস্তা সংস্কারের বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী আব্দুস সাত্তার জানান, বাজারের রাস্তাগুলো সংস্কার করা জরুরি হয়ে উঠেছে। তবে এলজিইডি থেকে এটা সংস্কার করার কোনো সুযোগ নেই। তবে এডিপি থেকে সংস্কার করার সুযোগ রয়েছে। প্রস্তাব এলে এ বছরই করা সম্ভব বলে তিনি জানান।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল আল আজাদ বলেন, ‘বাজারে পানি নিষ্কাশনের জন্য নালার কাজ চলমান রয়েছে। দ্রুত এটি সচল করা হবে। আগামী শনিবার বাজারটি সরেজমিনে পরিদর্শন করে সংস্কারের উদ্যোগ নেব।’ লোকাল বরাদ্দ থেকে এ বছরই বাজারের রাস্তার মেরামতের কাজ করা হবে বলেও জানান চেয়ারম্যান।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    দোয়া সফলতার হাতিয়ার

    শ্রীবরদীতে সারের কৃত্রিম সংকট, বেশি দামে বিক্রি

    ফ্যাশনেবল ফিউশন

    নিরাপদ অভিবাসন নিয়ে কর্মশালা

    ঘাটাইলে গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৩ অবৈধ ইটভাটা

    কিংবদন্তিদের মেলায় যাওয়া হচ্ছে না রফিক সুমনদের

    দুর্নীতি রোধে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে ডিসিদের সহযোগিতা চায় দুদক

    ৪ জেলায় বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ, তিন বিভাগে বৃষ্টির আভাস

    ৭০০ এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট চালুর মাইলফলক অর্জন করল ব্র্যাক ব্যাংক

    জীবন বীমার এমডিসহ দুজনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

    জাবিতে ভর্তি পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ তদন্তে ইউজিসি, শিক্ষক সমিতির আপত্তি