শুক্রবার, ০৬ আগস্ট ২০২১

সেকশন

 

এখনো বাড়ি ফিরছে মানুষ

প্রকাশ : আপডেট : ২২ জুলাই ২০২১, ১২:৩৬

ফেরিতে ঢাকামুখী ছোট যানবাহনের চাপও দেখা গেছে। ছবি: আজকের পত্রিকা ঈদের দ্বিতীয় দিনেও ঘরমুখো মানুষের চাপ রয়েছে শিবচরের বাংলাবাজার ঘাটে। আগামীকাল শুক্রবার (২৩ জুলাই) শুরু হওয়া লকডাউনের পুরোটা সময় বাড়িতে কাটাতেই বাড়ির উদ্দেশ্যে ছুটছে। বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) শিবচরের বাংলাবাজার ঘাটে ঘরমুখো মানুষের সঙ্গে আলাপ করে এমনটা জানা গেছে।

অন্যদিকে ফেরিতে ঢাকামুখী ছোট যানবাহনের চাপ দেখা গেছে। প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাসসহ ব্যক্তিগত গাড়িতে করে ফেরি পার হচ্ছেন ঢাকামুখী যাত্রীরা।

বিআইডব্লিউটিএর বাংলাবাজার লঞ্চঘাট সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ঘরমুখো যাত্রীদের ভিড় রয়েছে। তবে ঢাকার উদ্দেশ্যেও লোকজন যাচ্ছে। ঈদের দ্বিতীয় দিন হিসেবে ঘরমুখো যাত্রীদের সংখ্যাও অনেক। নৌরুটে ৮৭টি লঞ্চ রয়েছে। উভয়মুখী চাপ সামলাতে ব্যস্ত সময় পার হচ্ছে লঞ্চ ঘাটে।

ঘরমুখো যাত্রী মো. ইউসুফ বলেন, 'শুক্রবার থেকে আবারও লকডাউন শুরু হচ্ছে। এতদিন ঢাকায় ছিলাম। কাজ থাকায় ঈদের আগে বাড়ি যেতে পারিনি। তাই এখন বাড়ি যাচ্ছি। লকডাউনে বাড়িতেই থাকব।'

শরিয়তপুরের যাত্রী মো. হাবিব বলেন, 'ঈদের আগে যেতে পারিনি। তাই আজ বাড়ি যাচ্ছি। সামনের লকডাউনে বাড়িতেই থাকব।'

এদিকে ঢাকাগামী যাত্রী মো. মহসিন বলেন, 'গত লকডাউনে বাড়ি এসেছিলাম। তাই এখন ঢাকা যাচ্ছি। শুক্রবার থেকে লকডাউন শুরু হলে যাতায়াতে সমস্যা হতে পারে। তাই আজই রওনা দিয়েছি।'

বিআইডব্লিউটিএর বাংলাবাজার লঞ্চঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন বলেন, 'ঢাকামুখী চাপ বাড়েনি। এখনও ঘরমুখী চাপ রয়েছে যাত্রীদের। সকাল থেকে শিমুলিয়া ঘাট থেকে লঞ্চে করে বাংলাবাজার ঘাটে এসে নামছে যাত্রীরা। বাড়ি ফেরা যাত্রীদের ভিড় কমেনি এখনও।'

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    কাল দেশে আসছে ভারতের দেওয়া ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স

    কাল দেশে আসছে ভারতের দেওয়া ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স

    টেকনাফে দেশীয় অস্ত্রসহ রোহিঙ্গা যুবক গ্রেপ্তার

    টেকনাফে দেশীয় অস্ত্রসহ রোহিঙ্গা যুবক গ্রেপ্তার

    রাতে ঢাকার মহাসড়কে বাস-পিকআপে যাত্রী পরিবহন

    রাতে ঢাকার মহাসড়কে বাস-পিকআপে যাত্রী পরিবহন

    আদালতকক্ষে পরীমণি ছিলেন নিশ্চুপ ও হতাশাগ্রস্ত

    আদালতকক্ষে পরীমণি ছিলেন নিশ্চুপ ও হতাশাগ্রস্ত

    কাল দেশে আসছে ভারতের দেওয়া ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স

    কাল দেশে আসছে ভারতের দেওয়া ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স

    টেকনাফে দেশীয় অস্ত্রসহ রোহিঙ্গা যুবক গ্রেপ্তার

    টেকনাফে দেশীয় অস্ত্রসহ রোহিঙ্গা যুবক গ্রেপ্তার

    মেসির পরবর্তী গন্তব্য কোথায় 

    মেসির পরবর্তী গন্তব্য কোথায় 

    মেসিকে কেন রাখতে পারল না বার্সা 

    মেসিকে কেন রাখতে পারল না বার্সা 

    ভেঙেই গেল মেসি-বার্সা জুটি

    ভেঙেই গেল মেসি-বার্সা জুটি

    অস্ত্রনীতি ঢেলে সাজাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

    অস্ত্রনীতি ঢেলে সাজাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র