স্বামীর সঙ্গে ফোনে কথা বলার সময় না দেখেই সাপের ওপরে বসে পড়েছিলেন। সাপের কামড়ে এক ঘণ্টার মধ্যেই মারা গেলেন ওই নারী। গীতা সিংহ নামের ওই নারীর বাড়ি ভারতের উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের রিয়ানভ গ্রামে।

নিহত নারীর স্বামী কর্মসূত্রে থাইল্যান্ডে থাকেন। স্বামীর সঙ্গে ফোনে কথা বলছিলেন তিনি। ফোনে এতটাই ব্যস্ত ছিলেন যে ঘরে প্রবেশের পর বুঝতেই পারেননি তার বিছানায় শুয়ে আছে বিষাক্ত দুটি সাপ। সাপ দু’টি প্রজননে লিপ্ত ছিল। বিছানার চাদরটাও প্রিন্টেড ছিল। সেই রঙের সঙ্গে সাপ দু’টি অনেকটাই মিশে গিয়েছিল।

 

ফোনে কথা বলতে বলতে তিনি বিছানায় সাপ দুটির ওপর বসে পড়েন। আর তখনই দু’টি সাপ একসঙ্গে তাকে কামড়ে নেয়। কামড়ানোর কয়েক মিনিটের মধ্যেই জ্ঞান হারান গীতা। পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে দ্রুত উদ্ধারের পর স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু বিষের প্রভাব এতটাই বেশি ছিল যে তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে তার মৃ’ত্যু হয়।

পরিবারের সদস্যরা হাসপাতাল থেকে ফিরে দেখেন তখনও বিছানার ওপরে রয়েছে সাপ দুটি। পরে রাগের চোটে দুটি সাপকেই পি’টিয়ে ম ‘রে ফেলেন তারা। তবে সাপ দুটি কোন প্রজাতির ছিল তা জানা যায়নি।

আজকের পত্রিকা/আরকে