মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

এখন সুস্থ থাকতে যা করবেন

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ০৯:০৭

মডেল: তানিন তানহা, ছবি: রনি বাউল ঈদের ভারী খাওয়ার পর শরীরকে ফিরিয়ে আনতে হবে স্বাভাবিক খাবারের জায়গায়। ‘স্টাইলক্রেজ’ অবলম্বনে কিছু পরামর্শ রইল আপনাদের জন্য।

কুসুম গরম পানি পান: কুসুম গরম পানি পানের অভ্যাস গড়ে তুলুন। তৈলাক্ত খাবার খাওয়ার পর কুসুম গরম পানি পাচনতন্ত্র সক্রিয় করতে সহায়তা করবে। এতে ভাজাপোড়া ও তেলজাতীয় খাবার হজম সহজ হবে। কোষ্ঠকাঠিন্য হওয়ার আশঙ্কা থাকবে না।

ডিটক্স পানীয়: তৈলাক্ত খাবার খাওয়ার পর পাচনতন্ত্রে বিষাক্ত পদার্থ জমা হয়। শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে ডিটক্স পানীয় পান করতে পারেন। লেবুর শরবত খেলে শরীর থেকে বিষাক্ত উপাদান বেরিয়ে যায়।

হাঁটা: খাওয়ার পর ২০ থেকে ৩০ মিনিট হাঁটাহাঁটি করলে খাবার ভালোভাবে হজম হয়। তৈলাক্ত ও ভারী খাবার খাওয়ার পর শরীরে যে অস্বস্তি হয়, তা কাটাতেও হাঁটা উপকারী।

স্বাভাবিক খাবারের পরিকল্পনা: টানা মসলাদার খাবার খাওয়ার পর দ্রুত স্বাভাবিক খাবারে ফিরে আসার চেষ্টা করুন। সকালের নাশতায় গমের আটার রুটি, সবজি, পানি ও জুস পান করুন। অন্যদিকে রাতের খাবারে রাখুন হালকা খাবার। দুপুরে ভারী ও মসলাদার খাবার দূরে রাখুন।

প্রোবায়োটিকস: হজম প্রক্রিয়া ও অন্ত্র ভালো রাখতে রোজ প্রোবায়োটিকস খাবার খাওয়া ভালো। প্রতিদিন এক কাপ করে টকদই খাওয়ার চেষ্টা করুন। পেটের অস্বস্তি দূর করতে ও হজম প্রক্রিয়া ভালো রাখতে টকদই ভূমিকা রাখে।

ফল ও শাকসবজি খান: ফলমূল ও শাকসবজিতে রয়েছে ভিটামিন, খনিজ ও আঁশ। এগুলো শরীরের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। পোলাও, ঝাল মাংসের মতো খাবার খাওয়ার পর অনেকেই কোষ্ঠকাঠিন্যে ভোগেন। ফলমূল ও সবজির আঁশ পেট পরিষ্কার রাখতে সহায়তা করে। হালকা খাবার হিসেবে ফল, বাদাম ও বীজ খেতে পারেন। খাবারের সঙ্গে সালাদ খেলেও আরাম পাবেন।

ঠান্ডা খাবার এড়িয়ে চলুন: ঠান্ডা খাবার খেলে অতিরিক্ত তেলজাতীয় খাবার সহজে হজম করা কঠিন। ফলে পেট ফাঁপা ও বদহজমের মতো সমস্যা হতে পারে। তাই আইসক্রিম ও অন্যান্য ঠান্ডা খাবার না খাওয়ার অভ্যাস করুন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ছানার পুডিং

    চিকেন বল যখন গোল্ডফিশ

    বাজেটের মধ্যে সেরা ফোন

    গরুর কুঁজের মাংস

    শিবগঞ্জের ইলিশ সন্দেশ

    নতুন প্রসাধনী ব্যবহারের আগে

    ময়মনসিংহে সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ গ্রেপ্তার ৩ 

    বিশ্বে করোনায় শনাক্ত কমেছে, বেড়েছে মৃত্যু

    গান্ধী পরিবারের হাতে ভরসা কমছে কংগ্রেসের

    তাণ্ডবে আশ্রয় মিলেছিল ধানখেত ও মুসলিম প্রতিবেশীর ঘরে

    ‘স্পিড মানি’র গতি

    স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেঙ্গুপ্রতিবেদন নিয়ে প্রশ্ন